অপরিকল্পিত উন্নয়ন-নদী দখলের বিরুদ্ধে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৪:৪৪ এএম, ২৬ সেপ্টেম্বর ২০২২

 

বিশ্ব নদী দিবস উপলক্ষে বুড়িগঙ্গায় নৌযাত্রা ও মানববন্ধন করেছে বেশ কয়েকটি পরিবেশবাদী সংগঠন। এসময় বক্তারা নদ-নদীর অপরিকল্পিত উন্নয়ন বন্ধ করা, দখল হয়ে যাওয়া নদ-নদী ও খাল-বিল উদ্ধার করে পানির স্বাভাবিক প্রবাহ অব্যাহত রাখার দাবি জানান। একই সঙ্গে নদীকে দূষণমুক্ত ও দখলমুক্ত রাখতে সবাইকে সোচ্চার হওয়ার আহ্বান জানানো হয়।

রোববার (২৫ সেপ্টেম্বর) বুড়িগঙ্গা রিভারকিপার, ক্লিন রিভার বাংলাদেশ, শিশুদের মুক্ত বায়ু সেবন সংস্থা এবং নগরবাসী পরিবেশ আন্দোলন যৌথভাবে নৌযাত্রা ও মানববন্ধন করে। এ সময় সংগঠনগুলোর নেতারা এ আহ্বান জানান।

রাজধানীর বাবুবাজার থেকে নৌযাত্রা শুরু হয়ে কামরাঙ্গীরচর হয়ে বসিলা পুরাতন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে এসে শেষ হয়।

এসময় ওয়াটারকিপার্স বাংলাদেশ ও বুড়িগঙ্গা রিভারকিপারের সমন্বয়ক শরিফ জামিল বলেন, ‘আমাদের গণমানুষের নৌপথ’ এই স্লোগানে আজকের বিশ্ব নদী দিবস পালন করা হচ্ছে। নৌপথ আগেও ছিল এখনও আছে, এখন ড্রেজিং করে নৌপথগুলো চলার উপযোগী করা হচ্ছে। এর ফলে শাখা নদী ও উপনদী ও ছোট নদী ধ্বংস হয়ে যাচ্ছে। আমরা যেন গণমানুষের নৌপথ অর্থাৎ শাখা নদী ও উপনদী যেন ধ্বংস না করি, দূষিত ও দখল না করি এই বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে।

বাপা বগুড়া শাখার সাধারণ সম্পাদক মো. জিয়াউর রহমান বলেন, প্রতিটি জেলায় অন্তত একটি নদী সুরক্ষা ও দখল-দূষণ থেকে মুক্ত করা গেলে গত দেড় যুগ ধরে চলা নদী রক্ষা আন্দোলনের শ্রম সার্থক হবে।

সুরমা রিভার ওয়াটারকিপার আব্দুল করিম কিম বলেন, এক সময় হাতেগোনা কয়েকটি সংগঠন নদী দিবস পালন করতো। আশার কথা হলো আজকে নদী দিবস সরকারিভাবেও পালন করা হচ্ছে। নদী রক্ষার দায়িত্ব যাদের, তারা নদী দখল ও দূষণের বিরুদ্ধে সুস্পষ্ট অবস্থান নিলে নদী রক্ষা সহজ হবে।

খোয়াই রিভার ওয়াটারকিপার তোফাজ্জল সোহেল বলেন, ১৯৭১ সালে মুক্তিযুদ্ধকালীন নদীপথ ছিল আমাদের সহজ ও নিরাপদ যোগাযোগ মাধ্যম। নদী হয়ে উঠেছিল তখন মানুষের নিরাপদ ঠিকানা। কিন্তু সেই ঠিকানা আজ অস্তিত্ব হারাতে বসেছে। আমাদের অধিকাংশ নদনদী এখন হারিয়ে যাচ্ছে। দখল, দূষণ এবং নদীর ওপর অত্যাচার-অনাচার ক্রমাগতভাবে বেড়েই চলেছে। আমাদের অস্তিত্ব টিকিয়ে রাখার জন্য নদী রক্ষা করতে হবে।

নৌযাত্রা ও মানববন্ধনে আরও বক্তব্য রাখেন- ক্লিন রিভার বাংলাদেশের প্রধান নির্বাহী সোহাগ মহাজন, সচেতন নাগরিক সমাজের নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহাঙ্গীর আদেল, শিশুদের মুক্ত বায়ু সেবন সংস্থার মো. সেলিম, বসিলা কমিউনিটির নেতা মো. মানিক হোসেন, নগরবাসী পরিবেশ আন্দোলনের চেয়ারম্যান হাজী শেখ আনসার আলী প্রমুখ।

এমআইএস/কেএসআর

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।