খায়বার বিজয়ের ঘোষণা এসেছিল যেভাবে

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০১:৪২ পিএম, ১৯ ডিসেম্বর ২০১৮

প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহ আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন বদর যুদ্ধে বিজয় লাভের পর মদিনায় ফিরে যান, তখন অবিশ্বাসী ইয়াহুদি সম্প্রদায়কে ইসলাম গ্রহণের আহ্বান জানান। ইসলাম গ্রহণের সে আহ্বানের প্রেক্ষিতে ইয়াহুদি সম্প্রদায় প্রিয়নবিকে বলেছিলেন, আপনি বদর যুদ্ধে অনভিজ্ঞদের সঙ্গে বিজয় লাভ করেছেন। কয়েকজন কুরাইশিকে হত্যা করে অহংকার করবেন না। আমাদের সঙ্গে যুদ্ধ করলে উপলব্দি করতে পারবেন যে, যুদ্ধে আমরা কতটা অদ্বিতীয়।

অবিশ্বাসী ইয়াহুদি সম্প্রদায়ের এ জবাবের প্রেক্ষিতে আল্লাহ তাআলা প্রিয়নবিকে খায়বার যুদ্ধে বিজয়ের সুসংবাদ প্রদান করে। যে যুদ্ধে অবিশ্বাসী ইয়াহুদি সম্প্রদায়ের অবস্থা বদরের কুরাইশদের মতো হয়েছিল। অবিশ্বাসীদের শেষ আবসস্থল নিকৃষ্ট জাহান্নামের ঘোষণাও এসেছে এ আয়াতে। আল্লাহ তাআলা ঘোষণা করেন-
Quran-1
আয়াতের অনুবাদ
Quran-2

আয়াতের পরিচয় ও নাজিলের কারণ
সুরা আল-ইমরানের ১২নং আয়াতে আল্লাহ তাআলা মদিনার ইয়াহুদি সম্প্রদায়কে ইসলামের আহ্বান জানানোর ফলে তাদের দাম্ভিক আচরণ ও জবাবে আল্লাহ তাআলা তখন মুসলিমদেরকে খায়বার বিজয়ের সুসংবাদ দেন। প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম সে সুসংবাদের ঘোষণার পাশাপাশি অবিশ্বাসীদেরকে জাহান্নামে সমবেত করার কথাও উল্লেখ করেন। যা বাসস্থান হিসেবে খুই নিকৃষ্ট। বিভিন্ন তাফসিরে আয়াতের ব্যাখ্যায় এসেছে-

হজরত আব্দুল্লাহ ইবনে আব্বাস রাদিয়াল্লাহু আনহু বলেছেন, ‘প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যখন বদরের যুদ্ধে বিজয় লাভ করে মদিনায় ফিরে আসেন তখণ তিনি বনি কিনকার বাজারে অবিশ্বাসী ইয়াহুদি সম্প্রদায়কে একত্রিত করে ইরশাদ করেন, ‘হে ইয়াহুদি সম্প্রদায়! বদর যুদ্ধে কুরাইশদেরযে পরিণতি হয়েছে সে পরিণতি দেখার আগেই তোমরা ইসলাম কবুল গ্রহণ কর। তখন ইয়াহুদিরা (প্রিয়নবির আহ্বানের) জবাব দিল যে, হে মুহাম্মাদ! (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম) কয়েকজন কুরাইশিকে হত্যা করে অহংকার করবেন না, কেননা তারা ছিল অনভিজ্ঞ, যুদ্ধ সম্পর্কে অজ্ঞ। যখন আমাদের সঙ্গে যুদ্ধ করবেন তখন উপলব্দি করবেন যে আমরা যুদ্ধে অদ্বিতীয়; তখন আল্লাহ তাআলা ইয়াহুদিদের প্রতি ভবিষ্যদ্বাণী করে এ আয়াত নাজিল করেন।’ (তাফসিরে মাজহারি, রুহুল মাআনি, কাবির)

আরও পড়ুন > যে কারণে মানুষ কঠোর শাস্তি ভোগ করবে

ইমাম আল্লামা ফখরুদ্দিন রাজি রহমাতুল্লাহি আলাইহি এ আয়াতের ব্যাখ্যায় বলেন, ‘মদিনাবাসী ইয়াহুদিরা যখন বদরের যুদ্ধে মুসলমানদের বিজয় প্রত্যক্ষ করলো তখন তারা বলল, আল্লাহর শপথ ইনিই সেই নবি, যাঁর সম্পর্কে হজরত মুসা আলাইহিস সালাম তাওরাতে সুসংবাদ দিয়েছেন। কিন্তু যখন তারা ওহুদের যুদ্ধে মুসলমানদের সাময়িক পরাজয় দেখলো তখন তারা বলল না ইনি সেই নবি নন। এভাবে তাদের দুর্ভাগ্য প্রামাণিত হলো এবং তারা ইসলাম কবুল করা থেকে বঞ্চিত হলো। তখন তাদের উদ্দেশ্যে আল্লাহ তাআলা এ আয়াত নাজিল করেন।’ (তাফসিরে কাবির)

যারা ইসলাম ও মুসলমান বিরোধী সম্প্রদায়! তাদের জন্য এ আয়াতে রয়েছে অনেক গুরুত্বপূর্ণ শিক্ষা। প্রথম ইসলাম গ্রহণের আহ্বান ও দ্বিতীয় ইসলাম গ্রহণের আহ্বান প্রত্যাখ্যান করলে তাদের জন্য রয়েছে পরাজয় এবং জাহান্নামের কঠোর শাস্তি।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে উল্লেখিত আয়াত থেকে শিক্ষা গ্রহণ করে ইসলাম ও কুরআনের অবিশ্বাস থেকে নিজেদের বিরত রাখার তাওফিক দান করুন। কুরআনের বিধান অনুযায়ী জীবন পরিচালনার তাওফিক দান করুন। পরকালে সফলতা লাভের তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]