শুক্রবার পর্যন্ত কক্সবাজার থেকে সরানো হয়েছে ১৪৮৭ পুলিশ সদস্যকে

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১২:৫০ এএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২০

পুলিশের গুলিতে সেনাবাহিনীর অবসরপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মেজর সিনহা মোহাম্মদ রাশেদ নিহতের ঘটনার পর থেকে কক্সবাজারে বেশ কয়েকজন পুলিশ কর্মকর্তাকে সাময়িক বরখাস্ত করা হয়েছে। বদলি করা হয়েছে এসপিসহ বেশ কয়েকজন ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে।

এরই ধারাবাহিকতায় শুক্রবার (২৫ সেপ্টেম্বর) রাত পর্যন্ত জেলার মোট ১৪৮৭ পুলিশ সদস্যকে কক্সবাজার থেকে বের করে অন্যত্র সংযুক্ত করা হয়েছে। পুলিশ সদরদফতর সূত্রে এ তথ্য জানা গেছে।

সিনহা নিহতের দুই মাসের মধ্যেই কয়েক ধাপে জেলার পুলিশ সুপার (এসপি) থেকে শুরু করে কনস্টেবল পর্যন্ত পুলিশের প্রতিটি পদে আনা হয় পরিবর্তন। এসপি, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সহকারী পুলিশ সুপারসহ (এএসপি) ঊর্ধ্বতন সব কর্মকর্তাদের বদলি করা হয়।

এরপর সম্প্রতি পৃথক পৃথক প্রজ্ঞাপনে কয়েক ধাপে মাঠপর্যায় পর্যন্ত সদস্যদের বদলির আদেশ দেয় পুলিশ সদরদফতর।

সর্বশেষ খবর অনুযায়ী, পুলিশের পরিদর্শক থেকে কনস্টেবল পর্যন্ত এক হাজার ৪৮৭ জনকে দেশের বিভিন্নস্থানে বদলি করা হয়েছে। পক্ষান্তরে এসব পদমর্যাদার এক হাজার ৫০৭ জনকে কক্সবাজার পুলিশে যুক্ত করা হয়েছে।

পুলিশ সদরদফতর সূত্র জানায়, নিরস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক পদমর্যাদার ৩৪ জনকে কক্সবাজার থেকে অন্যত্র বদলি করা হয়েছে। শহর ও যানবাহন পুলিশ পরিদর্শক পদমর্যাদার ১০ জন, সশস্ত্র পুলিশ পরিদর্শক (আরআইসহ) ছয়জন, উপপরিদর্শক (এসআই-নিরস্ত্র) পদের ১৫৪ জন, এসআই (সশস্ত্র) পদের ২৫ জন, সার্জেন্ট পদের আটজন, টিএসআই পদের পাঁচজনকে বদলি করে নতুনদের যুক্ত করা হয়েছে।

এছাড়া, ১৪৮ সহকারী উপ পরিদর্শককে (এএসআই-নিরস্ত্র), এএসআই (সশস্ত্র) পদের ২১ জন, এটিএসআই ১৯ জনকে বদলি করা হয়েছে।

মাঠপর্যায়ের কনিষ্ঠতম পদের সদস্যদের মধ্যেও নায়েক পদে ৫০ এবং সবচেয়ে বেশি সংখ্যক কনস্টেবল পদের ১০০৭ জনকে অন্যত্র বদলি করা হয়েছে।

উল্লেখ্য, গত ২৩ সেপ্টেম্বর এক প্রজ্ঞাপনে কক্সবাজারের পরিদর্শক পদের ৩৪ জনকে অন্যত্র বদলি করা হয়। ওই প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, বদলিকৃতদের ২৯ সেপ্টেম্বরের মধ্যে পুরাতন কর্মস্থল ছেড়ে দিতে হবে। নতুন কর্মস্থলে যোগদানের আগে ৩০ সেপ্টেম্বর তাদেরকে ঢাকায় একটি ব্রিফিংয়ে উপস্থিত হতে বলা হয়েছে। এজন্য ওইদিন রাজারবাগের পুলিশ অডিটরিয়মে নির্ধারিত সময়ে তাদেরকে পোশাক পরে উপস্থিত হতে বলা হয়েছে।

এর আগে গত ১৬ সেপ্টেম্বর কক্সবাজারের পুলিশ সুপার (এসপি) এ বি এম মাসুদ হোসেনসহ ঊর্ধ্বতন ছয় কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়। এসপি এবিএম মাসুদ হোসেনকে বদলি করে রাজশাহীর পুলিশ সুপার করা হয়। আর ঝিনাইদহের এসপি মো. হাসানুজ্জামানকে কক্সবাজার জেলা পুলিশের দায়িত্ব দেয়া হয়।

এসপি এবিএম মাসুদ হোসেনকে বদলির পর গত ২১ সেপ্টেম্বর কক্সবাজার জেলা পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ও সহকারী পুলিশ সুপার পদমর্যাদার আরও সাতজন কর্মকর্তাকে বদলি করা হয়।

এআর/এএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]