অজিতের ‘নেতিবাচক’ মন্তব্যে মাশরাফির পাশে দাঁড়ালেন নাফীস

ক্রীড়া প্রতিবেদক ক্রীড়া প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ১০:৫২ এএম, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৮

গ্রুপ পর্বে নিজেদের শেষ ম্যাচে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ১৩৬ রানের শোচনীয়ভাবে হেরেছে বাংলাদেশ। যার ফলে গ্রুপে দ্বিতীয় হয়েই সুপার ফোরের ম্যাচ খেলতে নামবে টাইগাররা। আফগানদের বিপক্ষে পরাজয়ের পরই চারদিক থেকে ধেয়ে আসছে সমালোচনা, প্রশ্নবিদ্ধ হচ্ছে মাশরাফিদের ম্যাচ পরিকল্পনা।

ম্যাচে টসে জিতে আগে ব্যাট করতে নেমে চল্লিশ ওভার পর্যন্ত বাংলাদেশি বোলারদের বিপক্ষে দাঁড়াতেই পারেনি আফগান ব্যাটসম্যানরা। অষ্টম উইকেটে ৯৫ রানের গুটি গড়ে ম্যাচ নিজেদের দিকে নিয়ে নেন রশিদ খান ও গুলবদিন নাইব। টাইগার অধিনায়ক মাশরাফি নিজেও মেনে নিয়েছেন মূলত আফগান ব্যাটিংয়ের শেষ দশ ওভারেই পিছিয়ে গেছে বাংলাদেশ।

পরে ব্যাট হাতে রশিদ-মুজিবদের বোলিংয়ের কোন জবাবই দিতে পারেনি বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা। অলআউট হয়েছে মাত্র ১১৯ রানে। চলতি বছরে এ নিয়ে বাংলাদেশের তৃতীয়বারের মতো দেড়শ’র নিচে অলআউট হওয়ার ঘটনা এটি। ম্যাচ শেষে টাইগারদের এ পারফরম্যান্স নিয়ে হয়েছে নানান বিশ্লেষণ।

যেখানে মোটা দাগে প্রশ্নের নিচে আনা হয়েছে মাশরাফির অধিনায়কত্ব ও শেষ দশ ওভারের বোলিংকে। সাধারণত শেষের দিকে খুব একটা বোলিং করেন না টাইগার অধিনায়ক। তবে আফগানদের বিপক্ষে ম্যাচে মুস্তাফিজ না থাকায় ডেথ বোলিংটা সামাল দিতে হয়েছে তাকেই। রান দিয়েছেন দেদারসে। তার করা শেষ দুই ওভারেই আফগানরা পেয়েছে ৩৬ রান। আর এতেই যেন নিন্দুকরা পেয়ে গেছে সমালোচনার রসদ।

জনপ্রিয় ক্রিকেট ওয়েবসাইট ‘ইএসপিএন ক্রিকইনফো’ ম্যাচ শেষে আয়োজন করে ম্যাচ সেন্টার নামক অনুষ্ঠানের। সেখানে ভারতের সাবেক পেসার অজিত আগারকার সরাসরি প্রশ্ন তোলে মাশরাফির দলে থাকার যোগ্যতা নিয়েই। তার মতে শুধুমাত্র দলের সবাইকে আগলে রাখার কারণে যদি মাশরাফি দলে সুযোগ পান তবে সেটা মোটেও ভালো কিছু নয়। অজিতের মতে দলের নেতৃত্ব দিতে হলে পারফরম্যান্স করতে হবে সামনে থেকে।

তিনি বলেন, ‘রশিদ ও নাইব শেষের দিকে মাশরাফিকে বেধড়ক পিটিয়েছে। যদি তার দলে থাকার কারণ এটা হয় যে সে দলকে একত্র করে রাখে এবং মেন্টরের ভূমিকা পালন করে, আমি এই বিষয়ে নিশ্চিত নই। আমি সবসময় বিশ্বাস করে এসেছি, আপনি দলের নেতা হলে আপনাকে অবশ্যই দলের অন্যতম সেরা পারফর্মার হতে হবে। মাশরাফির এমন পারফরম্যান্স এটা এটা সমর্থন করে না।’

অনুষ্ঠানে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স আলোচনা করতে যুক্ত ছিলেন বাংলাদেশ দলের ক্রিকেট শাহরিয়ার নাফীসও। তিনি সরাসরি ভুল ধরিয়ে দেন অজিতের। কেননা অধিনায়কত্ব পাওয়ার পর এখনো পর্যন্ত মাশরাফির অধীনে ৫৯ ম্যাচ খেলেছে বাংলাদেশ। এই ৫৯ ম্যাচে বাংলাদেশের জয় ৩৩ ম্যাচে আর মাশরাফির উইকেট ৭৯টি। যা কিনা দেশের অন্য যেকোনো পেসারের চেয়ে বেশি।

অর্থাৎ শুধু দলকে এক করে রাখা নয়, নিজের পারফরম্যান্স গুণেই দলে নিজের জায়গা ধরে রেখেছেন মাশরাফি। এই ব্যাপারটিই অজিতকে বুঝিয়ে দেন নাফীস। একইসাথে মাশরাফি ফুল হাতা জার্সি পরে খেলতে নামায় যে শুরু থেকেই বোঝা গেছে পরিকল্পনায় কিছু পরিবর্তন আছে বাংলাদেশের, সেটিও তুলে ধরেন নাফীস।

তিনি বলেন, ‘খেলা শুরু হওয়ার পর মাশরাফিকে ফুল হাতা জার্সি পরিহিত অবস্থায় দেখার পরেই বুঝেছিলাম, সে আজ ওপেনিংয়ে বল করবে না। সে সাধারণত নতুন বলে বল করে এবং ৪০ ওভারের মধ্যেই নিজের কোটা শেষ করে। বাংলাদেশ এ ম্যাচে ভিন্ন কিছু চেষ্টা করেছে। রুবেল, রনিদের দিয়ে শুরুতে বোলিং করিয়েছে। মাশরাফি পরে বল করেছে। আজিতের সাথে আমি একটি পয়েন্টে দ্বিমত পোষন করছি। গত কয়েক বছর ধরে বল হাতে বাংলাদেশের সেরা পারফরমারের নাম মাশরাফি। এমন না যে সে দলের মেন্টর হিসেবেই দলে আছে। নিজের পারফরম্যান্স দিয়েই সে দলে আছে।’

এসএএস/এমএস

আপনার মতামত লিখুন :