সবর অবলম্বনের উপকারিতা


প্রকাশিত: ০৭:০১ এএম, ১৪ ডিসেম্বর ২০১৬

আল্লাহ তাআলা মানুষকে বিভিন্ন উপকার এবং ক্ষতি মধ্যে ফেলে পরীক্ষা করে থাকেন। কুরআন ও হাদিসে উপকারি কাজের নির্দেশের পাশাপাশি ক্ষতিমূলক কাজ থেকে বেঁচে থাকতে বিধি-নিষেধ রয়েছে। কুরআন-সুন্নাহর নির্দেশ মোতাবেক প্রতিটি কাজে সবর অবলম্বন জরুরি। কারণ সবরের রয়েছে অনেক উপকারিতা। সংক্ষেপে তা তুলে ধরা হলো-

সবরের উপকারিতা
১. কোনো কাজে সবর বা ধৈর্য ধারণ করলে কাজের শেষে খুশী ও আনন্দ লাভ হয়।
২. সবরকারী বা ধৈর্যধারণকারী ব্যক্তি প্রত্যেকের নিকট সম্মান ও প্রশংসার ব্যক্তিতে পরিণত হয়। সবাই ধৈর্যধারণকারী ব্যক্তির প্রশংসা করে।
৩. সবরকারী ব্যক্তি তাঁর ধৈর্যধারণর কারণে আল্লাহ তাআলার পক্ষ থেকে দুনিয়ার কল্যাণ লাভ করেন এবং পরকালের ধৈর্যের উত্তম বিনিময় লাভ করবেন।

পরিশেষে...
আল্লাহর নির্দেশ অনুসারে প্রত্যেক মানুষের উচিত সবর অবলম্বন করা। এ কারণে ইসলামি চিন্তাবিদগণ বলেছেন, ‘সবর বা ধৈর্যের প্রাথমিক অবস্থা অত্যন্ত তিক্ত হলেও তাঁর ফলাফল হয় অনেক সুখ ও শান্তিময়।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দুনিয়ার সব কাজে ধৈর্যের পরিচয় দেয়ার তাওফিক দান করুন। ইবাদত-বন্দেগিসহ সব কল্যাণের কাজে তাড়াহুড়া করা থেকে বিরত থাকার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :