চট্টগ্রামে স্ত্রীকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:০০ পিএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

চট্টগ্রাম নগরের কোতোয়ালি থানা এলাকায় অঞ্জলী দাশ (২৮) নামে এক গৃহবধূকে গলাটিপে হত্যার অভিযোগ উঠেছে স্বামীর বিরুদ্ধে। অভিযুক্তের নাম সঞ্জীবন দাশ। তিনি চট্টগ্রাম বন্দরের খালাসি পদে কর্মরত বলে জানা গেছে।

নিহতের পরিবারের অভিযোগ, ছয় মাস আগে বাঁশখালীর সাধনপুর এলাকার বাসিন্দা সঞ্জীবনের সঙ্গে নগরের বহদ্দারহাট খতিবির হাট এলাকার বাসিন্দা অঞ্জলীর বিয়ে হয়। এরপর তারা নগরের কোতোয়ালি থানার নেভাল-২ ফিরিঙ্গি সরকারি স্টাফ কোয়ার্টারে থাকতেন। বিয়ের পর নানা বিষয়ে তাদের মধ্যে সৃষ্টি হয় মনোমালিন্য। গত ২৮ আগস্ট সন্ধ্যার দিকে অঞ্জলীকে গলাটিপে ধরেন তার স্বামী। এরপর নিহতের শ্বশুর বাড়ির লোকজন অঞ্জলী আত্মহত্যার চেষ্টা করেছেন বলে প্রচার করে।

ঘটনার পর চট্টগ্রামের একটি বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয় অঞ্জলীকে। সেখানে তাকে চার-পাঁচদিন রাখা হয় লাইফ সাপোর্টে। এরপর তাকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। সেখানেও তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। চিকিৎসাধীন থাকার পর সোমবার দিবাগত রাত ১১টার দিকে তার মৃত্যু হয়।

নিহতের ভাই সুজিত দাশ জাগো নিউজকে বলেন, আমার বোনকে যৌতুকের জন্য গলাটিপে হত্যা করেছে তার স্বামী। তার গলায় স্পষ্ট দাগ ছিল। আহতের পর থেকে আমার বোন আর কথা বলতে পারেনি। সোমবার রাতে তার মৃত্যু হয়। মৃত্যুর পর থেকে তার স্বামী পলাতক। এ বিষয়ে আমরা কোতোয়ালি থানায় আগেও মৌখিকভাবে অভিযোগ দিয়েছি। আজকে আবার অনুমতি নিয়েছি ময়নাতদন্তের জন্য।

এ বিষয়ে জানতে অভিযুক্ত সঞ্জীবনের সঙ্গে মোবাইলে একাধিকবার যোগাযোগের চেষ্টা করা হলেও সংযোগ স্থাপন করা সম্ভব হয়নি।

জানতে চাইলে কোতোয়ালি থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মোহাম্মদ নেজাম উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, নিহতের মরদেহ ময়নাতদন্ত করা হচ্ছে। ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন ও নিহতের পরিবারের অভিযোগ সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মিজানুর রহমান/জেডএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]