বাংলাদেশের টিম হোটেল এখন যেন ‘ভাঙা হাট’!

আরিফুর রহমান বাবু
আরিফুর রহমান বাবু আরিফুর রহমান বাবু , বিশেষ সংবাদদাতা বার্মিংহাম থেকে
প্রকাশিত: ০৭:১১ পিএম, ২৬ জুন ২০১৯

আগেই জানা, আফগানিস্তানকে হারানোর পর ভারতের সাথে ২ জুলাই খেলার আগে যে আটদিন বিরতি, তার পাঁচদিন ছুটি টাইগারদের। সেই ছুটিতে কোনো বাধ্যবাধকতা নেই। যে যার মতো ঘুরে বেড়াতে পারবেন, তা বলাই আছে। ৩০ জুন থেকে এজবাস্টনে আবার প্র্যাকটিস।

এই ছুটি পেয়ে ক্রিকেটাররা এখন মুক্ত বিহঙ্গ। এখন বার্মিংহামের হায়াত রিজেন্সি পাঁচতারকা টিম হোটেলে সে অর্থে প্রাণচাঞ্চল্য নেই। কারণ ১৫ জনের বহরের বড় অংশ হোটেল তথা বার্মিংহামের বাইরে। বেশির ভাগই লন্ডনে। নিজ নিজ আত্মীয়-পরিজন, বন্ধুদের সাথে সময় কাটাচ্ছেন।

দলের ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজন আজ সকালে জানান, অধিনায়ক মাশরাফি বিন মর্তুজা, মুশফিকুর রহীম আর কাফ মাসলের ইনজুরি কাটিয়ে ওঠার সংগ্রামে ব্যস্ত মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ছাড়া সিনিয়রদের প্রায় সবাই বার্মিংহামের বাইরে কাটাবেন।

শুধু সৌম্য সরকার আর মেহেদী হাসান মিরাজ আজ (বুধবার) সকালে ছিলেন। তাদেরও বেরিয়ে পড়ার কথা। মোসাদ্দেক হোসেন, লিটন দাস ও অন্যরা আগেই ঘুরতে গেছেন বার্মিংহামের বাইরে। ফিরতে ফিরতে ২-৩ দিন।

শুধু ক্রিকেটারদের কথা বলা কেন? ম্যানেজার খালেদ মাহমুদ সুজনও আজ সকালে নাস্তা সেরে ঘুরতে বেরিয়েছেন। সাথে মিডিয়া ম্যানেজার রাবিদ ইমাম, ক্রিকেট অপারেশন্স ম্যানেজার সাব্বির খান।

ম্যানেজার সুজনও লন্ডন যাবেন ঘুরতে। বার্মিংহাম থেকে লন্ডন খুব কাছে। গাড়ি ও বাসে সর্বোচ্চ দেড় ঘণ্টার পথ। যে কারণে সবাই ঘুরতে ও অবকাশ কাটাতে এবং কেনাকাটা সারতে লন্ডনকেই বেছে নিয়েছেন।

প্রসঙ্গত, দলের প্রাণভোমরা সাকিব আল হাসানও এখন লন্ডনে। শুরুতে সপরিবারে ফ্রান্স ও সুইজারল্যান্ড ঘুরতে যাওয়ার কথা থাকলেও পরে আর যাননি তিনি।

এছাড়া প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদীন নান্নুও গতকালই সাউদাম্পটন থেকে লন্ডনে আত্মীয়র বাসায় চলে গেছেন। এ প্রতিবেদকের সাথে আলাপে কাল (মঙ্গলবার) বিকেলে নান্নু তা জানিয়েছেন। তারও ফিরতে ফিরতে ২৯ জুন।

বলা যায়, বার্মিংহামে বাংলাদেশের টিম হোটেল এখন ভাঙা হাট। আবার প্রাণচাঞ্চল্য ফিরতে ২৯ জুন বিকেল বা সন্ধ্যা। কারণ ২ জুলাই ভারতের সাথে ম্যাচের দুদিন আগে ৩০ জুন থেকে আবার প্র্যাকটিস।

এআরবি/এমএমআর/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :