করোনায় ৫ গুণ বেশি মৃত্যু: ডব্লিউএইচও’র সঙ্গে একমত নন সংশ্লিষ্টরা

আবদুল্লাহ আল মিরাজ
আবদুল্লাহ আল মিরাজ আবদুল্লাহ আল মিরাজ , নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৭:৩৮ পিএম, ০৮ মে ২০২২

বাংলাদেশে সরকারি হিসাবে চলতি বছরের ৭ মে পর্যন্ত করোনায় মৃত্যু হয়েছে ২৯ হাজার ১২৭ জনের। তবে বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার (ডব্লিউএইচও) অনুমানে এ সংখ্যাটা আরও পাঁচগুণ বেশি দেখানো হয়েছে। সংস্থাটির মতে, বাংলাদেশে এ পর্যন্ত করোনায় মারা গেছেন এক লাখ ৪১ হাজার জন। তবে ডব্লিউএইচও তাদের পরিসংখ্যানে করোনাভাইরাসে সরাসরি মৃত্যু ছাড়াও করোনার কারণে পরোক্ষভাবে যাদের মৃত্যু হয়েছে তাদেরও অন্তর্ভুক্ত করেছে। মৃত্যুর এ পরিসংখ্যানের সঙ্গে একমত নন দেশের স্বাস্থ্যসেবা সংশ্লিষ্টরা।

ডব্লিউএইচও’র প্রতিবেদন অনুযায়ী, ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে ২০২১ সালের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে বিশ্বব্যাপী করোনা মহামারিতে প্রত্যক্ষ বা পরোক্ষভাবে মৃত্যুর সংখ্যা প্রায় দেড় কোটি, যা বর্তমান সরকারি পরিসংখ্যানের দ্বিগুণেরও বেশি। গত বছরের শেষ নাগাদ বিশ্বব্যাপী ৫৪ লাখ মৃত্যুর কথা জানা যায়।

এছাড়াও প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, লকডাউন ও বাড়ি থেকে কাজ করার ফলে সড়ক দুর্ঘটনা বা পেশাগত আঘাতের মতো নির্দিষ্ট কিছু দুর্ঘটনার ঝুঁকি কম ছিল। এ কারণে মহামারি চলাকালীন মৃত্যুর আনুমানিক সংখ্যা প্রভাবিত হতে পারে বলেও উল্লেখ করা হয়।

ডব্লিউএইচও’র প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, বেশিরভাগ মৃত্যু দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়া, ইউরোপ ও আমেরিকায় ঘটেছে। এতে বলা হয়, ভারতে করোনায় ৪৭ লাখ মৃত্যু হয়েছে, যা দেশটির সরকারি পরিসংখ্যানের ১০ গুণ বেশি। এটি বিশ্বব্যাপী করোনায় মৃত্যুর প্রায় এক-তৃতীয়াংশ। যদিও ভারত এই হিসাবকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত এবং ভুল তথ্য বলে এড়িয়ে গেছে।

jagonews24

এই প্রতিবেদনের বিষয়ে জানতে চাইলে আইইডিসিআরের উপদেষ্টা ডা. মুশতাক হোসেন জাগো নিউজকে বলেন, ডব্লিউএইচও’র মৃত্যুর হিসাব গণনার পদ্ধতি ঠিক আছে। তবে কোন তথ্যের ভিত্তিতে তারা পরিসংখ্যান তৈরি করেছে, সেই তথ্যের উৎস জানতে হবে। ডব্লিউএইচও মৃত্যুর যে সংখ্যাটা দিয়েছে তা তারা কীসের ভিত্তিতে দিয়েছে সেটা স্পষ্ট নয়। এই গবেষণার পদ্ধতি বৈজ্ঞানিক হতে পারে কিন্তু সেই পদ্ধতিতে ব্যবহার করা তথ্য কতটা সঠিক সে বিষয়টা দেখার আছে। পার্শ্ববর্তী অন্য দেশের তথ্যের সঙ্গে বাংলাদেশকে মিলিয়ে একই রকমভাবে তুলে ধরলে সেটা ঠিক হবে না।

এদিকে, কোভিডে মৃত্যু নিয়ে সরকারের দেওয়া তথ্য সঠিক বলে দাবি করেছেন স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রী জাহিদ মালেক। ফলে করোনাভাইরাসে মৃত্যু সংক্রান্ত ডব্লিউএইচও’র দেওয়া তথ্যের সঙ্গে একমত নন তিনি। এ বিষয়ে সরকার পরে আনুষ্ঠানিক ব্যাখ্যা দেবে বলেও জানান মন্ত্রী। এছাড়া প্রকাশিত প্রতিবেদন বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ তথ্য সরকারের কাছে নেই বলেও জানান তিনি।

ডব্লিউএইচও বলছে, আন্তর্জাতিকভাবে খ্যাতিসম্পন্ন বিশেষজ্ঞদের নিয়ে গঠিত একটি প্যানেল এ বিষয়ে বেশ কয়েক মাস ধরে কাজ করেছে। তারা সরকারিভাবে দেওয়া তথ্য ও স্থানীয়ভাবে পাওয়া তথ্য মিলিয়ে দেখেছে।

সংস্থাটির মতে, বাংলাদেশে বিশেষ করে ২০২০ সালের জুন-জুলাই-আগস্ট সময়ের মধ্যে মৃত্যুর হার প্রথমবার বাড়ে। ডব্লিউএইচও অনুমান করেছে, ওই সময়ে সাধারণ পরিস্থিতিতে প্রত্যাশিত মৃত্যুর চেয়ে অতিরিক্ত ৩০ হাজারের বেশি মানুষ মারা গেছেন।

এতে আরও বলা হয়, মহামারির প্রথম বছর (২০২০ সাল) শেষে বাংলাদেশে অতিরিক্ত মৃত্যু হয় ৪৬ হাজার ৪১ জনের। দ্বিতীয় বছরের (২০২১ সালের) এপ্রিলে ১৪ হাজার ২৭৬ জন, জুনে ১৩ হাজার ১৩ জন, জুলাইয়ে ২০ হাজার ৩০ জন এবং আগস্টে ১৮ হাজার ৯১৫ জনের অতিরিক্ত মৃত্যু হয়।

ডব্লিউএইচও’র হিসাব অনুযায়ী, ২০২১ সালের ডিসেম্বর নাগাদ বাংলাদেশে অতিরিক্ত মৃত্যুর সংখ্যা এক লাখ ৪০ হাজার ৭৬৪ জনে পৌঁছেছে।

jagonews24

এসব বিষয়ে ডা. মুশতাক হোসেন জানান, বাংলাদেশে মানুষ মারা গেলে তা সহজেই বের করা যায়। এখানে মৃত্যু হওয়া সবাইকে কবর কিংবা দাহ করা হয়েছে। সেক্ষেত্রে জরিপ করা হলে সহজেই তা বের করা সম্ভব। যদি এই মৃত্যু (ডব্লিউএইচও’র প্রতিবেদনে দেওয়া তথ্য) হয়ে থাকে তাহলে আমাদের বের করতে হবে আনডিটেকটেড (শনাক্ত হয়নি) কতজন, আর করোনাভাইরাস সংক্রান্ত মহামারির কারণে স্বাস্থ্যসেবা নিতে না পেরে কতজন মারা গেছেন। ভারতে অনেক মরদেহ সৎকার না করতে পেরে পানিতে ভাসিয়ে দিয়েছে। এরকমটা বাংলাদেশে হয়নি।

তিনি বলেন, কোভিডের সময় অন্যান্য রোগে (করোনা ব্যতীত) আক্রান্ত অনেক মানুষ পর্যাপ্ত সুযোগের অভাবে চিকিৎসা নিতে পারেননি এটা সত্য। আবার অনেকে করোনা উপসর্গ নিয়ে মারা গেছেন। তবে তা পাঁচগুণ হওয়ার কথা নয়। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সেন্টার ফর জেনোসাইড স্ট্যাডিজ করোনা উপসর্গ নিয়ে মৃত্যুর তথ্য-উপাত্ত দিয়েছিল। তাদের সেই তথ্য থেকে এটি অনেক বেশি।

আইইডিসিআরের এই উপদেষ্টা আরও বলেন, করোনার প্রভাবে দেশে কতজন মারা গেছেন, এ ধরনের তথ্য সরকারের হাতে নেই। যদি জানা যায়, ২০২০ সালে কতজন মারা গেছেন এবং ২০২১ সালে এসে তা কত, তাহলে একটা হিসাব পাওয়া যেতে পারে। বিষয়টি নিয়ে গবেষণার প্রয়োজন আছে। তিনমাসের একটি জরিপ করা হলে সঠিক তথ্য পাওয়া যেতে পারে।

এএএম/কেএসআর/এএসএ/জিকেএস

ডব্লিউএইচও’র মৃত্যুর হিসাব গণনার পদ্ধতি ঠিক আছে। তবে কোন তথ্যের ভিত্তিতে তারা পরিসংখ্যান তৈরি করেছে, সেই তথ্যের উৎস জানতে হবে। পার্শ্ববর্তী অন্যান্য দেশের তথ্যের সঙ্গে বাংলাদেশকে মিলিয়ে একই রকমভাবে তুলে ধরলে সেটা ঠিক হবে না।

ডব্লিউএইচও’র তথ্যের সঙ্গে একমত নন স্বাস্থ্যমন্ত্রী। এ বিষয়ে সরকার পরে আনুষ্ঠানিক ব্যাখ্যা দেবে বলেও জানান তিনি। এছাড়া প্রকাশিত প্রতিবেদন বিষয়ে পূর্ণাঙ্গ তথ্য সরকারের কাছে নেই বলেও জানান মন্ত্রী।

করোনার প্রভাবে দেশে কতজন মারা গেছেন, এই ধরনের তথ্য সরকারের হাতে নেই। যদি জানা যায়, ২০২০ সালে কতজন মারা গেছেন এবং ২০২১ সালে এসে তা কত, তাহলে একটা হিসাব পাওয়া যেতে পারে।

করোনা ভাইরাস - লাইভ আপডেট

৫৪,৮৬,৯২,৮৪৯
আক্রান্ত

৬৩,৫০,৩১৪
মৃত

৫২,৩৫,৭৬,৬৫৪
সুস্থ

# দেশ আক্রান্ত মৃত সুস্থ
বাংলাদেশ ১৯,৬৩,৪৯৩ ২৯,১৩৮ ১৯,০৬,৫১৯
মার্কিন যুক্তরাষ্ট্র ৮,৮৭,৭৭,৫৫৮ ১০,৪০,৭৯২ ৮,৪৪,৩০,৭৮৯
ভারত ৪,৩৩,৯১,৩৩১ ৫,২৪,৯৭৪ ৪,২৭,৬১,৪৮১
ব্রাজিল ৩,২০,৬১,৯৫৯ ৬,৭০,৪১৮ ৩,০৫,৬৬,০৮৮
ফ্রান্স ৩,০৫,১৩,৭১৩ ১,৪৯,৩১৭ ২,৯৪,৯২,২৮৯
জার্মানি ২,৭৭,৭১,১১১ ১,৪০,৭৩৪ ২,৬৪,০৬,১০০
যুক্তরাজ্য ২,২৫,৯২,৮২৭ ১,৭৯,৯২৭ ২,২১,১৪,৫৯৭
রাশিয়া ১,৮৪,১৫,৮৭৭ ৩,৮০,৮৩৭ ১,৭৮,৪২,৮০০
স্পেন ১,৮৩,৪৮,০২৯ ১,৫৯,৬০৫ ১,২১,৬১,৯৭৮
১০ দক্ষিণ কোরিয়া ১,৮৩,২৬,০১৯ ২৪,৫২২ ১,৮১,৬৩,৬৮৪
১১ ইতালি ১,৮১,৮৪,৯১৭ ১,৬৮,০৫৮ ১,৭৩,১৩,৩৮০
১২ তুরস্ক ১,৫০,৮৫,৭৪২ ৯৮,৯৯৬ ১,৪৯,৮৬,৩৪০
১৩ ভিয়েতনাম ১,০৭,৪২,৮৯১ ৪৩,০৮৪ ৯৬,৪২,৫১৪
১৪ আর্জেন্টিনা ৯৩,৪১,৪৯২ ১,২৯,০১৬ ৯১,৩৪,৪৮৩
১৫ জাপান ৯২,২৩,৯৪৪ ৩১,১০৭ ৯০,৫১,৮২৫
১৬ নেদারল্যান্ডস ৮১,৫২,৭৭৮ ২২,৩৫৪ ৮০,৫৮,৭৩৫
১৭ অস্ট্রেলিয়া ৭৯,৯২,৭৫৮ ৯,৬৭৮ ৭৭,২০,৫৯৯
১৮ ইরান ৭২,৩৬,০৬৪ ১,৪১,৩৮৩ ৭০,৬১,৫১৬
১৯ কলম্বিয়া ৬১,৫১,৩৫৪ ১,৩৯,৯৭০ ৫৯,৬৫,০৮৩
২০ ইন্দোনেশিয়া ৬০,৭৮,৭২৫ ১,৫৬,৭১৪ ৫৯,০৮,০৪৩
২১ পোল্যান্ড ৬০,১২,৯৭৯ ১,১৬,৪১৭ ৫৩,৩৫,৬৪১
২২ মেক্সিকো ৫৯,৫৬,৭৩২ ৩,২৫,৫৭৬ ৫১,৫০,৪৫৯
২৩ পর্তুগাল ৫১,২০,৯৭০ ২৪,০১৩ ৪৬,২৮,০৮৭
২৪ ইউক্রেন ৫০,১৫,৯৯৪ ১,০৮,৬২২ ৪৯,০৫,৯৩৫
২৫ মালয়েশিয়া ৪৫,৫৪,৬৬১ ৩৫,৭৪৫ ৪৪,৯০,৯০৬
২৬ থাইল্যান্ড ৪৫,১৪,১৫৫ ৩০,৫৯৫ ৪৪,৬০,২৫০
২৭ অস্ট্রিয়া ৪৩,৭৯,৭৬৪ ১৮,৭৫৮ ৪২,৭৬,৭৩৭
২৮ ইসরায়েল ৪২,৯৩,০৮২ ১০,৯২৬ ৪২,২৩,৩৭৮
২৯ বেলজিয়াম ৪২,১১,৫১১ ৩১,৮৮৩ ৪১,১৫,৬৮৫
৩০ দক্ষিণ আফ্রিকা ৩৯,৯১,৯৪৪ ১,০১,৭২৭ ৩৮,৭৬,৯৪৬
৩১ চিলি ৩৯,৪৮,০১২ ৫৮,৩৮৫ ৩৬,০৭,৫১৬
৩২ চেক প্রজাতন্ত্র ৩৯,২৮,৭৯৭ ৪০,৩১৩ ৩৮,৮৪,৯৬৯
৩৩ কানাডা ৩৯,২৬,৬১৩ ৪১,৮৬৫ ৩৫,৫৬,৩৭১
৩৪ সুইজারল্যান্ড ৩৭,০৮,৮৯১ ১৩,৯৭৯ ৩৬,৩৯,৪৩২
৩৫ ফিলিপাইন ৩৭,০০,০২৮ ৬০,৫০৭ ৩৬,৩৩,০৯৬
৩৬ পেরু ৩৬,১৩,৪৬৪ ২,১৩,৪৪৭ ৩৩,৭৭,৪৩৯
৩৭ গ্রীস ৩৬,০৭,৫৮০ ৩০,১৬২ ৩৪,৭৪,৩৯৫
৩৮ তাইওয়ান ৩৫,৭৩,৭০৩ ৬,১২০ ২৩,৯৮,৮৮৯
৩৯ ডেনমার্ক ৩০,০৫,৭০৭ ৬,৪৩৮ ২৯,৮৪,০৪২
৪০ রোমানিয়া ২৯,১৫,৪৮৭ ৬৫,৭২৬ ২৮,৪৬,৫৪০
৪১ সুইডেন ২৫,১৫,৭৬৯ ১৯,০৬০ ২৪,৮৯,১৬০
৪২ ইরাক ২৩,৩৮,১০৯ ২৫,২২৯ ২৩,০৫,৭৯৯
৪৩ সার্বিয়া ২০,২৫,৫৭৭ ১৬,১২০ ২০,০২,৭৭১
৪৪ হাঙ্গেরি ১৯,২৫,০৮৩ ৪৬,৬২৬ ১৮,৬৯,২৪৪
৪৫ স্লোভাকিয়া ১৭,৯৪,১১৩ ২০,১৪২ ১৭,৭০,৯৮২
৪৬ জর্ডান ১৬,৯৮,৩১৬ ১৪,০৬৮ ১৬,৮৩,৭৪৬
৪৭ জর্জিয়া ১৬,৫৯,৩৭১ ১৬,৮৩৯ ১৬,৩৭,২৯৩
৪৮ আয়ারল্যান্ড ১৫,৮৭,৩৮৫ ৭,৪৩৭ ১৫,৫২,৫০১
৪৯ পাকিস্তান ১৫,৩৩,৪৮২ ৩০,৪৩৬ ১৪,৯৮,৯৮১
৫০ নরওয়ে ১৪,৪৪,০৪৩ ৩,২৮০ ১৪,৩২,৮৩৮
৫১ সিঙ্গাপুর ১৪,০৩,২৪২ ১,৪০৮ ১৩,১১,৫৩৯
৫২ নিউজিল্যান্ড ১৩,০৮,৩৮৭ ১,৪১০ ১২,৭১,৯৮৬
৫৩ কাজাখস্তান ১৩,০৬,১৬৭ ১৩,৬৬৩ ১২,৯২,২৪৪
৫৪ হংকং ১২,৩৫,৯৬০ ৯,৩৯৮ ১২,০০,৫৩৩
৫৫ মরক্কো ১২,০২,৪৬১ ১৬,০৯৮ ১১,৬৭,৬৯৪
৫৬ বুলগেরিয়া ১১,৬৯,৯৬৮ ৩৭,২৪৬ ১০,৭১,৪২১
৫৭ ক্রোয়েশিয়া ১১,৪৫,০৫৩ ১৬,০৪৮ ১১,২৫,৪০৭
৫৮ ফিনল্যাণ্ড ১১,৩৩,৫৯৭ ৪,৮৩২ ৪৬,০০০
৫৯ লেবানন ১১,০৭,৬০২ ১০,৪৬০ ১০,৮৭,৫৮৭
৬০ কিউবা ১১,০৫,৮৯৬ ৮,৫২৯ ১০,৯৭,১৯৬
৬১ লিথুনিয়া ১০,৬৬,৩৮৬ ৯,১৬৫ ১০,৩৮,৩০০
৬২ তিউনিশিয়া ১০,৪৬,৭০৩ ২৮,৬৭০ ৯,৮৩,৬৩০
৬৩ স্লোভেনিয়া ১০,৩৪,৯৪৭ ৬,৬৪৮ ১০,২১,১৯৪
৬৪ বেলারুশ ৯,৮২,৮৬৭ ৬,৯৭৮ ৯,৩১,১৫০
৬৫ নেপাল ৯,৭৯,৫১২ ১১,৯৫২ ৯,৬৭,৩৭২
৬৬ উরুগুয়ে ৯,৫১,৯৪৮ ৭,৩১২ ৯,২৮,৩৭৩
৬৭ সংযুক্ত আরব আমিরাত ৯,৩৭,০৩৭ ২,৩১১ ৯,১৭,৫৮৩
৬৮ মঙ্গোলিয়া ৯,২৬,২৮২ ২,১৭৯ ৩,১৩,২৫৬
৬৯ বলিভিয়া ৯,১৯,৭৩৭ ২১,৯৫২ ৮,৮০,৫৬১
৭০ পানামা ৯,১৩,৯৩২ ৮,৩৪৬ ৮,৮৯,৭৫৮
৭১ কোস্টারিকা ৯,০৪,৯৩৪ ৮,৫২৫ ৮,৬০,৭১১
৭২ ইকুয়েডর ৯,০১,৭৩৯ ৩৫,৭০৫ ৪,৪৩,৮৮০
৭৩ গুয়াতেমালা ৮,৯৬,১৩৩ ১৮,৪৯১ ৮,৫১,৭৬৫
৭৪ লাটভিয়া ৮,৩২,৮৮৪ ৬,০০৮ ৮,২৪,০১৫
৭৫ আজারবাইজান ৭,৯৩,১৪০ ৯,৭১৭ ৭,৮৩,৩১৭
৭৬ সৌদি আরব ৭,৯০,৯৫৭ ৯,১৯৮ ৭,৭২,০০৪
৭৭ শ্রীলংকা ৬,৬৪,০৬৫ ১৬,৫২১ ৬,৪৭,০১৪
৭৮ প্যারাগুয়ে ৬,৫৫,৫৩২ ১৮,৯৬৩ ৬,২৪,৬৭৩
৭৯ কুয়েত ৬,৪১,৯৮৫ ২,৫৫৫ ৬,৩৪,৯১৪
৮০ বাহরাইন ৬,১৬,৫৮৮ ১,৪৯৮ ৬,০১,০২৩
৮১ মায়ানমার ৬,১৩,৫৫৩ ১৯,৪৩৪ ৫,৯২,৫২৮
৮২ ডোমিনিকান আইল্যান্ড ৬,০০,৪১০ ৪,৩৮৩ ৫,৯২,৩২৩
৮৩ ফিলিস্তিন ৫,৮৩,২৯৩ ৫,৩৫৬ ৫,৭৭,৫২৭
৮৪ এস্তোনিয়া ৫,৭৯,৩১৬ ২,৫৮৮ ৫,২১,৭৫৯
৮৫ ভেনেজুয়েলা ৫,২৫,৫৩৯ ৫,৭২৬ ৫,১৮,০২৯
৮৬ মলদোভা ৫,১৯,৭৪১ ১১,৫৬৩ ৫,০৪,১৪২
৮৭ মিসর ৫,১৫,৬৪৫ ২৪,৬১৩ ৪,৪২,১৮২
৮৮ লিবিয়া ৫,০২,১১০ ৬,৪৩০ ৪,৯০,৯৭৩
৮৯ সাইপ্রাস ৪,৯৭,৪৫৪ ১,০৭০ ১,২৪,৩৭০
৯০ ইথিওপিয়া ৪,৮৭,২১৭ ৭,৫৩০ ৪,৫৯,৩৫২
৯১ হন্ডুরাস ৪,২৬,৪৯০ ১০,৯০৪ ১,৩২,৪৪৪
৯২ আর্মেনিয়া ৪,২৩,১০৪ ৮,৬২৯ ৪,১২,৬৬১
৯৩ রিইউনিয়ন ৪,২১,২৬৯ ৮০৭ ৪,১৮,৫৭২
৯৪ ওমান ৩,৯০,২৪৪ ৪,২৬০ ৩,৮৪,৬৬৯
৯৫ কাতার ৩,৭৯,২৭৭ ৬৭৮ ৩,৭৩,৮২০
৯৬ বসনিয়া ও হার্জেগোভিনা ৩,৭৮,৪১৩ ১৫,৭৯৯ ১৫,৮১,১৬৪
৯৭ কেনিয়া ৩,৩১,৯৬৬ ৫,৬৫১ ৩,২২,২৪১
৯৮ জাম্বিয়া ৩,২৫,১১০ ৪,০০৩ ৩,১৯,৭২২
৯৯ বতসোয়ানা ৩,১৮,৫২৮ ২,৭১৯ ৩,০৯,১২৪
১০০ উত্তর ম্যাসেডোনিয়া ৩,১৩,৩৬০ ৯,৩২২ ৩,০৩,৪৯৮
১০১ আলবেনিয়া ২,৭৮,৭৯৩ ৩,৪৯৭ ২,৭৩,৬৫২
১০২ আলজেরিয়া ২,৬৬,০৩০ ৬,৮৭৫ ১,৭৮,৪৯৮
১০৩ নাইজেরিয়া ২,৫৬,৯৫৮ ৩,১৪৪ ২,৫০,১৭৭
১০৪ জিম্বাবুয়ে ২,৫৫,৩০৯ ৫,৫৪৯ ২,৪৮,১৮৭
১০৫ লুক্সেমবার্গ ২,৫৪,৬৯৭ ১,০৮৫ ২,৪৬,৬১০
১০৬ উজবেকিস্তান ২,৪০,২০৬ ১,৬৩৭ ২,৩৭,৮৫৭
১০৭ মন্টিনিগ্রো ২,৩৯,২৯১ ২,৭২৪ ২,৩৮,৪৭২
১০৮ মোজাম্বিক ২,২৭,৬১৬ ২,২১২ ২,২৪,৭৮৪
১০৯ চীন ২,২৫,৫২৬ ৫,২২৬ ২,১৯,৭১৪
১১০ লাওস ২,১০,২৩৮ ৭৫৭ ৭,৬৬০
১১১ কিরগিজস্তান ২,০১,০২৪ ২,৯৯১ ১,৯৬,৪০৬
১১২ আইসল্যান্ড ১,৯২,৯৯১ ১৫৩ ৭৫,৬৮৫
১১৩ মার্টিনিক ১,৯২,৫০৬ ৯৫৭ ১০৪
১১৪ আফগানিস্তান ১,৮২,০৭২ ৭,৭১৭ ১,৬৪,০৪০
১১৫ মালদ্বীপ ১,৮০,৩৮৪ ৩০০ ১,৬৩,৬৮৭
১১৬ এল সালভাদর ১,৬৯,৬৪৬ ৪,১৩৯ ১,৫৯,৯৯৩
১১৭ নামিবিয়া ১,৬৯,০৭৬ ৪,০৬১ ১,৬৪,৪৫২
১১৮ উগান্ডা ১,৬৭,৩৬৭ ৩,৬২০ ১,০০,৩৯৫
১১৯ ত্রিনিদাদ ও টোবাগো ১,৬৬,৬৮২ ৪,০০০ ১,৫৫,৮০৮
১২০ গুয়াদেলৌপ ১,৬৬,৪২৪ ৯৫০ ২,২৫০
১২১ ঘানা ১,৬৪,৮৪৩ ১,৪৪৮ ১,৬১,৯৭৮
১২২ ব্রুনাই ১,৫৮,৫২৪ ২২৫ ১,৫৩,৮৮৭
১২৩ জ্যামাইকা ১,৪২,১৬১ ৩,১১২ ৯০,৩৮৭
১২৪ কম্বোডিয়া ১,৩৬,২৬২ ৩,০৫৬ ১,৩৩,২০৬
১২৫ রুয়ান্ডা ১,৩০,৭৮৭ ১,৪৫৯ ৪৫,৫২২
১২৬ ক্যামেরুন ১,২০,০০২ ১,৯৩০ ১,১৭,৭৯১
১২৭ মালটা ১,০০,৫৯৪ ৭৪০ ৯৪,৭৯২
১২৮ অ্যাঙ্গোলা ৯৯,৭৬১ ১,৯০০ ৯৭,১৪৯
১২৯ ড্যানিশ রিফিউজি কাউন্সিল ৯১,০৮২ ১,৩৭১ ৫০,৯৩০
১৩০ ফ্রেঞ্চ গায়ানা ৮৬,৯১১ ৪০১ ১১,২৫৪
১৩১ মালাউই ৮৬,৩৪৮ ২,৬৪৫ ৮২,৯৭৯
১৩২ সেনেগাল ৮৬,২৭৫ ১,৯৬৮ ৮৪,২৬৯
১৩৩ বার্বাডোস ৮৩,৬৬৩ ৪৭৩ ৮২,১২৪
১৩৪ আইভরি কোস্ট ৮২,৯৯৯ ৮০৫ ৮২,০০২
১৩৫ সুরিনাম ৮০,৮১৭ ১,৩৫৯ ৪৯,৫৬১
১৩৬ চ্যানেল আইল্যান্ড ৭৯,১১৭ ১৭৮ ৭৭,৪৭৪
১৩৭ ফ্রেঞ্চ পলিনেশিয়া ৭৩,২৩৪ ৬৪৯ ৩৩,৫০০
১৩৮ ইসওয়াতিনি ৭৩,০৭১ ১,৪১৫ ৭১,৬২২
১৩৯ গায়ানা ৬৭,০৫৮ ১,২৫১ ৬৪,৮৩৩
১৪০ ফিজি ৬৫,৪৬৫ ৮৬৫ ৬৩,৫৮০
১৪১ মাদাগাস্কার ৬৫,০০৯ ১,৩৯৮ ৬৩,১৩৩
১৪২ নিউ ক্যালেডোনিয়া ৬৩,৩৭৯ ৩১৩ ৬২,৩৯৩
১৪৩ বেলিজ ৬৩,০৩৭ ৬৭৯ ৬১,৩৪৪
১৪৪ সুদান ৬২,৫৫১ ৪,৯৫১ ৪০,৩২৯
১৪৫ ভুটান ৫৯,৬৭৪ ২১ ৫৯,৬২৭
১৪৬ মৌরিতানিয়া ৫৯,৪২৮ ৯৮২ ৫৮,২৬৪
১৪৭ কেপ ভার্দে ৫৯,২৬৫ ৪০৩ ৫৭,৭০২
১৪৮ সিরিয়া ৫৫,৯২০ ৩,১৫০ ৫২,৭৫২
১৪৯ গ্যাবন ৪৭,৮২৪ ৩০৫ ৪৭,৩৪৩
১৫০ পাপুয়া নিউ গিনি ৪৪,৭০২ ৬৬২ ৪৩,৯৮২
১৫১ সিসিলি ৪৪,৫২১ ১৬৭ ৪৩,৯০৫
১৫২ কিউরাসাও ৪৪,১২৭ ২৭৭ ৪৩,৫৬৭
১৫৩ এনডোরা ৪৩,৭৭৪ ১৫৩ ৪৩,১৯২
১৫৪ বুরুন্ডি ৪২,৫৪২ ৩৮ ৭৭৩
১৫৫ আরুবা ৪০,৫৯৫ ২২১ ৩৯,৯০৫
১৫৬ মরিশাস ৩৮,৪২৭ ১,০০২ ৩৬,৬৯২
১৫৭ মায়োত্তে ৩৭,৫২৩ ১৮৭ ২,৯৬৪
১৫৮ টোগো ৩৭,৩২৮ ২৭৫ ৩৬,৯৬৬
১৫৯ গিনি ৩৬,৫৯৭ ৪৪২ ৩৬,১১৩
১৬০ বাহামা ৩৫,৮১৪ ৮১৬ ৩৪,১২১
১৬১ তানজানিয়া ৩৫,৩৬৬ ৮৪১ ১৮৩
১৬২ ফারে আইল্যান্ড ৩৪,৬৫৮ ২৮ ৭,৬৯৩
১৬৩ লেসোথো ৩৩,৯৩৮ ৬৯৯ ২৪,১৫৫
১৬৪ আইল অফ ম্যান ৩৩,৮২১ ১০৮ ২৬,৭৯৪
১৬৫ হাইতি ৩১,৩০১ ৮৩৭ ২৯,৮২০
১৬৬ মালি ৩১,১৫৩ ৭৩৭ ৩০,৩২৩
১৬৭ কেম্যান আইল্যান্ড ২৭,১৭১ ২৮ ৮,৫৫৩
১৬৮ বেনিন ২৭,১২২ ১৬৩ ২৫,৫০৬
১৬৯ সেন্ট লুসিয়া ২৬,৯১১ ৩৮০ ২৬,৩৯৮
১৭০ সোমালিয়া ২৬,৭৪৮ ১,৩৫০ ১৩,১৮২
১৭১ কঙ্গো ২৪,১২৮ ৩৮৫ ২০,১৭৮
১৭২ পূর্ব তিমুর ২২,৯৫০ ১৩৩ ২২,৮০৯
১৭৩ সলোমান আইল্যান্ড ২১,২৩৭ ১৪৯ ১৬,৩৫৭
১৭৪ বুর্কিনা ফাঁসো ২০,৮৫৩ ৩৮২ ২০,৪৩৯
১৭৫ জিব্রাল্টার ১৯,৩০৬ ১০৪ ১৬,৫৮৩
১৭৬ নিকারাগুয়া ১৮,৪৯১ ২২৫ ৪,২২৫
১৭৭ গ্রেনাডা ১৮,২৭০ ২৩২ ১৭,৯২০
১৭৮ লিচেনস্টেইন ১৭,৮১৪ ৮৫ ১৭,৫৯৪
১৭৯ সান ম্যারিনো ১৭,৭১৯ ১১৫ ১৭,২৬৪
১৮০ দক্ষিণ সুদান ১৭,৬৯৭ ১৩৮ ১৫,৬৩০
১৮১ তাজিকিস্তান ১৭,৩৮৮ ১২৪ ১৭,২৬৪
১৮২ ইকোয়েটরিয়াল গিনি ১৫,৯৯৫ ১৮৩ ১৫,৭৩৯
১৮৩ বারমুডা ১৫,৯৫৭ ১৩৮ ১৫,৫৬৮
১৮৪ জিবুতি ১৫,৬৯০ ১৮৯ ১৫,৪২৭
১৮৫ সামোয়া ১৪,৮১২ ২৯ ১,৬০৫
১৮৬ ডোমিনিকা ১৪,৭৮১ ৬৭ ১৪,৪৫০
১৮৭ সেন্ট্রাল আফ্রিকান রিপাবলিক ১৪,৬৪৯ ১১৩ ৬,৮৫৯
১৮৮ মোনাকো ১২,৮০৮ ৫৭ ১২,৫৮১
১৮৯ টাঙ্গা ১২,০৭৯ ১২ ১১,৮২১
১৯০ গাম্বিয়া ১২,০০২ ৩৬৫ ১১,৫৯১
১৯১ গ্রীনল্যাণ্ড ১১,৯৭১ ২১ ২,৭৬১
১৯২ ইয়েমেন ১১,৮২৪ ২,১৪৯ ৯,১০৮
১৯৩ ভানুয়াতু ১১,০২৬ ১৪ ১০,৮৩৯
১৯৪ সেন্ট মার্টিন ১০,৬৬৮ ৬৩ ১,৩৯৯
১৯৫ সিন্ট মার্টেন ১০,৫৩৭ ৮৬ ১০,৪২৭
১৯৬ ক্যারিবিয়ান নেদারল্যান্ডস ১০,৩০২ ৩৫ ১০,২২২
১৯৭ ইরিত্রিয়া ৯,৭৮৮ ১০৩ ৯,৬৭৪
১৯৮ নাইজার ৯,০৩১ ৩১০ ৮,৬২৮
১৯৯ অ্যান্টিগুয়া ও বার্বুডা ৮,৬২৫ ১৪১ ৮,৪২৬
২০০ গিনি বিসাউ ৮,৩৪৮ ১৭১ ৮,১০৫
২০১ কমোরস ৮,১০০ ১৬০ ৭,৯৩৩
২০২ সিয়েরা লিওন ৭,৬৯৩ ১২৫ ৪,৩৯৩
২০৩ লাইবেরিয়া ৭,৪৯৩ ২৯৪ ৫,৭৪৭
২০৪ চাদ ৭,৪২৪ ১৯৩ ৪,৮৭৪
২০৫ সেন্ট ভিনসেন্ট ও গ্রেনাডাইন আইল্যান্ড ৭,০১২ ১১১ ৬,৬৪১
২০৬ ব্রিটিশ ভার্জিন দ্বীপপুঞ্জ ৬,৯৪১ ৬৩ ২,৬৪৯
২০৭ টার্কস্ ও কেইকোস আইল্যান্ড ৬,২১১ ৩৬ ৬,১২৮
২০৮ সেন্ট কিটস ও নেভিস ৫,৯৪১ ৪৩ ৫,৮৩২
২০৯ কুক আইল্যান্ড ৫,৭৬৮ ৫,৭৪০
২১০ পালাও ৫,২০১ ৪,৫৫৫
২১১ সেন্ট বারথেলিমি ৪,৬৩০ ৪৬২
২১২ এ্যাঙ্গুইলা ৩,৪১১ ৩,৩৭৬
২১৩ কিরিবাতি ৩,২৩৬ ১৩ ২,৬৬৫
২১৪ সেন্ট পিয়ের এন্ড মিকেলন ২,৭৬৭ ২,৪৪৯
২১৫ ফকল্যান্ড আইল্যান্ড ১,৮০৭ ৬৮
২১৬ নাউরু ১,৪৮৪ ১২
২১৭ মন্টসেরাট ১,০১৬ ১,০০৭
২১৮ ডায়মন্ড প্রিন্সেস (প্রমোদ তরী) ৭১২ ১৩ ৬৯৯
২১৯ ওয়ালিস ও ফুটুনা ৪৫৪ ৪৩৮
২২০ ম্যাকাও ১২৯ ৮৩
২২১ ভ্যাটিকান সিটি ২৯ ২৯
২২২ মার্শাল আইল্যান্ড ১৮ ১৮
২২৩ পশ্চিম সাহারা ১০
২২৪ নিউয়ে ১০
২২৫ জান্ডাম (জাহাজ)
২২৬ টুভালু
২২৭ সেন্ট হেলেনা
তথ্যসূত্র: চীনের জাতীয় স্বাস্থ্য কমিশন (সিএনএইচসি) ও অন্যান্য।
করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]