মৃত্যুর ভয়ে ইসলাম গ্রহণ করেননি সেনাপতি হরমুজান

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১১:৪৮ এএম, ১৯ জানুয়ারি ২০১৯

আমিরুল মুমিনিন হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহুর খেলাফতের সময়ের ঘটনা। পারস্য সেনাপতি হরমুজান। মুসলমানের হাতে বন্দি। মুক্তির একমাত্র পথ ইসলাম গ্রহণ নতুবা নিশ্চিত মৃত্যুদণ্ড। অথচ হত্যার নির্দেশনা আসার পরও ইসলাম গ্রহণ করেননি পারস্য সেনাপতি হরমুজান। প্রবল জ্ঞানের অধিকারী হরমুজান পরবর্তীতে ইসলাম গ্রহণ করেন।

প্রবল জ্ঞানের অধিকারী বন্দি হরমুজানের ইসলাম গ্রহণের চমৎকার সে ঘটনা তুলে ধরা হলো-

ইরানের সেনাপতি হরমুজানকে বন্দি করে হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু দরবারে নিয়ে আসা হল। হজরত ওমর রাদিয়ল্লাহু আনহু তাকে ইসলাম গ্রহণের আহ্বান করলেন। সেনাপতি হরমুজান তাঁর এ আহ্বান প্রত্যাখ্যান করলেন।

হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু ইরানি সেনাপতিকে হত্যার নির্দেশ দিলেন। কেননা সেনাপতি হরমুজান ইসলামের অনেক ক্ষতি করেছিল।

সেনাপতি হরমুজানকে হত্যার সব প্রস্তুতি সম্পন্ন। এ সময় সেনাপতি হরমুজান হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহুকে লক্ষ্য করে বললেন, আমি পিপাসার্ত। হত্যার আগে আমাকে পানি পানের সুযোগ দেয়া সম্ভব হবে কি?

সেনাপতি হরমুজানকে পানি পান করানোর নির্দেশ দেয়া হল।

এবার সেনাপতি হরমুজান পানির পাত্র হাতে নিয়ে হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহুর দিকে তাকিয়ে জিজ্ঞাস করলেন, ‘আমি এ পানি পান সম্পন্ন করা পর্যন্ত কি নিরাপদ?

সেনাপতি হরমুজানকে জানানো হলো, ‘হ্যাঁ’, পানি পান শেষ না হওয়া পর্যন্ত তাকে হত্যা করা হবে না। এ কথা শোনার সঙ্গে সঙ্গেই সেনাপতি হরমুজান তার হাতে পানি নিচে ফেলে দিয়ে তা নষ্ট করে বললেন, হে আমিরুল মুমিনিন! দেখুন আপনি ওয়াদা করেছেন, পানি পান শেষ না করা পর্যন্ত আমাকে হত্যা করবেন না। এখন আপনার ওয়াদা পূরণ করুন।

আরও পড়ুন > মোহাম্মদ আলি : যে কারণে ইসলাম গ্রহণ করেন

হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বললেন, ‘আপতত তোমাকে হত্যা করা হবে না। তুমি হত্যা থেকে মুক্ত। পরে তোমার ব্যাপারে চিন্তা-ভাবনা করা হবে। তারপর জল্লাদকে বলা হলো, তলোয়ার ওঠিয়ে নাও।

তখনই সেনাপতি হরমুজান উচ্চস্বরে তাওহিদ ও রেসালাতের ঘোষণা দিয়ে বলে ওঠলো-
أَشْهَدُ أَنّ لَّا إِلَٰهَ إِلَّإ الله وأَشْهَدُ ان مُحَمَّداً رَّسُوْلُ الله
অর্থ : আমি সাক্ষ্য দিচ্ছি যে, আল্লাহ ছাড়া কোনো সত্য উপাস্য নেই। নিশ্চয়ই মুহাম্মাদ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম আল্লাহর রাসুল।

এবার হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু জানতে চেয়ে বললেন-
(সেনাপতি হরমুজান) ইসলাম গ্রহণ করেছ, কল্যাণের কাজ করেছ। কিন্তু বলতো, যখন আমি তোমাকে ইসলামের দাওয়াত পেশ করলাম, তখন তুমি ইসলাম গ্রহণ করলে না কেন?

সেনাপতি হরমুজান প্রতিউত্তরে জানান, তখন আমার এ ভয় হচ্ছিল যে এখন যদি আমি ইসলাম গ্রহণ করি; তখন আমার ব্যাপারে বলা হবে, আমি মৃত্যুর ভয়ে ইসলাম গ্রহণ করেছি।

সেনাপতি হরমুজানের কথা শুনে হজরত ওমর রাদিয়াল্লাহু আনহু বলে ওঠলেন-
عُقُولُ فَارِسَ تَازِنُ الْجِبَال‬‎
অর্থ : পারস্যবাসীদের জ্ঞান পাহাড় সমতুল্য। তারা জ্ঞানেও অতি উচ্চমানের। পাহাড় সমান জ্ঞানে অধিকারী তারা।

সেনাপতি হরমুজানের ইসলাম গ্রহণও ছিল প্রখর জ্ঞানেরই বহিঃপ্রকাশ। সুতরাং বুঝা গেল, জ্ঞানই মানুষকে সঠিক পথে পরিচালিত করতে সহায়ক ভূমিকা পালন করতে পারে।

এমএমএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :