মালয়েশিয়ার জেম্মাহ হাসপাতালে বাংলাদেশির আর্তনাদ

আহমাদুল কবির
আহমাদুল কবির , মালয়েশিয়া প্রতিনিধি মালয়েশিয়া
প্রকাশিত: ০৬:২০ পিএম, ০৬ সেপ্টেম্বর ২০১৮

মালয়েশিয়ায় এক প্রবাসী বাংলাদেশির আর্তনাদে হাসপাতালের ওয়ার্ড ভারি হয়ে উঠেছে। প্রায় ৭ মাস ধরে সেলাঙ্গর রাজ্যের টেংকু আম্পোয়াং জেম্মাহ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন মতিয়ার (৬৫) নামের এ বাংলাদেশি।

ভাগ্য পরিবর্তন করতে স্বপ্নের দেশ মালয়েশিয়ায় পাড়ি জমিয়েছিলেন তিনি। মতিয়ারের ভাগ্যের পরিবর্তন হলো না। গত মার্চের প্রথম দিকে কাজ থেকে বাসায় ফেরার সময় জ্ঞান হারিয়ে রাস্তায় পড়ে থাকলে ওই দিনই অপরিচিত কয়েকজন লোক ক্লাং হাসপাতালে ভর্তি করেন।

কয়েকদিন চিকিৎসা দেয়ার পর তার অবস্থার অবনতি হলে ক্লাং হাসপাতাল থেকে টেংকু আম্পোয়াং জেম্মাহ হাসপাতালে স্থানান্তর করা হয়। এরপর হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ মতিয়ারের অভিভাবক খুঁজতে মালয়েশিয়াস্থ বাংলাদেশ হাইকমিশনে যোগাযোগ করলে সেখানে ছুটে যান হাইকমিশনের কল্যাণ সহকারী মো. মুকসেদ আলী।

মুকসেদ আলী এ প্রতিবেদককে জানান, নিজের নাম মতিয়ার, পিতা সামসুর রাহমান, জেলা পাবনা বলেছেন। আবার বলছেন তার বাড়ি কুমিল্লা। মতিয়ার আর কিছু বলতে পারছেন না। সঠিক ঠিকানা না পেলে তার পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা সম্ভব হচ্ছে না।

Maleshia2

জীবনের শেষ সময়ে এসে মতিয়ার মালয়েশিয়ার জেম্মাহ হাসপাতালের ৪১ নম্বর বেডে পড়ে রয়েছেন দীর্ঘদিন ধরে।

কিন্তু মতিয়ার কথা বলতে না পারলেও কেউ কথা বললে আঁচ করতে পারেন। হাইকমিশনের এ কর্মকর্তাকে দেখে হাউমাউ করে কাঁদতে থাকেন। তার কাছে কোন কাগজপত্র নেই বলেও মুকসেদ আলী জানান।

এ বিষয়ে দূতাবাসের শ্রম শাখার ২য় সচিব মো. ফরিদ আহমদের সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে তিনি এ প্রতিবেদককে জানান, মতিয়ারের সঠিক ঠিকানা পেলে এবং সে প্রকৃত বাংলাদেশি নাগরিক কিনা যাচাই করা হচ্ছে। নাগরিকত্ব নিশ্চিত সাপেক্ষে বাংলাদেশে প্রেরণ করা যাবে।

মতিয়ারের আত্মীয়-স্বজন চিহ্নিত করে হাইকমিশনের কল্যাণ সহকারীর (+৬০১২৩৬৫৬৫৪০) এই নম্বরে জানানোর জন্য বিশেষভাবে অনুরোধ জানিয়েছেন এ কর্মকর্তা।

এমআরএম/পিআর

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :