বিএনপির মিছিলে পুলিশ গুলি চালিয়েছে, দাবি রিজভীর

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৩:৫৯ পিএম, ২৬ অক্টোবর ২০২১

সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি রক্ষায় সরকারের ব্যর্থতার প্রতিবাদে বিএনপির পূর্বঘোষিত শান্তিপূর্ণ মিছিলে পুলিশ হামলা ও গুলি চালিয়েছে বলে দাবি করেছেন দলের সিনিয়র যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট রুহুল কবির রিজভী।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) দুপুরে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রিজভী অভিযোগ করে বলেন, পুলিশ মিছিল থেকে শতাধিক নেতাকর্মীকে আটক করেছে, এখনো বিভিন্ন স্থান থেকে আটকের খবর পাওয়া যাচ্ছে। আটক নেতাকর্মী হলেন- মো. শাখাওয়াত হোসেন নান্নু, মো. ফরিদ, চায়না সুমন, মো. জসিম, রেজাউল ইসলাম প্রিন্স, মো. সুমন, মো. রাসেল, মো. রাকিব, বদরুল, জুয়েল, মো. শুক্কুর, মো. মুতাছিন বিল্লাহ-ছাত্রদল নেতা, মো. জেহাদুল রঞ্জু, মো. আবু সুফিয়ান, আবু হান্নান তালুকদার, হাজী আবদুল কাইয়ুম, মো. জসিম উদ্দিন, মো. তুহিন, রাকিব, রাসেল, সালাহউদ্দিন, মহিউদ্দিন, ইমরান গাজি, যুবদল নেতা ইউনুস, ঢাকা উত্তর স্বেচ্ছাসেবক দল নেতা রুস্তুম আলী, বাবুল আহমেদ মুন্না, শাহাদাৎ হোসেন, নাসির উদ্দিন বিপ্লব, বোরহান উদ্দিনসহ শতাধিক নেতাকর্মী।

বিএনপির এ মুখপাত্র বলেন, ‘এছাড়া পুলিশের গুলি ও হামলায় গুরুতর আহত হয়েছেন বিএনপি নেতা গোলাম মাওলা শাহীন, এস এম জিলানী ও নজরুল ইসলামসহ ১৫ জনের অধিক নেতাকর্মী। পুলিশের লাঠিচার্জে আহত হয়েছেন মিজান, টুটুল, হানু মিয়া, মোস্তফা, শফিকুল আলম রুবেল, মো. আনোয়ার হোসেন (গুলিবিদ্ধ), জিয়াউল আনোয়ার, জাহিদ, স্বপন, সুফিয়ান, চন্দন, শামসুদ্দিন ভুইয়া, আব্দুর রশিদ, আমির হোসেন, সাত্তার, শামিম, যুবদল নেতা মইন, মোহন মোল্লা, জাবেদ ইকবাল, মনিরা আক্তার রিক্তা, সেলিনা সুলতানা নিশিতা, শওকত আরা উর্মি, সোনিয়ারা, নাসরিন, ওমর ফারুক কাওসার, এমদাদুল হক ভূঁইয়া, সুজন মোল্লা, মিল্লাত উদ্দিন ভূঁইয়া, আজিমুল হাসান চৌধুরী, মো. মহসিনসহ ৬০ জনের অধিক নেতাকর্মী।

গুরুতর আহতদের বিভিন্ন হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে। আমি পুলিশের এ ন্যক্কারজনক হামলা এবং নেতাকর্মীদের গ্রেফতারের ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি এবং অবিলম্বে আটকদের নিঃশর্ত মুক্তি দাবি করছি। আহত নেতাকর্মীদের আশু সুস্থতা কামনা করছি।

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির স্বেচ্ছাসেবক বিষয়ক সম্পাদক মীর সরাফৎ আলী সপু, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, বিএনপির সহ-প্রচার সম্পাদক কৃষিবিদ শামিমুর রহমান শামিম, ছাত্রদলের সভাপতি ফজলুর রহমান খোকন প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

মঙ্গলবার সারাদেশে সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদে বিএনপির উদ্যোগে নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে সম্প্রীতি মিছিলের আয়োজন করা হয়। বেলা সাড়ে ১১টার দিকে মিছিল নিয়ে বের হলে এ সংঘর্ষ হয়।

এসময় পুলিশের সঙ্গে বিএনপি নেতাকর্মীদের সংঘর্ষ হয়েছে। বিএনপি নেতাকর্মীদের পুলিশকে লক্ষ্য করে ইটপাটকেল ছুড়তে দেখা যায়। পুলিশও টিয়ারশেল নিক্ষেপ করে। এতে নয়াপল্টন এবং এর পাশের এলাকায় আতঙ্ক ছড়িয়ে পড়ে।

কেএইচ/এমএএইচ/এএসএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - jagofeature[email protected]