আল্লাহ যেভাবে বান্দাকে কাজের প্রতিদান দেন

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:০৬ এএম, ০৯ সেপ্টেম্বর ২০১৭

আল্লাহ তাআলা কুরআনুল কারিমে ঘোষণা করেন, ‘আল্লাহ কাউকে তার সাধ্যের বাইরে দায়িত্ব অর্পন করেন না। যে ভাল উপার্জন (কাজ) করবে, সে তার প্রতিদান পাবে; এবং যে মন্দ উপার্জন (কাজ) করবে, সে তার প্রতিফল পাবে।’ (সুরা বাকারা : আয়াত ২৮৬)

প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের ভাষায় দুনিয়া হলো পরকালের শষ্য ক্ষেত্র। যারা দুনিয়াতে ভাল কাজ করবে তারা সফলকাম। আর যারা মন্দ কাজ করবে তারা পরকালে ব্যর্থ।

মানুষের দুনিয়ার শষ্য ক্ষেত্রের হিসাব-নিকাশের পর প্রতিদান প্রদানের জন্য রয়েছে আল্লাহ প্রদত্ত সুব্যবস্থা। কিন্তু আল্লাহ তাআলা মানুষের হিসাব গ্রহণে সাওয়াব ও গোনাহ লেখার যে পদ্ধতি গ্রহণ করেছেন; প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তা হাদিসে কুদসিতে সুস্পষ্ট ভাষায় বর্ণনা করেছেন। যা তুলে ধরা হলো-
>> হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ (রেকর্ড সংরক্ষণকারী ফেরেশতাদের) বলেন, আমার বান্দা যখন কোনো পাপ করার ইচ্ছা করে, তখন তোমরা তা লেখা থেকে বিরত থাক; যতক্ষণ না সে তা করে।
যদি সে তা (পাপ কাজ) করে; (তবে পাপ কাজের) সমান পাপ লেখ। আর যদি সে তা (পাপ কাজ) আমার কারণে ত্যাগ করে, তাহলে তার জন্য তা নেকি হিসেবে লেখ।
আর যদি সে নেকি করার ইচ্ছা করে কিন্তু সে তা (বাস্তবে) করেনি, তবে তার জন্য তা নেকি হিসেবে লেখ।
অতঃপর যদি সে তা (ভাল কাজ) করে তাহলে তার জন্য তা দশগুণ থেকে সাতশো গুণ পর্যন্ত লেখ।’ (বুখারি ও মুসলিম)

>> হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু থেকে বর্ণিত, রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ‘আল্লাহ তাআলা বলেন, আমার বান্দা যখন নেকি করার ইচ্ছা করে আমি তার জন্য একটি নেকি লেখি যতক্ষণ সে না করে; যখনই সে (ভাল কাজ) করে, আমি তার দশগুণ (নেকি) লেখি।
আর যখন সে পাপ করার ইচ্ছা করে (তখন) আমি তার জন্য তা ক্ষমা করি যতক্ষণ না সে তা (কাজে বাস্তবায়ন) না করে। অতঃপর যখন সে তা করে তখন আমি তার সমান (গোনাহ) লেখি।’
রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘ফেরেশতারা বলে, হে আমার রব! আপনার এ বান্দা পাপ করার ইচ্ছা করে, -যদিও আল্লাহ তাকে বেশি জানেন;
তিনি বলেন, তাকে পর্যবেক্ষণ কর! যদি সে (পাপ/অন্যায়) করে তার জন্য সমান পাপ লেখ; আর যদি সে তা (পাপ বা অন্যায়) ত্যাগ করে তার জন্য তা নেকি লেখ; কারণ আমার জন্যই সে তা ত্যাগ করেছে। (মুসলিম)

আল্লাহ তাআলা উম্মতে মুসলিমাকে সব সময় ভাল কাজ করার তাওফিক দান করুন। অন্তরে ভাল কাজ করার মানসিকতা পোষণ করার তাওফিক দান করুন। দুনিয়ার যাবতীয় অন্যায় কাজ থেকে হেফাজত করুন। আমিন।

এমএমএস/জেআইএম