বিএনপির সময়ে আমদানির চেয়ে রফতানি বেশি হয়েছে, দাবি খসরুর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:১৮ পিএম, ২৩ মে ২০১৯

বিএনপি ক্ষমতায় থাকাকালে আমদানির চেয়ে রফতানি বেশি হয়েছে বলে দাবি করেছেন দলটির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, যে দেশের কৃষক তার ফসলের দাম পাবে না সে দেশে উন্নয়ন কখনো হবে না। বিএনপি যখন ক্ষমতায় ছিল তখন আমদানির চেয়ে রফতানি বেশি হয়েছে। কিন্তু আজ কৃষক তার ফসলের ন্যায্যমূল্য না পেয়ে ফসলে আগুন দিচ্ছে। উৎপাদন খরচ না পাওয়ায় কৃষকের মাঝে এখন হাহাকার দেখা যাচ্ছে।

আজ বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় জাতীয় প্রেস ক্লাবে জাতীয়তাবাদী কৃষক দলের উদ্যোগে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের ৩৮তম মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভা ও ইফতার মাহফিলে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী।

বাংলাদেশে কৃষির উন্নয়নে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা জিয়াউর রহমানের অবদানকে স্মরণ করে খসরু বলেন, আজকে দেশের কৃষিতে যে উন্নয়ন হয়েছে তা শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমানের হাত ধরে হয়েছে। শহীদ রাষ্ট্রপতি জিয়াউর রহমান প্রত্যন্ত গ্রামে গিয়ে কৃষকের কথা শুনেছেন, তাদের সঙ্গে মাটি কেটেছেন। বাংলাদেশের বিপর্যস্ত অর্থনীতির পরিবর্তন ঘটিয়েছেন।

কারাবন্দি বিএনপি চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তির জন্য বড় ধরনের আন্দোলনের প্রস্তুতি নিতে দলীয় নেতাকর্মীদের আহ্বান জানিয়ে বিএনপির এই নীতিনির্ধারক বলেন, আইনি প্রক্রিয়ায় তার মুক্তি সম্ভব নয়। আন্দোলন ছাড়া মুক্তি হবে না।

তিনি বলেন, সরকারের যে মনোভাব তাতে আন্দোলন সংগ্রাম ছাড়া বেগম খালেদা জিয়াকে মুক্ত করা সম্ভব না। বেগম জিয়াকে মুক্ত করতে হলে আমাদের ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন করতে হবে। ঐক্যবদ্ধ আন্দোলন ছাড়া বেগম জিয়াকে মুক্ত করা সম্ভব নয়।

আয়োজক সংগঠনের আহ্বায়ক ও বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুর সভাপতিত্বে ইফতার মাহফিলে বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, কৃষক দলের যুগ্ম আহ্বায়ক তকদির হোসেন মোহাম্মাদ জসিম, আলহাজ নাজিম উদ্দিন মাস্টার, জামাল উদ্দিন খান মিলন, সদস্য সচিব কৃষিবিদ হাসান জাফির তুহিন, ঢাকা মহানগরের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নাসির হায়দার, কেন্দ্রীয় সদস্য অধ্যক্ষ সেলিম হোসেন, আলীম হোসেন, মাইনুল ইসলাম, মোজাম্মেল হক মিন্টু, মিয়া মোহাম্মদ আনোয়ার, খলিলুর রহমান ইব্রাহিম, আলমগীর হোসেন, কে এম রকিবুল ইসলাম রিপন, এম জাহাঙ্গীর আলম প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

কেএইচ/এসআর/এমকেএইচ

আপনার মতামত লিখুন :