পাপিয়ার ৩ মামলার তদন্তভার র‍্যাবে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:৫৮ পিএম, ১০ মার্চ ২০২০

দেশ থেকে পালানোর সময় বিমানবন্দরে গ্রেফতার ও যুব মহিলা লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী শামীমা নূর পাপিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা তিন মামলার তদন্তের দায়িত্ব র‍্যাবে হস্তান্তর করা হয়েছে। স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অনুমোদনক্রমে রাজধানীর বিমানবন্দর ও শেরেবাংলা নগর থানায় নিজেদের দায়ের করা পৃথক তিন মামলা এখন তদন্ত করবে র‍্যাব।

গত সপ্তাহে র‍্যাব-১ এর অধিনায়ক শফিউল্লাহ বুলবুল জানান, মামলার তদন্তের দায়িত্ব পেতে আমরা স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদন করেছি। অনুমোদন পেলেই মামলা র‍্যাবে আসবে। এরপর আমরা পাপিয়া, তার স্বামী ও সহযোগীদের জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডের আবেদন করবো।

মঙ্গলবার (১০ মার্চ) বিকেলে মামলা তদন্তের দায়িত্বপ্রাপ্তির বিষয়টি নিশ্চিত করে র‍্যাব সদর দফতরের লিগ্যাল অ্যান্ড মিডিয়া উইংয়ের পরিচালক লে. কর্নেল সারওয়ার-বিন-কাশেম বলেন, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের নির্দেশনা অনুযায়ী পাপিয়ার বিরুদ্ধে দায়ের করা তিনটি মামলা র‍্যাব তদন্ত করবে।

এর আগে গত ২২ ফেব্রুয়ারি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে দেশ ত্যাগের সময় পাপিয়াসহ চারজনকে গ্রেফতার করে র‍্যাব। গ্রেফতার অন্যরা হলেন- পাপিয়ার স্বামী মফিজুর রহমান ওরফে সুমন চৌধুরী ওরফে মতি সুমন (৩৮), সাব্বির খন্দকার (২৯) ও শেখ তায়্যিবা (২২)।

এ সময় তাদের কাছ থেকে সাতটি পাসপোর্ট, নগদ দুই লাখ ১২ হাজার ২৭০ টাকা, ২৫ হাজার ৬০০ টাকার জাল মুদ্রা, ১১ হাজার ৯১ ইউএস ডলারসহ বিভিন্ন দেশের মুদ্রা জব্দ করা হয়। গ্রেফতারের পর ওইদিন রাতেই নরসিংদীর বাসায় এবং ২৩ ফেব্রুয়ারি ভোরে হোটেল ওয়েস্টিনে তাদের নামে বুকিং করা বিলাসবহুল প্রেসিডেন্সিয়াল স্যুটে অভিযান চালানো হয়।

এছাড়া ফার্মগেটে ২৮ নম্বর ইন্দিরা রোডের রওশন’স ডমিনো রিলিভো নামক বিলাসবহুল ভবনে তাদের দুটি ফ্ল্যাটে অভিযান চালিয়ে একটি বিদেশি পিস্তল, দুটি পিস্তলের ম্যাগজিন, ২০ রাউন্ড পিস্তলের গুলি, পাঁচ বোতল বিদেশি মদ ও নগদ ৫৮ লাখ ৪১ হাজার টাকা, পাঁচটি পাসপোর্ট, তিনটি চেক, বিদেশি মুদ্রা, বিভিন্ন ব্যাংকের ১০টি ভিসা ও এটিএম কার্ড জব্দ করে র‌্যাব।

এ ঘটনার পর গত ২৩ ফেব্রুয়ারি পাপিয়াকে আজীবনের জন্য বহিষ্কার করা হয় যুব মহিলা লীগ থেকে। বাংলাদেশ যুব মহিলা লীগের কেন্দ্রীয় সভাপতি নাজমা আকতার ও সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক অপু উকিল স্বাক্ষরিত এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ বহিষ্কারাদেশ দেয়া হয়। থানা পুলিশ থেকে মামলার তদন্তভার যায় গোয়েন্দা পুলিশের অধীনে। গত ২৪ ফেব্রুয়ারি জাল টাকা উদ্ধার, অস্ত্র ও মাদকের পৃথক তিন মামলায় শামীমা নূর পাপিয়া ও তার স্বামী মফিজুর রহমানের ১৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

জেইউ/এএইচ/এমকেএইচ

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]