মূল্য তালিকা ছাড়াই বিক্রি হচ্ছে টিসিবির পণ্য

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:৫৯ পিএম, ২০ মে ২০১৯

বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের ট্রেডিং কর্পোরেশন অব বাংলাদেশ (টিসিবি) পণ্য বিক্রয়ের কার্যক্রমে অনিয়ম করছে- এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে অভিযান চালিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

দুদক অভিযোগ কেন্দ্রে (হটলাইন- ১০৬) অভিযোগ আসে, রাজধানীর বিভিন্ন স্থানে ট্রাকের মাধ্যমে কম মূল্যে পণ্য বিক্রিতে অনিয়ম হচ্ছে এবং ক্রেতারা দীর্ঘ লাইনে দাঁড়িয়ে থেকেও চাহিদা মোতাবেক কাঙ্ক্ষিত পণ্য কিনতে পারছেন না।

এর প্রেক্ষিতে প্রধান কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক সিফাত উদ্দিনের নেতৃত্বে গঠিত পুলিশসহ পাঁচ সদস্যের এনফোর্সমেন্ট টিম সোমবার রাজধানীর বনশ্রীতে অভিযান পরিচালনা করে।

এসব এলাকার একটি ট্রাকের বিক্রয় কার্যক্রম সরেজমিন পর্যবেক্ষণে দুদক টিম দেখে, ট্রাকটিতে কোনো ব্যানার এবং মূল্য তালিকা নেই। ফলে নির্ধারিত মূল্য না জানায় ক্রেতাদের অধিক মূল্যে পণ্য ক্রয় করতে হচ্ছে।

দুদক টিম আরও জানতে পারে, গত ১৬ মে উক্ত এলাকায় সকল পণ্য বিক্রয় সম্পন্ন করার কথা ছিল। অথচ পণ্য মজুত করে রমজান উপলক্ষে মূল্য বৃদ্ধি করার মাধ্যমে ক্রেতাদের ঠকানো হচ্ছে। এছাড়া দিনব্যাপী বিক্রয় করার কথা থাকলেও উক্ত ডিলাররা দুপুর দেড়টা থেকে দুইটার পরে পণ্য বিক্রয় করে না। ফলে চাহিদা অনুযায়ী পণ্য পান না গ্রাহকরা।

এ সকল অনিয়মের বিষয়ে দুদক টিম উক্ত এলাকার ডিলার আবুল খায়েরকে সতর্ক করে এবং ভোক্তাদের চাহিদা মোতাবেক পণ্য সরবরাহ না করা হলে তার ডিলারশীপ বাতিল করার জন্য উদ্যোগ নেয়া হবে মর্মে তাদেরকে অবহিত করা হয় । এছাড়া অভিযোগ পেলে কমিশন পুনরায় ওই এলাকার টিসিবির ডিলারদের পণ্য বিক্রয় কার্যক্রম পর্যবেক্ষণপূর্বক আইনি ব্যবস্থা নেবে।

এদিকে টাঙ্গাইলের মির্জাপুরে অবৈধভাবে গড়ে ওঠা ইটভাটাসমূহের বিরুদ্ধে দ্বিতীয় দফা অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। সোমবার দুদক, সমন্বিত জেলা কার্যালয়, টাঙ্গাইল, মির্জাপুর উপজেলা প্রশাসন ও পরিবেশ অধিদফতর, টাঙ্গাইলের একটি সমন্বিত টিম এ অভিযান পরিচালনা করে।

অভিযানকালে লাইসেন্সবিহীন ইটভাটা এএনবি-২ -এর মালিক আব্দুর রহিমকে সংশ্লিষ্ট উপজেলা প্রশাসনের ভ্রাম্যমাণ আদালত ১ লাখ টাকা জরিমানা করে।

এদিকে বরগুনার তালতলী সরকারি কলেজে উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীদের ব্যবহারিক পরীক্ষার সময় শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে অনৈতিকভাবে টাকা নেয়া হচ্ছে- এমন অভিযোগে দুদক এনফোর্সমেন্ট ইউনিট পদক্ষেপ গ্রহণ করে।

দুদকের নির্দেশনা অনুসারে উক্ত কলেজের অধ্যক্ষ তাৎক্ষণিকভাবে এ সমস্যার সমাধান করেন এবং পরবর্তীতে কোনো শিক্ষার্থীর কাছ থেকে অতিরিক্ত টাকা আদায় করা হবে না মর্মে নিশ্চয়তা দেন।

এমইউ/এমএসএইচ/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :