আল্লাহ যাদের পুরষ্কৃত করবেন


প্রকাশিত: ১০:৪১ এএম, ২৪ ফেব্রুয়ারি ২০১৬

কুরআনের বর্ণনা ধারার একটি অন্যতম বৈশিষ্ট্য হচ্ছে, যখনই যে বিষয়ের আলোচনা করা হয়, সে বিষয়ের সুসংবাদের সঙ্গে সতর্কবাণী করা হয় আবার সতর্কবাণীর সঙ্গে সুসংবাদও থাকে। তেমনি এ আয়াতে যারা আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করে খাঁটি মুমিন হবে এবং সৎকাজ করবে, তাদের জন্য পুরষ্কারের ঘোষণা দেয়া হয়েছে। আল্লাহ বলেন-

Quran
মুসলমানসহ ইয়াহুদি, খ্রিস্টান ও সাবেঈনদের মধ্য থেকে যারা আল্লাহর প্রতি বিশ্বাস স্থাপন করে খাঁটি মুমিন হবে এবং নেক কাজ করবে, তাদের জন্য পুরষ্কার ঘোষণা এসেছে। তাদের কোনো ভয় এবং চিন্তিত হওয়ার আশংকা নেই বলেও এ আয়াতে আশ্বস্ত করা হয়েছে।

ইয়াহুদিরা নিজেদের পরিচয়ে সর্বদা আল্লাহর পয়গাম্বরের বংশধর বলে অহংকার করত। এ জন্য আল্লাহ তাআলা সুস্পষ্ট ভাষায় ঘোষণা করেছেন যে, পরকালীন চিরস্থায়ী জিন্দেগির চির শান্তি ও মুক্তি এবং আল্লাহর সান্নিধ্য ও নৈকট্য লাভে কোনো ব্যক্তিত্বের বা বিশেষ সম্প্রদায়ের একচেটিয়া অধিকার নেই।

বরং আল্লাহর নৈকট্য অর্জনের একটি মানদণ্ড রয়েছে। তা হলো এক আল্লাহর প্রতি পরিপূর্ণ ঈমান আর সেই ঈমান মোতাবেক নেক আমল। যে বা যারা এ মানদণ্ডের উপর ভিত্তি করে এক আল্লাহ এবং রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লামের রিসালাতের উপর নিজেকে সুপ্রতিষ্ঠিত করতে পারবে। তাঁদের দেয়া বিধি-বিধান মেনে চলবে। সে যে সম্প্রদায়েল লোকই হোক না কেন, তার জন্যে আল্লাহ তাআলার দরবারে রয়েছে প্রতিদান, তারা কোনো ভয় নেই এবং তারা চিন্তিতও হবে না।
সুতরাং আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে তাঁর বিধিবিধান মোতাবেক সুন্নাতি জীবন-যাপন করার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এবিএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]