খুলে দেয়া হলো হজরত হাবিলের সমাধি সৌধ ও মসজিদ

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০২:৫৮ পিএম, ০৯ জানুয়ারি ২০১৯

হজরত হাবিল ছিলেন হজরত আদম ও হাওয়া আলাইহিস সালামের সন্তান। তাঁকে তার ভাই কাবিল হত্যা করেছিল। ১৬ শতাব্দীর শেষ দিকে দামেস্কের ৫০ কিলোমিটার দূরে কাসিউম পাহাড়ে তার সমাধি সৌধ ও একটি মসজিদ নির্মাণ করা হয়। সিরিয়ায় যুদ্ধ শুরু হওয়ায় সেখানে মানুষের আসা-যাওয়া বন্ধ করে দেয়া হয়।

অবশেষে দুনিয়ার প্রথম মানুষ হজরত আদম ও হাওয়া আলাইহিস সালামের সন্তান হজরত হাবিলের সমাধি সৌধ ও মসজিদ গত ৭ জানুয়ারি থেকে পুনরায় দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হয়েছে।

এ সমাধি সৌধের পাশে দর্শনার্থীদের ইবাদতের জন্য নির্মাণ করা হয়েছে বিশাল মসজিদ। যা যুদ্ধের কারণে অনেক দিন বন্ধ ছিল। এটি সিরিয়ার রাজধানী দামেস্কের কাসিউম পাহাড়ের চূড়ায় অবস্থিত।

উল্লেখ্য যে, হজরত হাবিল তার ভাই কাবিলের আক্রমণের স্বীকার হয়ে ইন্তেকাল করেন। তাফসিরে এসেছে, ‘মহান আল্লাহর নির্দেশে হজরত হাবিল আদম আলাইহিস সালামের প্রতিনিধি নির্বাচিত হন। আর কাবিল ছিলেন হজরত হাবিলের বড়। আল্লাহর প্রতিনিধি নির্বাচিত হওয়ার বিষয়টি কাবিল মেনে নিতে পারেননি। এতে কাবিল আপত্তি করেন।

কাবিলের আপত্তির ফলে হজরত আদম আলাইহিস সালাম তার দুই সন্তান হজরত হাবিল ও কাবিলকে আল্লাহর জন্য কুরবানি করতে বলেন। আর যার কুরবানি কবুল হবে সে হবে হজরত আদমের পর আল্লাহর প্রতিনিধি। অতঃপর তারা কুরবানি করল।

এতে হজরত হাবিলের কুরবানি আল্লাহর দরবারে কবুল হয়। কাবিলের কুরবানি কবুল হয়নি। আল্লাহ তাআলা হজরত হাবিলের নিঃস্বার্থ নিয়তের জন্য তার কুরবানি কবুল করলেন। ফলে কাবিল হজরত হাবিলের ওপর ঈর্ষান্বিত হয়ে তাকে হত্যা করেন।

হজরত হাবিলের এ সমাধি সৌধটি বর্তমান সিররিয়ার রাজধানী দামেস্কে অবস্থিত। যেটি সিরিয়া চলমান যুদ্ধের কারণে দীর্ঘ দিন বন্ধ থাকার পর সমাধি সৌধ ও ইবাদতখানা মসজিদ দর্শনার্থীদের জন্য খুলে দেয়া হয়।

এমএমএস/এমকেএইচ