গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধি প্রস্তাবের প্রতিবাদে মানববন্ধন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০২:৪২ পিএম, ১৭ এপ্রিল ২০১৯

গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব ও কমিশনের বিতর্কিত ভূমিকার প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে বাংলাদেশ সাধারণ নাগরিক সমাজ। বুধবার (১৭ এপ্রিল) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে এ মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়।

মানববন্ধনে অংশ নিয়ে গণসংহতি আন্দোলনের সমন্বয়ক জোনায়েদ সাকি বলেন, জ্বালানি মন্ত্রীর (প্রতিমন্ত্রী) বক্তব্যের ব্যাখ্যা কমিশনকে দিতে হবে। পৃথিবীর সব দেশেই সরকার মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাব আনে, আর মূল্য নির্ধারণ করে নিয়ন্ত্রক কমিশন। অথচ আমাদের দেশে কমিশনকে অবজ্ঞা করে জ্বালানি মন্ত্রী (প্রতিমন্ত্রী) মূল্যবৃদ্ধির বক্তব্য প্রদান করেন।

সিপিবির সম্পাদক মন্ডলীর সদস্য রুহিন হোসেন প্রিন্স বলেন, আগামী ছয় মাসে গ্যাসের মূল্য আমদানির উপর কী পরিমাণ বৃদ্ধি পাবে তা এখনই নির্ধারণ করতে চায় সরকার। যা মোটেও ন্যায় সংগত নয়।

Manobbondon-2

সভাপতির বক্তব্যে আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন আহমেদ বলেন, বাংলাদেশ এনার্জি রেগুলেটরি কমিশন একটি স্বাধীন সার্বভৌম প্রতিষ্ঠান হলেও এই কমিশনের এবারের গ্যাসের মূল্যবৃদ্ধির প্রস্তাবের শুনানি ও পরবর্তী সময়ে তাদের ভূমিকা জনমনে সংশয় সৃষ্টি করেছে।

মানববন্ধনে অন্যান্য বক্তারা বলেন, সরকারের পরিসংখ্যান বলছে, চলতি বছরে মূল্যস্ফীতি ঘটেছে ৫.৫ শতাংশ, সেখানে ১০২.৮৫ শতাংশ মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাবের ফলে মূল্যস্ফীতি কোথায় গিয়ে দাঁড়াবে তা পরিসংখ্যানের বিষয়। সিএনজি গ্যাসে ৪০.২৫ শতাংশ মূল্য বৃদ্ধির প্রস্তাব সড়কে শৃঙ্খলা আনতে কমিটি কর্তৃক ১১১ দফা সুপারিশের পরিপন্থী। সরকার যেখানে গণপরিবহনে ভাড়া নৈরাজ্য ও শৃঙ্খলা আনতে কাজ করে যাচ্ছে, সেখানে প্রস্তাবিত মূল্য সড়কে ভাড়া নৈরাজ্য ও বিশৃঙ্খলাকে উসকে দিচ্ছে।

তারা আরও বলেন, আবাসিক খাতে জ্বালানির সংকট চরমের মধ্যে দেশের ৯০ ভাগ জনগোষ্ঠী এখনো রাষ্ট্রের জ্বালানি ব্যবহার করতে পারছেন না। গ্যাসের মূল্য বাড়লে জিডিপি কমবে ২.৮ শতাংশ। অর্থাৎ আমরা এগিয়ে যাওয়ার বদলে পিছিয়ে যাব। নাগরিকরা যেহেতু কমিশনের উপর আস্থা রাখতে পারছেন না তাই গ্যাসের মূল্য বৃদ্ধির বিষয়টি প্রধানমন্ত্রীকে সুরাহা করে অনুরোধ করছি।

এছাড়া জ্বালানি নিয়ন্ত্রক কমিশনকে আগামী এক সপ্তাহের মধ্যে জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বিপুর বক্তব্যের ব্যাখ্যা প্রদান করতে আহ্বান জানান বক্তারা।

Manobbondon-3

আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক মহিউদ্দিন আহমেদের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টির সাধারণ সম্পাদক সাইফুল হক, বাসদের কেন্দ্রীয় নেতা রাজেকুজ্জামান রতন, আয়োজক সংগঠনের সদস্য সচিব দেলোয়ার হোসেন, বাংলাদেশ যাত্রীকল্যাণ সমিতির যুগ্ম মহাসচিব এম এ মনিরুল হক, গ্রীন মুভমেন্টের চেয়ারম্যান বাপ্পী সরদার,আয়োজক সংগঠনের সমন্বয়কারী আমিনুল ইসলাম বুলু প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

উল্লেখ্য, রাজধানীর মতিঝিল ঢাকা চেম্বারে ‘জ্বালানির মূল্যবৃদ্ধি : শিল্পায়নে প্রভাব’ শীর্ষক এক সেমিনারে বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেন, ‘গ্যাসের দাম বাড়ানো নয়, সমন্বয় করতে হচ্ছে। এতে করে ব্যবসায়ীদের কোনো ক্ষতি হবে না। আর যদি সমস্যা হয় তাহলে সরকার তা দেখবে।’

এএস/আরএস/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :