বেসরকারি হজ এজেন্সির জন্য জরুরি নির্দেশনা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১২:২২ পিএম, ২২ এপ্রিল ২০১৯

বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের নিবন্ধন সম্পন্ন হয়েছে। চলতি বছর বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় মোট ১ লাখ ২০ হাজার বাংলাদেশি পবিত্র হজ পালন করবেন। নিবন্ধন সম্পন্নের পর এজেন্সিভিত্তিক হজযাত্রীর তথ্য ইতোমধ্যেই সৌদি আরব পাঠানো হয়েছে।

জাতীয় হজ ও ওমরা নীতি অনুযায়ী বেসরকারি ব্যবস্থাপনায় হজযাত্রীদের জন্য সৌদি আরবে বাড়ি-হোটেল ভাড়া এবং হজযাত্রী পাঠোনোর বিষয়ে ২০১৯ সালের অপারেটিং হজ এজেন্সিগুলোর জন্য বিভিন্ন নির্দেশনা দিয়েছে ধর্ম মন্ত্রণালয়।

২১ এপ্রিল ধর্ম মন্ত্রণালয়ের সহকারী সচিব এসএম মনিরুজ্জামান স্বাক্ষরিত এক চিঠিতে এ জরুরি নির্দেশনা জারি হয়।

নির্দেশনাগুলো হলো- আসন্ন ১৫ রমজানের মধ্যে স্ব স্ব এজেন্সিগুলোকে হজযাত্রীদের জন্য সৌদি আরবে বাড়ি/হোটেল ভাড়া সম্পন্ন করতে হবে। হজযাত্রীদের জন্য সুষ্ঠু ব্যবস্থাপনার স্বার্থে মক্কা ও মদিনায় নির্ধারিত এলাকা সমূহে গুচ্ছভিত্তিক বাড়ি/হোটেল ভাড়া নিশ্চিত করতে হবে।

এ বছর বাংলাদেশ থেকেই হজযাত্রীদের সৌদি আরবের ‘অ্যারাইভাল ইমিগ্রেশন’ হবে বিধায় সৌদি সরকারের শর্তানুযায়ী একই ফ্লাইটে দুটি বাড়ি/ হোটেলের হজযাত্রী প্রেরণ করা যাবে। সেই কারণে অন্য এজেন্সির সঙ্গে সমন্বয় করে যেন একটি ফ্লাইটে দুটি বাড়ি/হোটেলের হজযাত্রী যেতে পারে সেভাবে বাড়ি /হোটেল ভাড়া করতে হবে।

hajj

হজযাত্রীদের দ্রুত বাড়ি/হোটেলে পৌঁছানোর জন্য বাড়ি/হোটেল ভিত্তিক পৃথক রঙ ব্যবহার করতে হবে। নির্ধারিত রঙ অনুযায়ী হজযাত্রীর পাসপোর্ট ব্যাগ এবং বাস ও বাড়ি/হোটেলের জন্য একই রঙের স্টিকার ব্যবহার করতে হবে।

বাড়ি/হোটেল ভাড়া সম্পন্নের আগে কাউন্সিলর হজকে অবহিত করতে হবে। কাউন্সিলর হজ ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের প্রতিনিধি দ্বারা বাড়ি/হোটেল ভাড়া চূড়ান্ত করার আগে সরেজমিন পরিদর্শন করা হবে।

কাউন্সিলর হজের সঙ্গে আলোচনা সাপেক্ষে বাড়ি/হোটেল ভাড়া চুক্তি সম্পাদন করতে হবে।

বাড়ি/হোটেল ভাড়া সম্পন্ন করে ফরম ৯ পূরণ করে অনুমোদনের জন্য কাউন্সিলর হজ বরাবর তালিকা দাখিল করতে হবে এবং প্রতিটি ফ্লাইটের কমপক্ষে ৭২ ঘণ্টা পূর্বে হজযাত্রীদের বাড়িভিত্তিক তালিকা আবশ্যিকভাবে সিস্টেমে আপলোড করতে হবে।

এমইউ/এমএমজেড/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :