সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কাউকে হয়রানি নয় : স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৯:৪৭ পিএম, ০৯ আগস্ট ২০২১
ফাইল ছবি

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল আশ্বস্ত করে বলেছেন, সম্প্রতি গ্রেফতার হওয়া বিভিন্ন মডেলের সঙ্গে সম্পর্ক থাকা অনেকের নামের তালিকা পাওয়ার খবর ছড়ালেও সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কাউকে হয়রানি করা হবে না।

সোমবার (৯ আগস্ট) রাতে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

পিয়াসাকে গ্রেফতারের পর পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়, তিনি তার বাড়িতে পার্টি করে বিভিন্নজনকে ডাকতেন। পরে তাদের ব্ল্যাকমেইল করতেন। পরীমনিকে গ্রেফতারের পর র‌্যাবও তার বিরুদ্ধে ঘরে মাদকের আসর বসানোর কথা বলে।

চিত্রনায়িকা পরীমনি, মডেল পিয়াসা ও মৌয়ের বাসায় যাতায়াত ছিল, এমন ব্যবসায়ী বা ব্যক্তিদের তালিকা হচ্ছে বলে কোনো কোনো গণমাধ্যমে খবর এসেছে।

এ বিষয়ে জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী কামাল বলেন, সুনির্দিষ্ট অভিযোগ ছাড়া কাউকে হয়রানি করা হবে না।

রিমান্ডে থাকা পরীমনি কিংবা পিয়াসা কি কারও নাম বলেছেন- এমন প্রশ্নে তিনি বলেন, কারও নাম বললেই কি হবে নাকি? যাচাই-বাছাই রয়েছে না। আপনারা (সাংবাদিক) ভালো করে প্রচার করেন যে, কাউকে হয়রানি করা হবে না।

এদিকে, সোমবার দুপুরে ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম বলেছেন, মডেল-অভিনেত্রী গ্রেফতারের পর ব্যবসায়ীদের মধ্যে এক ধরনের আতঙ্ক ছড়িয়েছে। আমরা চাই না করোনাকালে এমন আতঙ্ক ছড়াক। বিনা কারণে কারও সম্মানহানি ঘটুক। কেউ যাতে মিডিয়া ট্রায়ালের শিকার না হন সে জন্য সবাইকে দায়িত্ব নিয়ে কাজ করতে হবে।

যারা ইতোমধ্যে গ্রেফতার হয়েছেন তাদের বিরুদ্ধে সুনির্দিষ্ট কিছু আইনে মামলা হয়েছে বলে জানান ডিএমপি কমিশনার।

তিনি অনুরোধ করেন, যদি ব্যবসায়ী মহলের কারও কাছে বা সমাজের কোনো নাগরিকের কাছে এমন তালিকার কথা বলে চাঁদা চেয়ে কেউ ফোন করে, তাহলে সঙ্গে সঙ্গে তারা যেন বিষয়টি আইন-শৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে জানান। সেই সঙ্গে অডিও বা ভিডিও থাকলে তা যেন তদন্তের স্বার্থে সংরক্ষণ করে রাখেন।

এদিকে, আওয়ামী লীগের উপ-কমিটি থেকে বহিষ্কারের পর গ্রেফতার হেলেনা জাহাঙ্গীর এবং চিত্রনায়িকা পরীমনি ও প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজসহ সাতজনের বিরুদ্ধে করা ১০ মামলার তদন্তের দায়িত্ব চেয়ে পুলিশ সদর দফতরে চিঠি দিয়েছে র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‍্যাব)।

সম্প্রতি র‍্যাবের অভিযানে গ্রেফতার হেলেনা জাহাঙ্গীর, শরফুল হাসান ওরফে মিশু হাসান, মাসুদুল ইসলাম ওরফে জিসান, চিত্রনায়িকা পরীমনি ও তার ম্যানেজার সবুজসহ গ্রেফতার প্রযোজক নজরুল ইসলাম রাজ, পরীমনির কথিত মামা ও সহযোগী আশরাফুল ইসলাম দীপুর বিরুদ্ধে দায়ের করা ১০ মামলার তদন্তের দায়িত্ব চেয়ে পুলিশ সদর দফতরে চিঠি দেয়া হয়েছে। পুলিশ সদর দফতরের অনুমতি মিললে মামলাগুলো দ্রুত ও গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করবে বলে জানায় র‍্যাব।

টিটি/এমআরআর/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]