ঐক্যফ্রন্টের ‘নিম্ন-মধ্যবিত্তের স্বার্থ রক্ষার’ ইশতেহার কাল

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৬:১৮ পিএম, ১৬ ডিসেম্বর ২০১৮

আগামীকাল সোমবার একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের ইশতেহার ঘোষণা করবে জাতীয় ঐক্যফ্রন্ট। প্রথমে বিএনপি ও জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের দুই ধরনের ইশতেহার ঘোষণার গুঞ্জন শোনা গেলেও সোমবারের ইশতেহার হবে অভিন্ন।

জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের মিডিয়া কো-অর্ডিনেটর মেহেদী মাসুদ জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। তিনি বলেন, সোমবার বেলা ১১টায় মতিঝিলের হোটেল পূর্বাণীতে ইশতেহার ঘোষণা করা হবে।

ইশতেহারের উল্লেখিত বিষয়বস্তু সম্পর্কে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের প্রধান সমন্বয়কারী মোস্তফা মহসিন মিন্টু জাগো নিউজকে জানান, ঐক্যফ্রন্টের দলগুলোর দেয়া ইশতেহারের সমন্বয়ে অভিন্ন একটি ইশতেহার তৈরি করা হয়েছে। ইশতেহার ঘোষণা অনুষ্ঠানে ঐক্যফ্রন্টের সিনিয়র নেতারা উপস্থিত থাকবেন। ইশতেহারে ঐক্যফ্রন্ট প্রতিষ্ঠার লক্ষ্য ও উদ্দেশ্যগুলোর প্রতিফলন থাকবে।

এর আগে জাতীয় ঐক্যফ্রন্টের ইশতেহার তৈরির জন্য ৬ সদস্যের কমিটি করা হয়। কমিটিতে বিএনপি থেকে মাহফুজ উল্লাহ, গণফোরাম থেকে আ ও ম শফিক উল্লাহ, নাগরিক ঐক্য থেকে ডা. জাহেদ উর রহমান, জেএসডি থেকে শহীদ উদ্দিন মাহমুদ স্বপন, কৃষক শ্রমিক জনতা লীগের অধ্যক্ষ ইকবাল সিদ্দিকী এবং ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী আছেন।

ইশতেহারের বিষয়ে ডা. জাফরুল্লাহ চৌধুরী বলেন, ইশতেহারে আমাদের অন্যতম গুরুত্ব থাকবে কৃষক, যাতে কৃষক উৎপাদিত পণ্যের ন্যায্যমূল্য পায়। ঢাকার মানুষও যেন ন্যায্যমূল্য পায়। সবদিকে সামঞ্জস্য রাখা হবে। আমরা এমন ইশতেহার দেব যাতে নিম্নবিত্ত, মধ্যবিত্ত ও উচ্চবিত্তরা বেশি উপকৃত হন। এছাড়াও আইনের নামে বাংলাদেশে যেসব ‘অপআইন’ চলছে এগুলো বন্ধের ঘোষণা থাকবে।

চলতি বছরের ১৩ অক্টোবর বিএনপিসহ কয়েকটি দল নিয়ে গঠিত হয় ঐক্যফ্রন্ট। দলটি প্রথম দফায় নভেম্বরের শেষ সপ্তাহে এবং ডিসেম্বরের ৮ তারিখে ইশতেহার ঘোষণার কথা বললেও পরে তা করেনি।

এআর/জেএইচ/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :