তাহাজ্জুদ নামাজের ফজিলত


প্রকাশিত: ১১:০৬ এএম, ২০ মার্চ ২০১৬

তাহাজ্জুদ নামাজ অত্যন্ত ফজিলতপূর্ণ নামাজ। তাহাজ্জুদ নামাজের ফজিলত বর্ণনায় রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেছেন, ফরজ নামাজের পর শ্রেষ্ঠ নামাজ হলো রাতের (তাহাজ্জুদ) নামাজ। তাই রাসুলুল্লাহ সাল্লাল্লাহু সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম তাহাজ্জুদ নামাজের গুরুত্বপূর্ণ ফজিলত বর্ণনা করছেন। যা এখানে তুলে ধরা হলো-

Namaj

হজরত আবু হুরায়রা রাদিয়াল্লাহু আনহু হতে বর্ণিত আল্লাহর রাসুল (সাল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়া সাল্লাম বলেন, ‘তোমাদের মধ্যে কেউ যখন ঘুমিয়ে থাকে তখন শয়তান তার মাথার শেষাংশে (ঘাড়ে) তিনটি গাঁট মেরে দেয়। প্রত্যেক গাঁটের সময় এ মন্ত্র পড়ে অভিভূত করে দেয়, তোমার এখনো লম্বা রাত বাকি, অতএব ঘুমাতে থাকো।

সুতরাং সে যদি জাগ্রত হয়ে আল্লাহর জিকির করে তবে একটি বাঁধন খুলে যায়, অতপর অজু করলে আর একটি বাঁধন খুলে যায়, অতপর নামাজ পড়লে তার সবগুলো বাঁধন খুলে যায়।

ফলে ফজরের সময় সে উদ্যম ও স্ফুর্তিভরা মন নিয়ে জাগ্রত হয়। নতুবা (তাহাজ্জুদ না পড়লে) আলস্যভরা ভারী মন নিয়ে ফজরের সময় জাগ্রত হয়। (মুয়াত্তা মালেক, বুখারি, মুসলিম, আবু দাউদ, নাসাঈ, ইবনু মাজাহ)

সুতরাং আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে পাঁচ ওয়াক্ত ফরজ নামাজ আদায়ের সঙ্গে সঙ্গে গভীর রজনীতে তাহাজ্জুদ নামাজ পড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।

এমএমএস/এবিএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]