বিদেশফেরত দুই লক্ষাধিক যাত্রী নিয়ে দুশ্চিন্তায় স্বাস্থ্য বিভাগ

মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল
মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল মনিরুজ্জামান উজ্জ্বল , বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১০:১৬ পিএম, ১৩ মার্চ ২০২০

>> ২১ জানুয়ারি থেকে বিদেশফেরত যাত্রীর সংখ্যা ৫ লাখ ৮১ হাজার ১১৫
>> ১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৩ মার্চ পর্যন্ত ফিরেছে ৪ লাখ ৪৮৭ হাজার ৯০৯
>> বিদেশফেরত যাত্রীদের অনেকে সেলফ কোয়ারেন্টাইনে থাকছেন না
>> বিমানবন্দরে জোরদার থাকলেও স্থলবন্দরগুলোতে নজরদারি ছিল কম

ডিসেম্বরের শেষ সপ্তাহে চীনের উহান প্রদেশে নোভেল করোনাভাইরাস (কোভিড-১৯) সংক্রমণের পর মারাত্মক ছোঁয়াচে রোগটি প্রতিরোধে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় গত ২১ জানুয়ারি থেকে হযরত শাহজালালসহ তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে থার্মাল স্ক্যানারের মাধ্যমে যাত্রীদের শরীরের তাপমাত্রা মাপাসহ আগাম সতর্কতামূলক বিভিন্ন ব্যবস্থা গ্রহণ করে।

পরবর্তীতে ৭ ফেব্রুয়ারি থেকে বেনাপোলসহ সকল স্থলবন্দর, দুটি সমুদ্রবন্দর ও ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন দিয়ে বিদেশফেরত যাত্রীদের থার্মাল ও হ্যান্ড ইনফ্রারেড থার্মোমিটারে জ্বর মাপাসহ হেলথ স্ক্রিনিং, হেলথ ডিক্লারেশন ফরম পূরণসহ নানা তথ্য-উপাত্ত সংগ্রহ করা হয়।

korna

রাজধানী ঢাকা থেকে শুরু করে ইউনিয়ন পর্যায়ের হাসপাতালে আক্রান্ত রোগীদের চিকিৎসা নিশ্চিত করতে আইসোলেশন ওয়ার্ড প্রস্তুত রাখাসহ স্বাস্থ্যমন্ত্রী জাহিদ মালেকের নেতৃত্বে আন্তঃমন্ত্রণালয়, জেলা ও উপজেলা পর্যায়ে জেলা প্রশাসক (ডিসি) ও উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাদের (ইউএনও) নেতৃত্বে পৃথক কমিটি গঠন করা হয়। স্বাস্থ্যসেবার সঙ্গে জড়িতদের নিরাপত্তা নিশ্চিতে বিদেশি দাতা সংস্থার মাধ্যমে দেশেই পারসোনাল প্রটেকশন ইকুইপমেন্ট সংগ্রহ ও সরবরাহ করা হচ্ছে। জনসচেতনতা সৃষ্টিতে রোগতত্ত্ববিদদের পরামর্শে করোনামুক্ত থাকতে কী কী করতে হবে সে সম্পর্কে গণমাধ্যমে প্রচার-প্রচারণার পাশাপাশি সচেতনতামূলক লিফলেট বিলি করা হচ্ছে।

এমন পরিস্থিতিতে গত ৮ মার্চ দেশে প্রথমবারের মতো ইতালি ফেরত দুই বাংলাদেশি এবং তাদের একজনের সংস্পর্শে আসা এক নারীর লালার নমুনায় করোনাভাইরাসের উপস্থিতি পাওয়া যায়। তাদের কোয়ারেন্টাইনে রাখা হয়। পরবর্তীতে আক্রান্ত তিনজনের মধ্যে দুজন সুস্থ হয়ে ওঠেন। তাদের একজন বাড়িও ফিরে গেছেন। আরেকজন সুস্থ হয়ে উঠলেও ব্যক্তিগত কারণে আপাতত হাসপাতালে অবস্থান করছেন।

দেশে মাত্র তিন রোগী শনাক্ত হলেও স্বস্তি নেই সাধারণ মানুষের মধ্যে। বৈশ্বিক প্রেক্ষাপটই এর মূল কারণ। বিশ্বের শতাধিক দেশ ও অঞ্চলে ছড়িয়ে পড়া ভাইরাসটির সংক্রমণে (কোভিড-১৯) মারা গেছেন পাঁচ হাজার ৮০ জন। আক্রান্তের ঘটনা এক লাখ ৩৮ হাজার ১৫২টি। তবে আক্রান্তদের মধ্যে ৭০ হাজার ৭১৪ জন সুস্থ হয়েছেন। প্রকাশ্যে না বললেও করোনাভাইরাসের সংক্রমণ নিয়ে খোদ স্বাস্থ্য বিভাগও উদ্বিগ্ন।

korna

নাম প্রকাশ না করার শর্তে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয় এবং স্বাস্থ্য অধিদফতরের একাধিক দায়িত্বশীল কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, করোনাভাইরাস প্রতিরোধে তারা প্রায় দুই মাস আগে থেকে সতর্কতামূলক বিভিন্ন পদক্ষেপ গ্রহণ করছে। কিন্তু বিদেশফেরত যাত্রীদের ঢল ঠেকাতে পারেননি। দেশে করোনাভাইরাস সংক্রমণে এসব যাত্রীই মুখ্য ভূমিকা রাখবেন— এটাই তাদের মধ্যে বড় আতঙ্কের কারণ।

তারা বলেন, করোনাভাইরাসের সুপ্তকাল দুই থেকে ১৪ দিন। বিমানবন্দরসহ বিভিন্ন প্রবেশপথে থার্মাল স্ক্যানার ও হ্যান্ড ইনফ্রারেড মেশিনে জ্বর মাপা হলেও অধিকাংশ যাত্রীর তাৎক্ষণিকভাবে জ্বর ধরা না পরাটাই স্বাভাবিক। এক্ষেত্রে সেলফ কোয়ারেন্টাইন ইজ দি বেস্ট ম্যানেজমেন্ট। কিন্তু আমরা যত দূর জেনেছি, বিদেশফেরত যাত্রীরা তা মানছেন না। তাদের অনেকেই গণপরিবহনে চড়ছেন। সাধারণ মানুষের সঙ্গে মেলামেশা করছেন। এতে ঝুঁকি বাড়ছে।

জাগো নিউজের অনুসন্ধানে জানা গেছে, গত ২১ জানুয়ারি থেকে আজ (১৩ মার্চ) পর্যন্ত দেশের তিনটি আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর, বেনাপোলসহ সকল স্থলবন্দর, দুটি সমুদ্রবন্দর ও ক্যান্টনমেন্ট রেলস্টেশন দিয়ে করোনা আক্রান্তসহ বিশ্বের বিভিন্ন দেশ থেকে সর্বমোট পাঁচ লাখ ৮১ হাজার ১১৫ জন নাগরিক (দেশি-বিদেশি) দেশে ফিরেছেন।

korna

গত এক মাসে (১৩ ফেব্রুয়ারি থেকে ১৩ মার্চ পর্যন্ত) এ সংখ্যা চার লাখ ৪৭ হাজার ৯০৯ জন। আর গত ১৫ দিনে বাংলাদেশে এসেছেন দুই লাখ ১৪ হাজারের বেশি মানুষ। তাদের মধ্যে বিমানবন্দর ও স্থলবন্দর দিয়েই বেশি এসেছেন। তিনটি বন্দর দিয়ে আগত যাত্রীদের মধ্যে শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে যেভাবে নজরদারি করা হয়েছে অন্য কোথাও সেভাবে করা হয়নি।

গত ১৫ দিনে বিদেশফেরত দুই লাখ ১৪ হাজার যাত্রীর করোনা সংক্রমণের ঝুঁকি রয়েছে কি-না, এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালক ডা. আবুল কালাম আজাদ বলেন, বিদেশফেরত বিশেষ করে আক্রান্ত দেশ থেকে ফেরত আসা যাত্রীদের মাধ্যমে সংক্রমণের ঝুঁকি তো রয়েছেই। তবে প্রধানমন্ত্রীসহ সরকারের বিভিন্ন মন্ত্রণালয় করোনাভাইরাসের সংক্রমণ প্রতিরোধে সর্বাত্মক চেষ্টা চালাচ্ছে।

korna

তিনি বলেন, করোনাভাইরাস রোগটি উচ্চমাত্রার ছোঁয়াচে হলেও এতে মৃত্যুঝুঁকি কম। বয়োবৃদ্ধ কিংবা বিভিন্ন অসংক্রামক ব্যাধিতে আগে থেকে আক্রান্ত বয়স্কদের এ রোগে আক্রান্ত ও মৃত্যুঝুঁকি বেশি। এখন পর্যন্ত করোনাভাইরাস প্রতিরোধে দেশ সঠিক পথে এগোচ্ছে- মন্তব্য করে তিনি আরও বলেন, বিদেশফেরত যাত্রীরা দুই সপ্তাহ ঘরে নির্বাসনে থাকলে তার পরিবার, দেশ ও জাতি বেঁচে যাবে। বারবার বলার পরও বিদেশফেরত যাত্রীরা নিজ গৃহে নির্বাসনে না থাকার বিষয়টি দুঃখজনক।

অধ্যাপক আবুল কালাম আজাদ বলেন, তাদের (বিদেশফেরত) ঘরে রাখার জন্য গণবিজ্ঞপ্তি এবং আইনের ভয়ও দেখাতে হচ্ছে। এ রোগ প্রতিরোধে আতঙ্কগ্রস্ত না হয়ে দেশবাসীকে সাবধানতা অবলম্বন করতে হবে। আক্রান্ত হলে সুচিকিৎসা নিশ্চিত করতে স্বাস্থ্য বিভাগ প্রস্তুত রয়েছে- জানান তিনি।

এমইউ/এমএআর/জেআইএম

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

৪,২০,২৬,৮৪১
আক্রান্ত

১১,৪৩,২২৫
মৃত

৩,১২,০৩,৬৫৬
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ৩,৯৪,৮২৭ ৫,৭৪৭ ৩,১০,৫৩২
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৮৬,৬১,৭২২ ২,২৮,৩৮১ ৫৬,৫৫,৩২৭
ভারত ৭৭,৬১,৩১২ ১,১৭,৩৩৬ ৬৯,৪৮,৪৯৭
ব্রাজিল ৫৩,৩২,৬৩৪ ১,৫৫,৯৬২ ৪৭,৮৫,২৯৭
রাশিয়া ১৪,৮০,৬৪৬ ২৫,৫২৫ ১১,১৯,২৫১
স্পেন ১০,৯০,৫২১ ৩৪,৫২১ ১,৯৬,৯৫৮
আর্জেন্টিনা ১০,৫৩,৬৫০ ২৭,৯৫৭ ৮,৫১,৮৫৪
ফ্রান্স ৯,৯৯,০৪৩ ৩৪,২১০ ১,০৮,৫৯৯
কলম্বিয়া ৯,৯০,২৭০ ২৯,৬৩৬ ৮,৯৩,৭১২
১০ পেরু ৮,৭৯,৮৭৬ ৩৩,৯৮৪ ৭,৯৬,৭১৯
১১ মেক্সিকো ৮,৭৪,১৭১ ৮৭,৮৯৪ ৬,৩৬,৩৯১
১২ যুক্তরাজ্য ৮,১০,৪৬৭ ৪৬,৭০৬ ৩৪৪
১৩ দক্ষিণ আফ্রিকা ৭,১০,৫১৫ ১৮,৮৪৩ ৬,৪২,৫৬০
১৪ ইরান ৫,৫০,৭৫৭ ৩১,৬৫০ ৪,৪২,৬৭৪
১৫ চিলি ৪,৯৭,১৩১ ১৩,৭৯২ ৪,৬৯,৭৬৫
১৬ ইতালি ৪,৬৫,৭২৬ ৩৬,৯৬৮ ২,৫৯,৪৫৬
১৭ ইরাক ৪,৪২,১৬৪ ১০,৪৬৫ ৩,৭১,৮২৬
১৮ জার্মানি ৪,০৩,৮৭৪ ১০,০৪৪ ৩,০৬,১০০
১৯ ইন্দোনেশিয়া ৩,৭৭,৫৪১ ১২,৯৫৯ ৩,০১,০০৬
২০ ফিলিপাইন ৩,৬৩,৮৮৮ ৬,৭৮৩ ৩,১২,৩৩৩
২১ তুরস্ক ৩,৫৫,৫২৮ ৯,৫৮৪ ৩,১০,০২৭
২২ সৌদি আরব ৩,৪৩,৭৭৪ ৫,২৫০ ৩,৩০,১৮১
২৩ ইউক্রেন ৩,৩০,৩৯৬ ৬,১৬৪ ১,৩৭,৫৭৮
২৪ পাকিস্তান ৩,২৬,২১৬ ৬,৭১৫ ৩,০৯,৬৪৬
২৫ ইসরায়েল ৩,০৮,৫৭২ ২,৩১৯ ২,৮৮,৯৭৩
২৬ বেলজিয়াম ২,৭০,১৩২ ১০,৫৮৮ ২২,২১৩
২৭ নেদারল্যান্ডস ২,৬২,৪০৫ ৬,৯১৯ ২৫০
২৮ চেক প্রজাতন্ত্র ২,২৩,০৬৫ ১,৮৪৫ ৮৭,২২৫
২৯ পোল্যান্ড ২,১৪,৬৮৬ ৪,০১৯ ১,০২,২০৪
৩০ কানাডা ২,০৯,১৪৮ ৯,৮৬২ ১,৭৭,১০৪
৩১ রোমানিয়া ১,৯৬,০০৪ ৬,১৬৩ ১,৪১,০৮৯
৩২ মরক্কো ১,৮৬,৭৩১ ৩,১৩২ ১,৫৪,৪৮১
৩৩ ইকুয়েডর ১,৫৬,৪৫১ ১২,৫০০ ১,৩৪,১৮৭
৩৪ নেপাল ১,৪৮,৫০৯ ৮১২ ১,০২,৮২০
৩৫ বলিভিয়া ১,৪০,৪৪৫ ৮,৫৮৪ ১,০৬,৯৫০
৩৬ কাতার ১,৩০,৪৬২ ২২৮ ১,২৭,৩২৮
৩৭ পানামা ১,২৭,২২৭ ২,৬১২ ১,০৩,৩৯৮
৩৮ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ১,২২,৮৭৩ ২,২১২ ১,০০,৯২০
৩৯ সংযুক্ত আরব আমিরাত ১,২০,৭১০ ৪৭৪ ১,১৩,৩৬৪
৪০ কুয়েত ১,১৯,৪২০ ৭৩০ ১,১০,৭১৪
৪১ ওমান ১,১১,৮৩৭ ১,১৪৭ ৯৭,৯৪৯
৪২ কাজাখস্তান ১,১০,০৮৬ ১,৭৯৬ ১,০৫,৪৯৩
৪৩ পর্তুগাল ১,০৯,৫৪১ ২,২৪৫ ৬৪,৫৩১
৪৪ সুইডেন ১,০৮,৯৬৯ ৫,৯৩০ ৪,৯৭১
৪৫ মিসর ১,০৬,০৬০ ৬,১৬৬ ৯৮,৬২৪
৪৬ গুয়াতেমালা ১,০৩,১৭২ ৩,৫৮০ ৯২,৬৬৫
৪৭ কোস্টারিকা ১,০০,৬১৬ ১,২৫১ ৬১,১৬২
৪৮ সুইজারল্যান্ড ৯৭,০১৯ ২,১৪৫ ৫৫,৭০০
৪৯ জাপান ৯৪,৫২৪ ১,৬৮৫ ৮৭,৬৬৬
৫০ ইথিওপিয়া ৯১,৬৯৩ ১,৩৯৬ ৪৫,২৬০
৫১ হন্ডুরাস ৯১,৫০৯ ২,৬০৪ ৩৭,১৩২
৫২ বেলারুশ ৯০,৩৮০ ৯৪৫ ৮১,৫০১
৫৩ ভেনেজুয়েলা ৮৮,৪১৬ ৭৫৯ ৮২,২৮৪
৫৪ চীন ৮৫,৭৪৭ ৪,৬৩৪ ৮০,৮৬৫
৫৫ বাহরাইন ৭৯,২১১ ৩০৮ ৭৫,৮৪০
৫৬ আর্মেনিয়া ৭৩,৩১০ ১,১৪৫ ৫০,২৭৬
৫৭ অস্ট্রিয়া ৭১,৮৪৪ ৯৪১ ৫৩,৯৭০
৫৮ মলদোভা ৬৯,৫৬৮ ১,৬৪১ ৫০,৪২২
৫৯ লেবানন ৬৭,০২৭ ৫৫২ ৩১,৪০৯
৬০ উজবেকিস্তান ৬৪,৬৩৩ ৫৪১ ৬১,৭৩৪
৬১ নাইজেরিয়া ৬১,৮০৫ ১,১২৭ ৫৬,৯৮৫
৬২ সিঙ্গাপুর ৫৭,৯৫১ ২৮ ৫৭,৮২৯
৬৩ প্যারাগুয়ে ৫৭,৫২৬ ১,২৬২ ৩৮,১৮৭
৬৪ আলজেরিয়া ৫৫,৩৫৭ ১,৮৮৮ ৩৮,৬১৮
৬৫ কিরগিজস্তান ৫৪,৫৮৮ ১,৪৯৮ ৪৭,০৫০
৬৬ আয়ারল্যান্ড ৫৪,৪৭৬ ১,৮৭১ ২৩,৩৬৪
৬৭ হাঙ্গেরি ৫৪,২৭৮ ১,৩৫২ ১৫,৬৫৫
৬৮ লিবিয়া ৫২,৬২০ ৭৬৮ ২৯,০৫৭
৬৯ ফিলিস্তিন ৪৯,১৩৪ ৪৩৫ ৪২,৫৪৪
৭০ ঘানা ৪৭,৫৩৮ ৩১২ ৪৬,৭৮৯
৭১ আজারবাইজান ৪৭,৪১৮ ৬৪৮ ৪০,৬১৯
৭২ কেনিয়া ৪৭,২১২ ৮৭০ ৩৩,০৫০
৭৩ জর্ডান ৪৬,৪৪১ ৪৮১ ৭,৩৪০
৭৪ তিউনিশিয়া ৪৫,৮৯২ ৭৪০ ৫,০৩২
৭৫ মায়ানমার ৪১,০০৮ ১,০০৫ ২১,১৪৪
৭৬ আফগানিস্তান ৪০,৬৮৭ ১,৫০৭ ৩৪,০১০
৭৭ ডেনমার্ক ৩৭,৭৬৩ ৬৯৪ ৩০,৮৭৭
৭৮ সার্বিয়া ৩৭,৫৩৬ ৭৮৩ ৩১,৫৩৬
৭৯ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ৩৭,৩১৪ ১,০৫১ ২৫,৯৮৯
৮০ স্লোভাকিয়া ৩৫,৩৩০ ১১৫ ৮,৭৬৩
৮১ বুলগেরিয়া ৩৪,৯৩০ ১,০৬৪ ১৭,৮৩৩
৮২ এল সালভাদর ৩২,২৬২ ৯৪০ ২৭,৯০৪
৮৩ ক্রোয়েশিয়া ২৯,৮৫০ ৪০৬ ২২,০৬৪
৮৪ গ্রীস ২৮,২১৬ ৫৪৯ ৯,৯৮৯
৮৫ অস্ট্রেলিয়া ২৭,৪৭৬ ৯০৫ ২৫,১৫৯
৮৬ দক্ষিণ কোরিয়া ২৫,৬৯৮ ৪৫৫ ২৩,৭১৭
৮৭ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ২৫,৪৭৩ ৮৭৪ ১৮,০৪৭
৮৮ জর্জিয়া ২৪,৫৬২ ১৮৩ ৯,৭৫১
৮৯ মালয়েশিয়া ২৩,৮০৪ ২০৪ ১৫,৪১৭
৯০ ক্যামেরুন ২১,৫৭০ ৪২৫ ২০,১১৭
৯১ আইভরি কোস্ট ২০,৩৯০ ১২১ ২০,০৮৮
৯২ আলবেনিয়া ১৮,২৫০ ৪৬৫ ১০,৩৯৫
৯৩ স্লোভেনিয়া ১৭,৬৪৬ ২১১ ৭,২৯৯
৯৪ নরওয়ে ১৭,২৩৪ ২৭৯ ১১,৮৬৩
৯৫ মাদাগাস্কার ১৬,৮১০ ২৩৮ ১৬,২১৫
৯৬ মন্টিনিগ্রো ১৬,২৫৯ ২৫৩ ১২,০৯৩
৯৭ জাম্বিয়া ১৬,০৩৫ ৩৪৬ ১৫,১৬৮
৯৮ সেনেগাল ১৫,৫০৮ ৩২১ ১৪,০২৬
৯৯ ফিনল্যাণ্ড ১৪,২৫৫ ৩৫৫ ৯,৮০০
১০০ সুদান ১৩,৭২৪ ৮৩৬ ৬,৭৬৪
১০১ নামিবিয়া ১২,৪৬০ ১৩৩ ১০,৬০৯
১০২ লুক্সেমবার্গ ১২,৩৩৩ ১৪০ ৮,৪৭৪
১০৩ গিনি ১১,৬৩৫ ৭১ ১০,৪৭৪
১০৪ মোজাম্বিক ১১,৫৫৯ ৮১ ৯,২২৬
১০৫ মালদ্বীপ ১১,৩৫৮ ৩৭ ১০,৩৮৩
১০৬ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ১১,০৯৭ ৩০৪ ১০,৩৭৯
১০৭ উগান্ডা ১১,০৪১ ৯৮ ৭,২১০
১০৮ তাজিকিস্তান ১০,৬৫৩ ৮১ ৯,৭২৪
১০৯ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ১০,৩৪২ ৬৯ ৯,৯৯৫
১১০ হাইতি ৯,০০৭ ২৩১ ৭,৩১১
১১১ গ্যাবন ৮,৯০১ ৫৪ ৮,৪৭৯
১১২ লিথুনিয়া ৮,৬৬৩ ১২৫ ৩,৭৭৩
১১৩ জ্যামাইকা ৮,৬০০ ১৭৯ ৪,০৯৫
১১৪ অ্যাঙ্গোলা ৮,৫৮২ ২৬০ ৩,৩০৫
১১৫ জিম্বাবুয়ে ৮,২৪২ ২৩৬ ৭,৭৪২
১১৬ কেপ ভার্দে ৮,১২২ ৯১ ৬,৯৪০
১১৭ মৌরিতানিয়া ৭,৬৫০ ১৬৩ ৭,৩৬৯
১১৮ গুয়াদেলৌপ ৭,৩২৯ ১১৫ ২,১৯৯
১১৯ কিউবা ৬,৪২১ ১২৮ ৫,৮৭১
১২০ শ্রীলংকা ৬,২৮৭ ১৪ ৩,৫৬১
১২১ বাহামা ৬,১৩৫ ১৩০ ৩,৭০৫
১২২ বতসোয়ানা ৫,৯২৩ ২১ ৯২৭
১২৩ মালাউই ৫,৮৭৪ ১৮৩ ৪,৭৬৪
১২৪ ইসওয়াতিনি ৫,৮১৪ ১১৬ ৫,৪৬৮
১২৫ জিবুতি ৫,৫২২ ৬১ ৫,৩৮৯
১২৬ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ৫,৪৪৬ ১০৩ ৩,৮৭৬
১২৭ নিকারাগুয়া ৫,৪৩৪ ১৫৫ ৪,২২৫
১২৮ হংকং ৫,২৮১ ১০৫ ৫,০১৯
১২৯ সিরিয়া ৫,২৬৭ ২৬০ ১,৬৫৫
১৩০ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৫,১৬১ ১৯ ৩,৫৩৬
১৩১ কঙ্গো ৫,১৫৬ ১১৪ ৩,৮৮৭
১৩২ সুরিনাম ৫,১৫৪ ১০৯ ৪,৯৯৫
১৩৩ মালটা ৫,১৩৭ ৪৯ ৩,৩৮৪
১৩৪ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ৫,০৭৪ ৮৩ ৪,৯৬১
১৩৫ রুয়ান্ডা ৫,০১৭ ৩৪ ৪,৮০৩
১৩৬ রিইউনিয়ন ৫,০১৫ ১৯ ৪,৪৪৫
১৩৭ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ৪,৮৬২ ৬২ ১,৯২৪
১৩৮ আরুবা ৪,৩৮৯ ৩৬ ৪,১২০
১৩৯ আইসল্যান্ড ৪,২৬৮ ১১ ৩,০৯৮
১৪০ এস্তোনিয়া ৪,২৪৭ ৭১ ৩,৩৬৬
১৪১ মায়োত্তে ৪,২০৩ ৪৪ ২,৯৬৪
১৪২ লাটভিয়া ৩,৯৫৮ ৪৯ ১,৩৫৭
১৪৩ সোমালিয়া ৩,৮৯৭ ১০২ ৩,১৬৬
১৪৪ গায়ানা ৩,৮৭৭ ১১৭ ২,৮৫৩
১৪৫ এনডোরা ৩,৮১১ ৬৩ ২,৪৭০
১৪৬ থাইল্যান্ড ৩,৭২৭ ৫৯ ৩,৫১৮
১৪৭ গাম্বিয়া ৩,৬৫৯ ১১৯ ২,৬৬০
১৪৮ মালি ৩,৪৪০ ১৩২ ২,৬০৮
১৪৯ সাইপ্রাস ৩,১৫৪ ২৫ ১,৪৪৪
১৫০ বেলিজ ২,৯৯৫ ৪৬ ১,৮২৬
১৫১ দক্ষিণ সুদান ২,৮৭২ ৫৫ ১,২৯০
১৫২ উরুগুয়ে ২,৭০১ ৫৩ ২,২০৪
১৫৩ বেনিন ২,৫৫৭ ৪১ ২,৩৩০
১৫৪ বুর্কিনা ফাঁসো ২,৪১৪ ৬৫ ১,৮৬৯
১৫৫ গিনি বিসাউ ২,৪০৩ ৪১ ১,৮১৮
১৫৬ সিয়েরা লিওন ২,৩৪০ ৭৩ ১,৭৭৭
১৫৭ মার্টিনিক ২,২৫৭ ২৪ ৯৮
১৫৮ টোগো ২,১৩৯ ৫২ ১,৫৭৪
১৫৯ ইয়েমেন ২,০৫৭ ৫৯৭ ১,৩৪৪
১৬০ নিউজিল্যান্ড ১,৯২৩ ২৫ ১,৮৩২
১৬১ লেসোথো ১,৯২৩ ৪৩ ৯৬১
১৬২ চাদ ১,৪১০ ৯৬ ১,২২৩
১৬৩ লাইবেরিয়া ১,৩৮৫ ৮২ ১,২৭৮
১৬৪ নাইজার ১,২১৫ ৬৯ ১,১২৮
১৬৫ ভিয়েতনাম ১,১৪৮ ৩৫ ১,০৪৯
১৬৬ কিউরাসাও ৮০৪ ৫০৯
১৬৭ সান ম্যারিনো ৮০২ ৪৫ ৭১১
১৬৮ চ্যানেল আইল্যান্ড ৭৮৪ ৪৮ ৬৫৯
১৬৯ সিন্ট মার্টেন ৭৬৯ ২২ ৬৮১
১৭০ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৫৯
১৭১ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ৬৯৮ ৬৮৯
১৭২ জিব্রাল্টার ৬৩০ ৪৯৫
১৭৩ পাপুয়া নিউ গিনি ৫৮৩ ৫৪৫
১৭৪ বুরুন্ডি ৫৫১ ৪৯৭
১৭৫ তাইওয়ান ৫৪৮ ৪৯৭
১৭৬ সেন্ট মার্টিন ৫৩৮ ৪২২
১৭৭ কমোরস ৫১৭ ৪৯৪
১৭৮ তানজানিয়া ৫০৯ ২১ ১৮৩
১৭৯ ফারে আইল্যান্ড ৪৯০ ৪৭৩
১৮০ ইরিত্রিয়া ৪৫৭ ৩৯১
১৮১ মরিশাস ৪২৫ ১০ ৩৮৬
১৮২ আইল অফ ম্যান ৩৪৮ ২৪ ৩২১
১৮৩ ভুটান ৩৩৬ ৩০৬
১৮৪ মঙ্গোলিয়া ৩২৮ ৩১২
১৮৫ কম্বোডিয়া ২৮৬ ২৮০
১৮৬ লিচেনস্টেইন ২৮২ ১৫৮
১৮৭ মোনাকো ২৮১ ২৩৩
১৮৮ কেম্যান আইল্যান্ড ২৩৬ ২১৫
১৮৯ বার্বাডোস ২২৪ ২০৭
১৯০ বারমুডা ১৮৮ ১৭৫
১৯১ সিসিলি ১৫১ ১৪৮
১৯২ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ১৫০ ১২১
১৯৩ ব্রুনাই ১৪৮ ১৪৩
১৯৪ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ১২২ ১০৭
১৯৫ সেন্ট বারথেলিমি ৭৭ ৬৬
১৯৬ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৭১ ৭০
১৯৭ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ৬৮ ৬৪
১৯৮ ম্যাকাও ৪৬ ৪৬
১৯৯ সেন্ট লুসিয়া ৪২ ২৭
২০০ ডোমিনিকা ৩৩ ২৯
২০১ ফিজি ৩৩ ৩০
২০২ পূর্ব তিমুর ২৯ ৩১
২০৩ নিউ ক্যালেডোনিয়া ২৭ ২৭
২০৪ গ্রেনাডা ২৭ ২৪
২০৫ ভ্যাটিকান সিটি ২৭ ১৫
২০৬ লাওস ২৪ ২২
২০৭ সেন্ট কিটস ও নেভিস ১৯ ১৯
২০৮ গ্রীনল্যাণ্ড ১৭ ১৬
২০৯ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ১৬ ১২
২১০ মন্টসেরাট ১৩ ১৩
২১১ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ১৩ ১৩
২১২ পশ্চিম সাহারা ১০
২১৩ জান্ডাম (জাহাজ)
২১৪ সলোমান আইল্যান্ড
২১৫ এ্যাঙ্গুইলা
২১৬ ওয়ালিস ও ফুটুনা
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।

টাইমলাইন  

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]