ঈদযাত্রা: ৭ জুলাইয়ের টিকিটের চাহিদা বেশি আজ

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৫৮ পিএম, ০৩ জুলাই ২০২২
ইউনিক বাস কাউন্টারে টিকিটপ্রত্যাশীদের ভিড়

ঈদুল আজহা উপলক্ষে বৃহস্পতিবার (৭ জুলাই) দুপুর থেকে শুক্রবার (৮ জুলাই) সকাল পর্যন্ত বাসের অগ্রিম টিকিটের চাহিদা বেশি বলে জানিয়েছেন ঢাকার বাস কাউন্টারগুলোর কর্মচারীরা। এরই মধ্যে ৭ থেকে ৮ তারিখ সকাল পর্যন্ত সময়ের সব টিকিট বিক্রি হয়ে গেছে বলে জানিয়েছেন তারা।

তারা জানান, এরই মধ্যে বেশিরভাগ কাউন্টারে ৭ জুলাইয়ের অগ্রিম টিকিটের জন্য এসে না পেয়ে ফিরে যাচ্ছেন যাত্রীরা। বাধ্য হয়ে তারা অন্যদিনের টিকিট নিচ্ছেন।

রোববার (৩ জুলাই) সরেজমিনে মানিকনগর, টিটিপাড়া, সায়েদাবাদের বাস কাউন্টার ঘুরে দেখা যায়, এনা, ইউনিক, স্টার লাইনের কাউন্টারে আগাম টিকিটপ্রত্যাশীদের বেশ ভিড়। চট্টগ্রাম, ফেনী, উত্তরবঙ্গসহ বিভিন্ন এলাকার শত শত যাত্রী অগ্রিম টিকিট কাটতে এসেছেন।

jagonews24

ঢাকা-ফেনী রুটের যাত্রী ফয়সাল বলেন, শুক্রবার থেকেই অফিস ছুটি, তাই বৃহস্পতিবার অফিস শেষ করেই বাড়ির পথে রওয়ানা দেব বলে ভেবেছিলাম। এজন্য আজ (শুক্রবার) ঘুম থেকে উঠেই টিকিট কাটতে এসেছি। কিন্তু কাউন্টারের লোকজন বলছেন, বৃহস্পতিবারের কোনো টিকিট নেই। বাধ্য হয়ে শুক্রবার সন্ধ্যার টিকিট নিয়েছি।

ঢাকা-চট্টগ্রাম রুটের ইউনিক বাসের টিকিট কাটতে এসেছেন রুপম। তিনি জাগো নিউজকে জানান, ৭ জুলাইর টিকিট চেয়েছিলাম, কিন্তু পাচ্ছি না। শ্যামলী, সোহাগের কাউন্টারেও গিয়েছি, সেখানেও টিকিট নেই। এখন কাছাকাছি সময়ে যে বাস পাব, সে বাসের টিকিট কিনব। না হয় পরে তাও পাবো না।

স্টার লাইন কাউন্টারের জেনারেল ম্যানেজার জানান, এ মুহূর্তে যাত্রীদের ভিড় সাধারণ সময়ের মতোই, বাড়তি চাপ নেই। তবে আমাদের অগ্রিম টিকিটের মাঝে ৭-৮ জুলাইয়ের টিকিট এরই মধ্যে বিক্রি হয়ে গেছে। এর আগে পরের টিকিট এখনো আছে। তবে ওই দুদিন যাত্রীদের সর্বোচ্চ চাপ থাকবে বলে মনে হচ্ছে। যাত্রীদের সুবিধার্থে আমরা সাধারণ সময়ের থেকে অতিরিক্ত বাস দেওয়ার চেষ্টা করবো।

এএএম/এসএএইচ/জিকেএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]