জেএসডির ১০ দফা ইশতেহার ঘোষণা

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৪:৫৯ পিএম, ০৬ ডিসেম্বর ২০১৮

১০ দফা নির্বাচনী ইশতেহার ঘোষণা করেছে জাতীয় সমাজতান্ত্রিক দল (জেএসডি)। একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ২০১৮ উপলক্ষে এক সংবাদ সম্মেনে জাতীয় প্রেস ক্লাবে এ ইশতেহার ঘোষণা করে দলটি।

সংবাদ সম্মেলনে দলের সাধারণ সম্পাদক অাবদুল মালেক রতন ইশতেহার পাঠ করেন।

ইশ‌তেহা‌রে ১০ দফার ম‌ধ্যে প্রথম দফায় র‌য়ে‌ছে, কেন্দ্রীয় সরকার হবে ফেডারেল পদ্ধতির। যেখানে রাষ্ট্রপতি থাকবেন রাষ্ট্রপ্রধান, সংসদীয় ব্যবস্থা থাকবে, প্রধানমন্ত্রী সরকারপ্রধান ও নির্বাহী প্রধান থাকবেন, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতার ভারসাম্য আনা হবে, রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রীর ক্ষমতা দুই মেয়াদে নির্দিষ্ট করা হবে।

অন্য দফাগুলো হ‌লো, (২) নিম্ন কক্ষ ও উচ্চকক্ষ সমন্বয়ে জাতীয় সংসদ গঠন। (৩) বাংলাদেশকে ৯টি প্রদেশে গঠন করা, প্র‌দে‌শে নির্বাচিত 'প্রাদেশিক পরিষদ' ও প্রাদেশিক সরকার থাকবে।

(৩) জাতীয় সংসদের উচ্চকক্ষ থেকে নির্বাচনকালীন সরকার গঠন করা। (৪) স্বাধীন নির্বাচন কমিশন গঠন। (৫) বিচারবিভাগের স্বাধীনতা নিশ্চিত করা। (৬) গণমুখী প্রশাসন গঠন।

(৭) ব্রিটিশ প্রণীত শাসন শোষ‌ণের উ‌দ্দে‌শে যেসব আইন প্রণয়ন করা হয়েছিল তা বাতিল করে যুগোপযোগী আইন প্রণয়ন করা। (৮) ব্রিটিশ প্রণীত প্রথম দ্বিতীয় ও তৃতীয় শ্রেণির কর্মকর্তা ও কর্মচারী অমর্যাদাকর বিভাজন বি‌লোপ করা, তবে কাজের সুবিধার্থে স্তর বিন্যাস নির্ধারণ করা।

(৯) ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন বাতিল করা, সংবাদপত্র বা গণমাধ্যমের স্বাধীনতা এবং বাক-স্বাধীনতা নিশ্চিত করা, জাতীয় নিরাপত্তা কাউন্সিল গঠন করা।

(১০) অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ডে গতিশীল করার লক্ষে উপ-আঞ্চলিক অর্থনৈতিক সহযোগিতা জোট গঠন করা।

সংবাদ সম্মেলনে জেএসডির সভাপতি অা স ম অাবদুর রব বলেন, অাগামী ১০ ডিসেম্বরের পর আমরা মাঠে নামবো। তখন জনজোয়ারে সরকারের সব দুঃশাসন ভেসে যাবে। তিনি ক্ষমতাসীন দলের নেতাকর্মীদের প্রতি আহ্বান জানিয়ে বলেন, আপনারা যেন কেউ ভোটের মাঠ রেখে পালিয়ে না যান।

এফএইচএস/জেডএ/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :