তারাবিহ নামাজের নিয়ত ও দোয়া


প্রকাশিত: ০৩:৩৩ এএম, ২৪ মে ২০১৭

রমজানের রোজা পালন উপলক্ষে শাবান মাসের শেষ দিন ইশার নামাজের পর ২ রাকাআত করে প্রতি ৪ রাকাআত পর পর মুসলিম বসে কিছুক্ষণ বিরতি নেয়। আর এ সময় একটি দোয়া পড়া হয়। ৪ রাকাআতের পর দোয়া, ইসতেগফার, তাসবিহ-তাহলিল পড়ার মাধ্যমে রাত জাগরণ করাই মুমিন বান্দার কাজ।

তারাবিহ নামাজের ৪ রাকআত পর পর বহুল প্রচলিত একটি দোয়া আছে। যা তুলে ধরা হলো-

Doa

উচ্চারণ: সুবহানাযিল মুলকি ওয়াল মালাকুতি, সুব্হানাযিল ই’যযাতি ওয়াল আ’জমাতি, ওয়াল হায়বাতি, ওয়াল কুদরাতি, ওয়াল কিবরিয়াই, ওয়াল যাবারুত। সুবহানাল মালিকিল হাইয়্যিল্লাজি লা-ইয়ানামু ওয়ালা ইয়ামুতু। সুব্বুহুন কুদ্দুছুন রাব্বুনা ওয়া রাব্বুল মালাইকাতি ওয়ার রূহ।
Vision

তারাবিহ নামাজের নিয়ত-

তারাবিহ নামাজ আদায় করা সুন্নাতে মুয়াক্কাদা। দুই দুই রাকাআত করে তা পড়া যায়; আবার এক সঙ্গে ৪ রাকাআতও পড়া যায়। যেহেতু তারাবিহ নামাজ লম্বা ক্বেরাতে পড়া উত্তম। তাই দুই দুই রাকআত করে ধীর স্থিরভাবে পড়াই উত্তম।

তারাবিহ নামাজ আদায়ের সময় আরবি এবং বাংলায় নিয়ত করলেও হবে। আরবি নিয়ত-

Doa

উচ্চারণ : নাওয়াইতু আন উসাল্লিয়া লিল্লাহি তাআলা, রাকাআতাই সালাতিত তারাবিহ সুন্নাতু রাসুলিল্লাহি তাআলা, (ইক্বতাদাইতু বিহাজাল ইমাম) মুতাওয়াঝঝিহান ইলা ঝিহাতিল কাবাতিশ শারিফাতি, আল্লাহু আকবার। (ইমামের পিছনে নামাজ পড়লে বন্ধনীর অংশটুকুসহ পড়তে হবে)

বাংলায় নিয়ত
তারাবির নামাজের দুই রাকাআত সুন্নাত নামাজ (এ ইমামের সঙ্গে) কিবলামুখী হয়ে আল্লাহ তাআলার জন্য আদায় করার নিয়ত করছি। আল্লাহু আকবার।

পরিশেষে...
তারাবিহ নামাজ দুই দুই রাকাআত করে আদায় করে প্রত্যেক ৪ রাকাআত পর পর কিছুক্ষণ বিরতি দিয়ে তাসবিহ-তাহলিল, ইসতেগফার অথবা উল্লেখিত দোয়া পড়া। রাত জেগে আল্লাহ নৈকট্য অর্জনে রোনাজারি ও কান্নাকাটি করা।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তারাবিহ নামাজ ধীরস্থিরভাবে লম্বা ক্বেরাতে আদায় করার তাওফিক দান করুন। তাঁর ক্ষমা ও দয়া লাভ করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :