ঝামেলাবিহীন হজ পালন : দেশে ফিরেছেন ১৬৬৭০ হাজি

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল
মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:৩৬ এএম, ২১ আগস্ট ২০১৯

একটা সময় ছিল যখন গণমাধ্যমকর্মীরা কাক ডাকা ভোর কিংবা নিশি রাতে সৌদি আরব ফেরত হাজিদের অবর্ণনীয় ভোগান্তি আর হয়রানির দিনলিপি শুনতে বিমানবন্দরে ছুটতেন। বিভিন্ন জাতীয় দৈনিকে লাল কালিতে বড় বড় অক্ষরে শিরোনাম ও ইলেকট্রনিক মিডিয়ায় দিনভর হাজিদের কান্নার ফুটেজ প্রচারিত হতো।

সৌদি আরবে পাহাড়ের ওপরে কিংবা দূর-দূরান্তে হোটেল/বাড়ি, খাবারের কষ্ট, চিকিৎসার কষ্ট ও লাগেজ খুঁজে না পাওয়াসহ নানা অনিয়ম ও দুর্নীতির দুঃখগাথা সংবাদ প্রচার প্রকাশিত হতো। দেশের সাধারণ মানুষ সরকারের চৌদ্দগোষ্ঠীকে উদ্ধার করে গালাগালি করে আফসোসের সুরে বলতেন, এ অবস্থার কি কোনোদিন অবসান হবে না। কেউ কেউ তা আকাশকুসুম বলেও মন্তব্য করতেন।

কিন্তু বর্তমানে একদিকে সৌদির রাজকীয় সরকারের ডিজিটাল ব্যবস্থাপনায় হজ পালন পদ্ধতি (অনলাইনে হজযাত্রীদের রেজিস্ট্রেশন, ভিসা ইস্যু, বাড়ি ভাড়া, খাবারসহ সকল প্রক্রিয়া) প্রবর্তন; অন্যদিকে বর্তমান বাংলাদেশ সরকারের প্রধানমন্ত্রীসহ ধর্মপ্রতিমন্ত্রী এবং বেসরকারি হজযাত্রী প্রেরণের সাথে জড়িত হজ এজেন্সিজ অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (হাব) নেতাদের সুষ্ঠু হজ পালনে আন্তরিক প্রচেষ্ঠার ফলে চলতি বছর বিগত যেকোনো বছরের চেয়ে সুষ্ঠুভাবে হজ সম্পন্ন করে হাজিরা দেশে ফিরে আসছেন। গণমাধ্যমকর্মীরা নেতিবাচক সংবাদ প্রচার করার সুযোগই পাচ্ছেন না!

গত ১৭ আগস্ট থেকে ফিরতি হজ ফ্লাইট শুরু হয়েছে। গত চারদিনে পবিত্র হজ পালন শেষে ঝামেলাবিহীনভাবে মোট ১৬ হাজার ৬৭০ জন হাজি দেশে ফিরেছেন। বিমান বাংলাদেশ এয়ারলাইন্স পরিচালিত ১৯টি এবং সৌদি এয়ারলাইন্স পরিচালিত ২৬টিসহ মোট ৪৫টি ফিরতি হজ ফ্লাইটে তারা দেশে ফিরেন।

এদিকে বাংলাদেশ হজ অফিস মক্কার কনফারেন্স কক্ষে গতকাল মঙ্গলবার (২০ আগস্ট) প্রশাসনিক দলের দলনেতা এবং ধর্ম বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব আবুল বারকাত মোহাম্মদ আমিন উল্লাহ নুরীর সভাপতিত্বে হজ প্রশাসনিক দলের সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হয়েছে। সভার শুরুতেই বাংলাদেশ থেকে আগত যেসকল হজযাত্রী সৌদি আরবে মৃত্যুবরণ করেছেন তাদের রুহের মাগফিরাত কামনা করা হয় এবং শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি গভীর সমবেদনা জ্ঞাপন করা হয়।

এছাড়া সভায় হাজিদের নির্ভিগ্নে দেশে প্রত্যাবর্তন এবং চিকিৎসা ব্যবস্থাপনা নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করা হয়। সভায় অন্যান্যদের মধ্যে হজ অফিস মক্কার কাউন্সিলর মুহাম্মাদ মাকসুদুর রহমান, মক্কাস্থ মৌসুমী হজ অফিসার, কনসাল (হজ), প্রশাসনিক দলের সদস্যবৃন্দ, চিকিৎসক দলের দলনেতা ও আইটি দলের দলনেতা উপস্থিত ছিলেন। সভাপতি উপস্থিত সকলকে ধন্যবাদ জানান এবং হজ পরবর্তী সকল কার্যক্রম সফলভাবে সম্পন্ন করার জন্য সবার সহযোগিতা কামনা করেন।

এমইউ/আরএস/জেআইএম