কৃষক বাজেট বোঝে না, ধান পাটের দাম বোঝে

ফজলুল হক শাওন
ফজলুল হক শাওন ফজলুল হক শাওন , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:০১ এএম, ১৯ জুন ২০১৯

‘বাজেট বুঝি না, মনপ্রতি ধানের দাম কত তাই বুঝি। সরকারের হর্তাকর্তা যারা আছে বাজেট নিয়ে তারা ঘাঁটাঘাঁটি করুক। আমরা কৃষক। নুন আনতে পান্তা ফুরায়। কোটি কোটি টেকার হিসাব আমাইগ্যারে মাথাত ঢুকব না। তাছাড়া আদার ব্যাপারীর জাহাজের খবর নিয়া লাভ কি?’

জাতীয় সংসদে সরকারের ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট পেশ প্রসঙ্গ নিয়ে বগুড়ার ধুনট থানার চরপাড়া গ্রামের আদর্শ কৃষক আকিমুদ্দিন শেখের সঙ্গে আলাপকালে তিনি উপরিউক্ত কথাগুলো বলেন।

এমন কথা শুধু আকিমুদ্দিন শেখের একার নয়, গত কয়েক দিনে বাজেট নিয়ে আরও ১৫ জনেরও বেশি কৃষকের সঙ্গে কথা বললে সবাই জানান, তারা কেউই বাজেট বোঝেন না। ধান, পাটসহ শস্যের দাম বাড়লো না কমলো এটা বোঝেন। বাজেট নিয়ে আকিমুদ্দিন শেখের মতো সারা দেশের কৃষকরা একই সুরে এমন কথাই বলবেন। কারণ বাংলাদেশে খুব কম কৃষকই আছেন যারা বাজেট নিয়ে ভাবেন।

একই গ্রামের কৃষক রঞ্জু। বাজেট প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ‘আমরা গরিব মানুষ। আমরা যা কই (বলি) তা কি সরকার শুনব, শুনব না। সরকার সরকারের মতো কাম (কাজ) করব, আমরা সারাজীবন খাইটাই (কাজ করেই) মরমু। এবার দ্যাখেন না ধানের আবাদ কইরা চালান (চাষ করে মূলধন) হারাইছি। এই ভাবে আর দুই/তিন বছর চালান হারাইলে আমরা শ্যাষ (নিঃস্ব) হয়া যামু’।

একই গ্রামের আরেক কৃষক মজিবরকে বাজেট প্রসঙ্গে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘বাজেট তো সরকারের ব্যাপার। আমরা কৃষকরা বাজেট বুঝি না। সরকার বাজেট দিলে জিনিষের দাম বাড়ে তাই বুঝি। আমরা যে জিনিষ কিনমু (ক্রয় করবো) তার দাম বেশি হয়। বিড়ি, তেল, লবণ, কাপড় কিনতে গেলে দাম বেশি। আর ধান, পাট ও সবজি বেচতে (বিক্রি) গেলে দাম কম। সরকার বাজেটে ধানের দাম, পাটের দাম বাড়াইলে বুজমু (বুঝবো) যে তারা কৃষকের জন্য কাম করলো। এছাড়া আমাইগ্যারে কাছে বাজেটের কোনো দাম নেই।’

সরকার সম্প্রতি জাতীয় সংসদে ২০১৯-২০ অর্থ বছরের বাজেট বেশ করে। বাজেট পেশ করার পর থেকে সরকার দলীয় সংগঠন এবং সহযোগী সংগঠন ছাড়া অন্য কোনো রাজনৈতিক দল বা সংগঠন সরকারের বাজেটের প্রশংসা করেনি। বিএনপি এবং বাম সংগঠনগুলোসহ অনেকেই বাজেটের সমালোচনা করছে। তারা বাজেটের সমালোচনা করে মানববন্ধন, মিছিল ও সভা-সমাবেশ করছে রাজধানীতে।

এফএইচএস/এমএমজেড/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :