হজের ঐতিহাসিক খুতবা দেবেন শায়খ ড. মুহাম্মদ বিন হাসান

ধর্ম ডেস্ক
ধর্ম ডেস্ক ধর্ম ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৮:৪১ এএম, ১০ আগস্ট ২০১৯

এ বছর (১৪৪০ হিজরি) পবিত্র হজের ঐতিহাসিক খুতবা প্রদানের জন্য মনোনীত হয়েছেন নতুন খতিব শায়খ ড. মুহাম্মদ বিন হাসান আলে আশ-শায়খ।

সৌদি আরবের রাষ্ট্রীয় বার্তা সংস্থা সূত্রে জানা যায়, দুই পবিত্র মসজিদের খাদেম সৌদি আরবের বাদশাহ সালমান বিন আব্দুল আজিজ আল-সৌদ এক রাজকীয় ফরমান জারির মাধ্যমে এ বছর আরাফাতের ময়দানে খতিব হিসেবে শায়খ ড. মুহাম্মদ বিন হাসান আলে আশ-শায়খকে নিয়োগ প্রদান করেন।

আজ হজ পালনকারীদের উদ্দেশে ঐতিহাসিক আরাফা প্রান্তরের মসজিদে নামিরা থেকে হজের খুতবা প্রদান করবেন তিনি। ১৪৩৯ হিজরি তথা গত বছর তিনি মদিনার মসজিদে নববির সার্বিক দায়িত্ব পালন করেন।

ড. মুহাম্মদ বিন হুসাইন পড়ালেখা শেষে সৌদি আরবের রিয়াদের মুহাম্মদ বিন সাল ইসলামিক বিশ্ববিদ্যালয়ের ইসলামি শরিয়া বিভাগের যোগদান করেন।

বর্তমানে তিনি সৌদি আরবের সর্বোচ্চ উলামা বোর্ডের সদস্য এবং খাদেমুল হারামাইন আশ-শরিফাইনের হাদিস কমপ্লেক্সের প্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালন করছেন।

হজের ঐতিহাসিক খুতবায় মুসলিম উম্মাহর দুনিয়া ও পরকালীন জীবনের কল্যাণ ও দিক-নির্দেশনা ওঠে আসবে। মুসলিম বিশ্বের চলমান সংকট ও উত্তরণের উপায় সম্পর্কেও গুরুত্বপূর্ণ বয়ান পেশ করা হবে। বিশ্বের বিভিন্ন প্রসঙ্গের পাশাপাশি ধর্মীয় বিভিন্ন বিধি বিধানের আলোচনা থাকবে হজের খুতবায়।

দুনিয়া ও আখিরাতের কল্যাণ, রহমত প্রাপ্তি ও নিজেদের গোনাহ মাফের জন্য আল্লাহ তাআলার দরবারে অশ্রুসিক্ত নয়নে ফরিয়াদ জানাবেন নতুন খতিব ড. মুহাম্মদ বিন হাসান। তার সঙ্গে সমবেত কণ্ঠে আমিন আমিন ধ্বনিতে আরাফাতের ময়দান মুখরিত করে তুলবে ধর্মপ্রাণ মুসলমান। বিশ্ব ভ্রাতৃত্বের এক অনুপম দৃশ্যের অবতারণা হবে আজ আরাফাতের ময়দানে।

প্রিয়নবি সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম যে স্থানে দাঁড়িয়ে ঐতিহাসিক বিদায় হজের ভাষণ দিয়েছিলেন, ঠিক সেই স্থানেই নির্মিত হয়েছে মসজিদে নামিরা। আর এ মসজিদে নামিরা থেকেই হজের খুতবা প্রদান করবেন হজের নতুন খতিব।

আরাফাতের ময়দানে মসজিদে নামিরাহ থেকে দেয়া ড. মুহাম্মদ বিন হাসানের হজের এ খুতবা সারা বিশ্বের অসংখ্য সরকারী-বেসরকারী টেলিভিশন চ্যানেল সরাসরি সম্প্রচার করবে।

এমএমএস/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]