মে’র মাঝামাঝি মাঠে ফেরার আশায় তামিম

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৬:৪০ পিএম, ০৩ এপ্রিল ২০১৮

ক্রিকেট তার ধমনিতে। মাঠ তাকে টানে। তাই তো প্রায় প্রতিদিন কোন না কোন এক সময় চলে আসেন শেরে বাংলায়। সেটা যে শুধু পূনর্বাসনের জন্য, তা নয়। ক্রিকেটের টানে এবং ভালবাসায় হোম অব ক্রিকেটে আসেন তামিম ইকবাল। এসে সময় কাটান ক্রিকেটারদের সঙ্গে। সাংবাদিকদের সঙ্গে আড্ডা দেন।

আজও (মঙ্গলবার) হোম অব ক্রিকেটের সবুজ চত্বরে দেখা মিললো তামিম ইকবালের। উপস্থিত সাংবাদিকদের সাথে অনেক প্রাণখোলা আলাপও জমিয়ে তুললেন। যার প্রথম অংশ জুড়ে ছিল তার ইনজুরির বর্তমান হাল হাকিকত ও রিহ্যাব এবং মাঠে ফেরার প্রসঙ্গ।

আগেই জানা, চিকিৎসকরা তাকে চার থেকে ছয় সপ্তাহর মত বিশ্রাম দিয়েছেন। তারপরও তামিমভক্ত এবং বাংলাদেশ সমর্থকদের সবাই জানতে উন্মুখ- হাঁটুর ইনজুরি কাটিয়ে কবে মাঠে ফিরবেন তামিম? আজ সাংবাদিকদের সাথে আলাপের শুরুতেও তাকে এমন প্রশ্নের মুখোমুখি হতে হলো।

কবে নাগাদ মাঠে ফিরতে পারেন? জবাবে তামিম যা বললেন, তার সারমর্ম হলো- সম্পূর্ণ সেরে উঠতে আরও ছয় সপ্তাহের মত সময় লাগবে। আর রিহ্যাব শেষে মাঠে ফিরতে ফিরতে মে মাসের মাঝামাঝি ।

তিনি বলেন, ‘সবাই নিশ্চয় এর মধ্যেই জেনে গেছেন যে, আমার পুরোপুরি সুস্থ হতে চার থেকে ছয় সপ্তাহ সময় লাগবে। পূণর্বাসন প্রক্রিয়ার আজ তিন বা চার নম্বর দিন গেলো। প্রতিদিনই কিছু না কিছু কাজ থাকছে । হয়তো ট্রিটমেন্ট চলে বা পুণর্বাসন প্রক্রিয়া চলে। পুরো সময় কাটিয়ে যদি সুস্থ হতে পারি, তাহলে ইনজুরির জায়গাগুলো শক্তভাবে নতুন করে তৈরি হবে। সেটা ভালো হবে। কারণ একবার খেলা শুরু হলে বিরতিহীনভাবে চলতে থাকবে। অনেকগুলো খেলা আছে। এ কারণে সময়টা গুরুত্বপূর্ণ। এখন যদি ঠিকভাবে রিকভার করতে পারি, তাহলে সামনে আর সমস্যা হবে না।’

আগামী জুন মাসে আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজ। এরপর পরই ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর। তার আগে মাঠে ফেরার ব্যাপারে তামিম যারপরনাই আশাবাদী। তাই তো মুখে এমন কথা- ‘আশা করছি সময় মত ফিট হয়ে যাবো। খেলাতো জুন মাসে। মে মাসের সাত-আট তারিখের দিকে আমার পুণর্বাসন শেষ হবে। তারপর ১০-১২ তারিখের দিকে ক্যাম্প হবে। আশার কথা হলো, হাতে অনেক সময় আছে। আশা করি আফগানিস্তান সিরিজের আগেই পুরোপুরি রিকভার করে নিতে পারবো।’

এআরবি/আইএইচএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :