মুনাফিকরা কি নিজেদের মৃত্যু ঠেকাতে পারবে?

ইসলাম ডেস্ক
ইসলাম ডেস্ক ইসলাম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৪২ পিএম, ৩০ নভেম্বর ২০২২

একদল মুনাফিক আব্দুল্লাহ ইবনে উবাইয়ের নেতৃত্বে ওহুদের যুদ্ধ থেকে নিজেদের সরিয়ে নেয়। পাশাপাশি তারা অন্যদেরও যুদ্ধে অংশগ্রহণ থেকে বিরত থেকে তাদের অনুসরণ করতে উদ্বুদ্ধ করে। তাদের সে কথাও আল্লাহ তাআলা কোরআনে তুলে ধরেন। এবং তাদের নিজেদের মৃত্যু ঠেকাতে চ্যালেঞ্জ ছুড়ে দেন। যা কখনোই সম্ভব নয়। আল্লাহ তাআলা বলেন-

اَلَّذِیۡنَ قَالُوۡا لِاِخۡوَانِهِمۡ وَ قَعَدُوۡا لَوۡ اَطَاعُوۡنَا مَا قُتِلُوۡا ؕ قُلۡ فَادۡرَءُوۡا عَنۡ اَنۡفُسِکُمُ الۡمَوۡتَ اِنۡ کُنۡتُمۡ صٰدِقِیۡنَ

যারা ঘরে বসে রইল এবং তাদের ভাইদের প্রতি বলল যে, তারা তাদের কথামত চললে নিহত হত না। তাদেরকে বলুন, যদি তোমরা সত্যবাদী হও তবে নিজেদের মৃত্যু থেকে রক্ষা কর।’ (সুরা আল-ইমরান : আয়াত ১৬৮)

আয়াতের সারসংক্ষেপ

এরা এমন সব লোক যারা নিজে তো জেহাদে অংশগ্রহণ করেইনি, আবার ঘরে বসে বসে নিজেদের গোত্রীয় ভাইদের সম্পর্কে (যারা শহিদ হয়েছে) বলাবলি করে যে, এরা যদি আমাদের কথা মানতো অর্থাৎ আমাদের নিষেধ করা সত্বেও যুদ্ধে অংশগ্রহণ না করতো, তবে খামাখা নিহত হতো না।

(হে রাসুল!) আপনি বলে দিন যে, তাই যদি হবে, নিজেদের ওপর থেকে মৃত্যুকে ফিরিয়ে রাখ। যদি তোমরা এ ধারণায় সত্য হয়ে থাকো যে, মাঠে গেলেই মৃত্যু ঘটে। কারণ হত্যা থেকে আত্মরক্ষার উদ্দেশ্য তো মৃত্যু থেকেই বাঁচা। কিন্তু নির্ধারিত সময় যখন হয়ে যাবে, তখন বসে বসেও মৃত্যু এসে যায়। কাজেই সময় এসে গেলে নিহত হওয়ার ব্যাপার খণ্ডিত হতে পারে না।

মুনাফিকদের কথার প্রতিবাদ

এখানে মুনাফিকদের কথা ‘তারা আমাদের কথা মত চললে নিহত হতো না’ এর প্রতিবাদ করে মহান আল্লাহ বলছেন, ‘যদি তোমরা তোমাদের কথায় সত্যবাদী হও, তাহলে নিজেদের উপর থেকে মৃত্যুকে সরিয়ে দাও তো দেখি।’ অর্থাৎ, আল্লাহ কর্তৃক নির্ধারিত ভাগ্য থেকে পালানোর কোনো উপায় নেই। মৃত্যুও যেখানে এবং যেভাবে নির্ধারিত আছে, সেখানে এবং সেইভাবেই আসবে। সুতরাং আল্লাহর রাস্তায় জিহাদ হতে পলায়ন কাউকে মৃত্যুর হাত থেকে রক্ষা করতে পারবে না। (আহসানুল বয়ান)

আল্লাহ তাআলা এ আয়াত নাজিল করে মুনাফিকদের প্রতি চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিলেন, যদি তোমরা পার তবে নিজেদের মৃত্যু ঠেকাও। এ আয়াতেও মুনাফিকদের কুমনোভোব ফুটে ওঠেছে। আর তারাই মুনাফিক।

এমএমএস/জিকেএস

পাঠকপ্রিয় অনলাইন নিউজ পোর্টাল জাগোনিউজ২৪.কমে লিখতে পারেন আপনিও। লেখার বিষয় ফিচার, ভ্রমণ, লাইফস্টাইল, ক্যারিয়ার, তথ্যপ্রযুক্তি, কৃষি ও প্রকৃতি। আজই আপনার লেখাটি পাঠিয়ে দিন [email protected] ঠিকানায়।