প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া হবে

ক ম জামাল উদ্দীন ক ম জামাল উদ্দীন , সৌদি আরব
প্রকাশিত: ০৪:১৪ এএম, ২১ আগস্ট ২০১৯

বাংলাদেশের প্রায় এক কোটি নাগরিক বিশ্বের ১৬০টি দেশে অবস্থান করছে। প্রবাসীদের অনেকের নেই কোনো ন্যাশনাল আইডি কার্ড। দেশের অর্থনীতির অন্যতম চালিকাশক্তি গোল্ডেনবয় হিসেবে পরিচিত এই প্রবাসীদের নিজ দেশেই পরবাসী হয়ে থাকতে হচ্ছে।

২০ আগস্ট বাংলাদেশ কনসাল জেনারেল আয়োজিত সৌদি আরব প্রবাসী বাংলাদেশিদের এনআইডি (জাতীয় পরিচয়পত্র) প্রদান বিষয়ক আলোচনা সভায় প্রধান নির্বাচন কমিশনার কে এম নুরুল হুদা এসব বলেন।

তিনি বলেন, বাংলাদেশের প্রায় এক কোটির বেশি নাগরিক বিশ্বের ১৬০টি দেশে অবস্থান করছে। প্রবাসীদের অনেকের ন্যাশনাল আইডি কার্ড বা ভোটাধিকার নাই। প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র খুব জরুরি। বাংলাদেশের প্রত্যেক ক্ষেত্রে এখন এনআইডি কার্ড ছাড়া কোনো কাজ করা সম্ভব নয়।

নুরুল হুদা বলেন, অনলাইনের মাধ্যমে ফরম পূরণ করে কনস্যুলেট অফিস বা দূতাবাস জমা দিতে হবে।

তিনি আরও যোগ করেন, দূতাবাস বাংলাদেশে তাদের স্থায়ী ঠিকানা অনুযায়ী জেলাভিত্তিক প্রাথমিক তালিকা প্রস্তুত করে পাঠাবে ইসির কাছে। ইসি জেলা নির্বাচন কর্মকর্তার মাধ্যমে তা যাচাই-বাছাই করবে। প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয়পত্র দেওয়া হবে।

southeast

এ কে এম হুদা আরও বলেন, প্রবাসী ও কমিউনিটির নেতাদের খেয়াল রাখতে হবে যাতে করে রোহিঙ্গা বা অন্য কোন গোষ্ঠী যেন এই সুবিধা গ্রহণ করতে না পারে।

সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে নুরুল হুদা বলেন, কয়েকটি দেশের দূতাবাসে পাসপোর্ট করার ব্যবস্থা রয়েছে। কিন্তু একই কায়দায় জাতীয় পরিচয়পত্র দেয়া কঠিন। পাসপোর্ট ডাটা বেইজের সাথে নির্বাচন কমিশনের ডাটা বেইজ এক নয় তাই পাসপোর্ট ডাঁটা বেইজ দিয়ে এনআইডি কার্ড দেওয়া খুব কঠিন বলে মনে করেন তিনি।

খুব শিগগিরই প্রবাসীদের জাতীয় পরিচয় পত্র প্রদান করা হবে সেই লক্ষ্যে দূতাবাস ও কনস্যুলেট জেনারেল কার্যালয়গুলোতে এ বিষয়ে বিশেষ ডেস্ক স্থাপন করা হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

জেদ্দাস্থ বাংলাদেশ কনস্যুলেটের কনসাল জেনারেল এফএম বোরহান উদ্দিনের সভাপতিত্বে আরও উপস্থিত ছিলেন- প্রধান নির্বাচন কমিশনারের সহধর্মিণী হুদা, রিয়াদ দূতাবাসের দুইজন কর্মকর্তা, জেদ্দা কনস্যুলেট কর্মকর্তা, প্রবাসী কমিউনিটির নেতারা ও বিভিন্ন গণমাধ্যমের প্রতিনিধিরা

এমআরএম

প্রবাস জীবনের অভিজ্ঞতা, ভ্রমণ, গল্প-আড্ডা, আনন্দ-বেদনা, অনুভূতি, স্বদেশের স্মৃতিচারণ, রাজনৈতিক ও সাংস্কৃতিক লেখা পাঠাতে পারেন। ছবিসহ লেখা পাঠানোর ঠিকানা - [email protected]