‘খন্দকার মোশতাকের খাতায় নাম লিখিয়েছেন ড. কামাল’

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:৩০ পিএম, ১৭ অক্টোবর ২০১৮
ফাইল ছবি

ড. কামাল হোসেন স্বাধীনতার চেতনা ও বঙ্গবন্ধুর আত্মার সঙ্গে বেইমানি করেছেন বলে অভিযোগ আওয়ামী লীগের প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক হাছান মাহমুদের।

বুধবার (১৭ অক্টোবর) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সামনে বাংলাদেশ স্বাধীনতা পরিষদ আয়োজিত 'বিএনপি-জামায়াত ও ড. কামাল গংদের দেশবিরোধী ষড়যন্ত্রের পায়তারার প্রতিবাদ’ শীর্ষক সমাবেশ ও মানববন্ধনে তিনি এ কথা বলেন।

হাছান মাহমুদ বলেন, ‘আপনি কথায় কথায় বলেন আমি বঙ্গবন্ধুর সৈনিক ছিলাম। কিন্তু যারা বঙ্গবন্ধুকে ইতিহাসের পাতা থেকে মুছে ফেলতে চেয়েছিল, যারা বঙ্গবন্ধু হত্যায় যুক্ত, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকারীদের বিদেশি দূতাবাসে চাকরি দিয়ে পুনর্বাসিত করেছিল এবং যারা বঙ্গবন্ধু হত্যাকাণ্ডের বিচারের পথ রুদ্ধ করেছিল তাদের নেতৃত্ব গ্রহণ করার মধ্য দিয়ে আপনি স্বাধীনতার চেতনার এবং বঙ্গবন্ধুর আত্মার সঙ্গে বেইমানি করে খন্দকার মোশতাকের খাতায় নাম লিখিয়েছেন।

হাছান বলেন, ‘কানা ছেলের নাম যেমন পদ্মলোচন রাখা হাস্যকর ঠিক তেমনি উনাদের জাতীয় ঐক্যের নাম ও সে রকম। এখন বিশ দলীয় জোট থেকে দুই দল বের হয়ে গেছে। অর্থাৎ তারা নিজেদের জোটই ঠিক রাখতে পারছেন না। আর উনারা নাম দিয়েছে জাতীয় ঐক্য। জাতীয় ঐক্য জনগণের সঙ্গে ভাওতাবাজি ছাড়া অন্যকিছু নয়।’

তিনি বলেন, খেলোয়াড়রা যেমন ভাড়ায় খেলে তেমনি ড. কামাল হোসেনও রাজনীতির মাঠে ভাড়ায় খেলছেন। আর মির্জা ফখরুল ও মওদুদ আহমেদসহ বিএনপির বর্তমান নেতারা অত্যন্ত সুচতুরভাবে ড. কামাল হোসেনকে জোটের নেতা বানিয়ে জোটের নেতৃত্বের পদ থেকে খালেদা জিয়া এবং তারেক রহমানকে মাইনাস করেছে।

'প্রয়োজনে শয়তানের সঙ্গেও ঐক্য করা হবে' গয়েশ্বর রায়ের এমন বক্তব্যের সূত্র ধরে হাছান বলেন, সুতরাং তার বক্তব্য অনুযায়ী ড. কামাল, মাহমুদুর রহমান মান্না ও আব্দুর রব সাহেবরা হচ্ছে শয়তান। তবে ড. কামাল হোসেন শয়তান কিনা জানি না। তার প্রতি শ্রদ্ধা রেখেই বলতে চাই আপনি কথায় কথায় মানবাধিকারের কথা বলেন, সু-শাসনের কথা বলেন, পুলিশের ভূমিকা নিয়ে প্রশ্ন তোলেন আর যেই জোটে আপনি ভাড়ায় গেলেন, যেই জোটের নেতৃত্ব গ্রহণ করেছেন তারা কারা?

ডেমরা থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট রফিকুল ইসলাম মাসুদের সভাপতিত্বে কর্মসূচিতে আরও উপস্থিত ছিলেন ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক শাহে আলম মুরাদ, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের প্রচার সম্পাদক আকতার হোসেন, উপ দফতর সম্পাদক মিরাজ হোসেন, সংগঠনের সাধারণ সম্পাদক শাহাদাত হোসেন টয়েল প্রমুখ।

এইউএ/এএইচ/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :