নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করাই ছিল বিএনপির লক্ষ্য : তথ্যমন্ত্রী

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৫:১৯ পিএম, ২১ জানুয়ারি ২০১৯

তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, নির্বাচন প্রশ্নবিদ্ধ করার জন্যই বিএনপি নির্বাচনে অংশগ্রহণ করেছিল। তাদের মূল লক্ষ্য ছিল নির্বাচনকে প্রশ্নবিদ্ধ করা। সেজন্য নানা ধরনের কথা বলছেন।

সোমবার সচিবালয়ে তার নিজ দফতরে বিএনপির যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভীর সংবাদ সম্মলনের বক্তব্যের প্রতিবাদ জানিয়ে সাংবাদিকদের তিনি একথা বলেন।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, ‘গতকাল বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী একটি প্রেস কনফারেন্স করেছেন। প্রেস কনফারেন্সে প্রধানমন্ত্রীকে ইঙ্গিত করে তিনি সরাসরি বিষাদগার করেছেন। প্রকৃতপক্ষে বিএনপি গত নির্বাচনে শোচনীয়ভাবে পরাজিত হওয়ার পর তারা হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছে। তাদের মহাসচিবের বক্তব্য, তাদের সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিবের বক্তব্য তারা যে হিতাহিত জ্ঞান হারিয়ে ফেলেছে তারই প্রমাণ পাওয়া যাচ্ছে। তারা অসংলগ্ন কথাবার্তা বলছেন।’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের মতো শান্তিপূর্ণ নির্বাচন বাংলাদেশের ইতিহাসে পূর্বে কখনও হয়নি জানিয়ে হাছান মাহমুদ বলেন, পুলিশের হিসাব অনুযায়ী প্রতি নির্বাচনে পুলিশের ওপর হামলা হয়। অনেক পুলিশ আহত হয়। এমনকি নিহত হয়। এ নির্বাচনে কোনো পুলিশ আহত হয়নি। নির্বাচন ছিল অত্যন্ত শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর।

তিনি বলেন, ৩০ ডিসেম্বর বিএনপির ভরাডুবি হবে সেটা তারা জানতেন। এজন্য তারা প্রচার প্রচারণা ঠিক মতো করেনি। তারা তিনশ আসনে ৮০০ প্রার্থীকে মনোনয়ন দিয়েছেন। এতে করে প্রার্থীদের মধ্যে দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়। আমরা বহুমাত্রিক প্রচার চালিয়েছি। ৫টি মাধ্যমে প্রচার চালিয়েছি। এছাড়া আমাদের প্রার্থীরা মোবাইল ফোনে প্রচারণা চালিয়েছে। এগুলোর কোনোটাই বিএনপি করেনি। তারা প্রচারণার জন্য পোস্টার পর্যন্ত লাগায়নি।

রিজভীকে উদ্দেশ্য করে হাছান মাহমুদ বলেন, রিজভীর এ ধরনের বক্তব্যে তাদের রাজনৈতিক দেউলিয়াত্বের প্রকাশ করছে। তাদের উচিত কেন তাদের নির্বাচনে পরাজয় হলো, কেন প্রার্থীরা প্রচারণা করেনি তা খুঁজে বের করা। নাচতে না জানলে উঠান বাঁকার মতে বক্তব্য না দিয়ে কেন পরাজয় হলো তা বিচার বিশ্লেষণ করে বের করা।

তিনি আরও বলেন, আমরা একটি শক্তিশালী বিরোধী দল সংসদে চাই। বিএনপির এ ধরনের শোচনীয় পরাজয় আমরা ভাবতেই পারিনি।

এমইউএইচ/জেএইচ/পিআর/এসজি

আপনার মতামত লিখুন :