‘হজ ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে গণমাধ্যম কর্মীদের অবদান রয়েছে’

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:০৬ পিএম, ২৩ মে ২০১৯

হজ এজেন্সিস অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) এর সভাপতি এম শাহাদাত হোসেন তছলিম বলেছেন, হজ ব্যবস্থাপনার মান ক্রমেই উন্নতির দিকে যাচ্ছে। এ উন্নতির পেছনে গণমাধ্যম কর্মীদের গুরুত্বপূর্ণ অবদান রয়েছে। তারা হজ ব্যবস্থাপনার বিভিন্ন অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনার চিত্র তুলে এনে ধর্ম মন্ত্রণালয় ও হাব নেতৃবৃন্দের দৃষ্টিগোচরে আনেন। তাদের প্রতিবেদনের ভিত্তিতে অনিয়ম ও অব্যবস্থাপনা দূর করে হজ ব্যবস্থাপনার উন্নয়ন সম্ভব হয়।

বৃহস্পতিবার (২৩ মে) রাজধানীর একটি হোটেলে রিলিজিয়াস রিপোর্টার্স ফোরাম (আরআরএফ) আয়োজিত ইফতার মাহফিলে আমন্ত্রিত অতিথি হিসেবে বক্তৃতাকালে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, ট্রলি ব্যাগের ব্যবসাসহ অতীতে হজ ব্যবস্থাপনা সংক্রান্ত বিভিন্ন বিষয়ে অনিয়ম ও অনৈতিক চর্চা ছিল। কোটি টাকার হাতছানিকে পরিত্যাগ করে হজ ব্যবস্থাপনার উন্নতির জন্য কাজ করেছি। সততার সঙ্গে সংগঠন পরিচালনা দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে মাঝে মাঝে হতাশ হলেও দমে যাইনি।

হাব সভাপতি বলেন, আগে সাংবাদিকদের সম্পর্কে নেতিবাচক প্রচারণা থাকলেও হাব নেতা হয়ে কাজ করতে এসে দেখেছি তারা হজ ব্যবস্থাপনার উন্নয়নে সহায়ক ভূমিকা পালন করেন।

শাহাদাত হোসেন তছলিম আরও বলেন, অতীতে ট্রলি ব্যবসাসহ অনৈতিক কর্মকাণ্ডের সঙ্গে জড়িত চক্রটি থাকলে হজযাত্রীদের হয়তো ইহরামেরও কাপড় কিনতে হতো। নানা অজুহাতে হজ সংক্রান্ত বই তুলে দিয়ে ব্যবসা করত। কিন্তু আমরা সব অন্যায়-অনিয়মকে দূরে ঠেলে নিয়মের মধ্যে থেকে হজযাত্রী প্রতিস্থাপনসহ এজেন্সি সংশ্লিষ্ট বিভিন্ন দাবি আদায় করেছি। এক্ষেত্রে সাংবাদিকরা পাশে ছিলেন।

আরআরএফ সভাপতি ফয়েজ উল্লাহ ভূঁইয়ার সভাপতিত্বে ও সাধারণ সম্পাদক উবায়দুল্লাহ বাদলের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে আরও বক্তব্য রাখেন হাব মহাসচিব ফারুক আহমেদ সরদার, সিনিয়র সহ-সভাপতি মাওলানা ইয়াকুব শরাফতি, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মুজিবর রহমান, হাবের সাবেক সিনিয়র সহ-সভাপতি ফরিদ আহমেদ মজুমদার, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন (ডিইউজে) সাধারণ সম্পাদক সোহেল হায়দার চৌধুরী, ডিইউজের (একাংশ) সাধারণ সম্পাদক শহীদুল ইসলাম, ঢাকা রিপোর্টার্স ইউনিটি (ডিআরইউ) সভাপতি ইলিয়াস হোসেন, খেলাফত আন্দোলন সভাপতি মাওলানা জাফর উল্লাহ খান, দাওয়াতে ইসলামী বাংলাদেশ সভাপতি মুফতি জহিরুল ইসলাম, মুসলিম লীগ মহাসচিব আবুল খায়ের, বাংলাদেশ খেলাফত মজলিসের মহাসচিব মাওলানা মাহফুজুল হক, যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা আহমেদ আলী কাশেমী, কেন্দ্রীয় অফিস ও প্রচার সম্পাদক অধ্যাপক মো. আবদুল জলিল এবং জমিয়তে উলামায়ে ইসলামের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব মাওলানা মহিউদ্দিন ইকরাম প্রমুখ।

ইফতারের আগে মোনাজাত পরিচালনা করেন ইসলামী ঐক্যফ্রন্টের চেয়ারম্যান মাওলানা আবদুল লতিফ নেজামি।

এমইউ/এমবিআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :