জাকের পার্টির ওরসে জনস্রোত

জাগো নিউজ ডেস্ক
জাগো নিউজ ডেস্ক জাগো নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৪:১৪ পিএম, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০

শান্তি ও কল্যাণকামী নারী-পুরুষের জনস্রোত গিয়ে মিশেছে শেরপুরের পাকুরিয়ার বিশ্বওলীর আবির্ভাব মঞ্জিলে। জাকের পার্টির প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বওলী খাজাবাবা ফরিদপুরীর প্রয়াণ দিবস উপলক্ষে প্রতি বছর এসময় আয়োজন করা হয় এ উরস শরিফের। ওরসের দ্বিতীয় দির (সোমবার) পাকুরিয়া যেন জনসমুদ্রে পরিণত হয়।

ইয়া আল্লাহু ইয়া রাহমানু ইয়া রাহিমু, ইয়া রহমাতাল্লিল আলামিন ধ্বনিতে মুখরিত পুরো ওরস প্রাঙ্গণ। ওরসের ঐতিহ্য অনুযায়ী এবারও পৃথক তাঁবুতে হিন্দু ধর্মাবলম্বীসহ অন্যান্য সম্প্রদায়ের মানুষও সৃষ্টিকর্তার আরাধনায় মগ্ন।

প্রতি বছরই বিশাল আয়োজন থাকে এ উরস শরিফে। এবারও এ আয়োজন সফল করতে ওজু, এবাদত-বন্দেগি, আহার, বিশ্রাম, নিরাপত্তা, ট্রাফিকসহ মোট ৫৮টি উপ-কমিটির কয়েক হাজার স্বেচ্ছাসেবী কাজ করছেন। সারাদেশ থেকে বিশ্ব ওলীর আবির্ভাব মঞ্জিলে কয়েক হাজার বাসে ভক্তরা একত্রিত হন।

বিশ্ব উরস শরিফের দ্বিতীয় দিন (সোমবার) জাকের পার্টির চেয়ারম্যান পীরজাদা মোস্তফা আমীর ফয়সল মুজাদ্দেদী সকালে অনুষ্ঠানের মঞ্চে আসেন। তখন উপস্থিত ভক্তদের ভালোবাসায় মুগ্ধ হন তিনি।

ওরসের দ্বিতীয় দিন নফল ইবাদত, তেলাওয়াত, মিলাদ মাহফিল, বিশেষ মোনাজাত এবং রাতের শেষভাগে আল্লাহর রহমত কামনা ও বিশ্বনবীর স্মরণে মোরাকাবা-মোশাহেদা ও ওয়াজ-নসিহত অনুষ্ঠিত হচ্ছে।

১৯ বছর আগে এদিন রাতে জাকের পার্টির প্রতিষ্ঠাতা বিশ্বওলী খাজাবাবা ফরিদপুরী ইন্তেকাল করেন। তার স্মরণে রাত ১টা ১৫ মিনিটে বিশেষ মিলাদ মাহফিল অনুষ্ঠিত হবে ওরস ময়দানে।

মঙ্গলবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) আখেরি মোনাজাতের মাধ্যমে এ ওরস শরিফ শেষ হবে।

এমএফ/এমকেএইচ