ওয়াসিম জাফরকে ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে পেতে চায় বিসিবি

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ১১:৪৩ এএম, ২৪ এপ্রিল ২০১৯

ঐতিহ্যবাহী ক্লাব আবাহনী লিমিটেডের হয়ে খেলা ওয়াসিম জাফরকে বাংলাদেশ ক্রিকেটে ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে পেতে চায় বিসিবি। ভারতের এই সাবেক টেস্ট ক্রিকেটারকে জাতীয় দল, 'এ' দল, অনূর্ধ্ব-১৯, ১৭ এবং এইচপির (হাইপারফরম্যান্স ইউনিট) ব্যাটিং উপদেষ্টা হিসেবে নিয়োগের সিদ্ধান্ত হয়েছে।

বোর্ডের পক্ষ থেকে ওয়াসিম জাফরের কাছে প্রস্তাব দেয়া হয়েছে। বিসিবির পরিচালক ও গেম ডেভেলপমেন্ট চেয়ারম্যান খালেদ মাহমুদ সুজন এবং আরেক পরিচালক ও লজিস্টিক কমিটির প্রধান ইসমাইল হায়দার মল্লিক জাগো নিউজকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

বিসিবির এই দুই পরিচালক জানান, বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড অনেক ভেবেচিন্তেই অভিজ্ঞ ওয়াসিম জাফরকে ব্যাটিং কনসালটেন্ট নিয়োগের সিদ্ধান্ত নিয়েছে।

সাধারণত টিম বাংলাদেশের ভিনদেশি কোচিং স্টাফ এবং এইচপির বিদেশি কোচরা একটা নির্দিষ্ট সময় ছাড়া কোচিং করান না। তবে বিসিবি ওয়াসিম জাফরকে বছরে ১৮০ দিন কাজ করার মতো দীর্ঘমেয়াদি একটি চুক্তিতে আনতে যাচ্ছে।

এই বিষয়ে আজ-কালের মধ্যেই হয়তো একটা আনুষ্ঠানিক ঘোষণা পাওয়া যাবে। দুই পক্ষের মধ্যে আলাপ আলোচনা করেই বাকি বিষয়গুলো চূড়ান্ত করা হবে।

মঙ্গলবার বিকেএসপিতে ছক্কার রেকর্ড ও লিস্ট 'এ' ক্রিকেটে বাংলাদেশের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির ইতিহাস গড়েন সৌম্য সরকার। অফফর্মের জন্য তুমুল সমালোচনার মুখেই আগের ম্যাচেও সেঞ্চুরি পেয়েছিলেন এই বাঁহাতি। ডাবল সেঞ্চুরির পর নিজের ব্যাটিংয়ের এই সাফল্যের জন্য ওয়াসিম জাফরের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন সৌম্য।

তিনি জানান, টেকনিক্যাল কাজ না করলেও ওয়াসিম জাফরের কাছ থেকে লম্বা ইনিংস খেলা এবং শারীরিক মানসিক প্রস্তুতির বিষয়গুলো নিয়ে কথা বলেছিলেন। সেটাই সম্ভবত বড় কাজ দিয়েছে।

বিসিবি পরিচালক খালেদ মাহমুদ সুজন জাগো নিউজকে জানান, সৌম্যর মধ্যে একটা প্রবণতা ছিল আগে থেকেই কি শট খেলবে তা ঠিক করে রাখা। এছাড়া পায়ের কাজে কিছুটা সমস্যা ছিল। সেগুলোর বিষয়ে তার সঙ্গে কথা বলেছেন ওয়াসিম জাফর। তারপরের বদলে যাওয়াটা তো মাঠেই দেখা গেল।

এমন একজন অভিজ্ঞ ব্যাটসম্যানকে বাংলাদেশ ক্রিকেটে কাজে লাগাতে পারলে তো মন্দ হবে না!

এআরবি/এমএমআর/এমকেএইচ

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]