ট্রফি ভাগাভাগি করাটাই হতো সঠিক কাজ!

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৭:৪৯ পিএম, ১৬ জুলাই ২০১৯

বিশ্বকাপ শেষ হয়েছে দুই দিন হলো; কিন্তু রেশ রয়ে গেছে এখনো। নাটকীয়তাপূর্ণ সেই ফাইনাল ম্যাচটি নিয়ে এখনো চলছে আলোচনা-সমালোচনা। ইংল্যান্ডের চ্যাম্পিয়ন হওয়াটা কি ঠিক ছিল নাকি ভুল এনিয়ে তর্ক-বিতর্ক লেগেই আছে; কিন্তু যে যাই বলুক, ঘটে যাওয়া বিষয়টিকে তো বদলানোর সামর্থ্য যে কারও নেই সেটা সবাই জানে।

নিঃসন্দেহে এমন ম্যাচ আর দেখেনি ক্রিকেট বিশ্ব। নির্ধারিত ম্যাচ টাই হওয়ায় ফল মীমাংসার জন্য সুপার ওভারে গড়ায় খেলা। সেখানেও জয়ী দল নির্ধারণ করা গেল না। শেষ পর্যন্ত বাউন্ডারি ব্যবধানে এগিয়ে থাকায় প্রথমবারের মতো চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করা হয় ইংল্যান্ডকে। এমন একটি নিয়মের মাধ্যমে জয়ী দল ঘোষণা করা হবে সেটা হয়তো সবার চিন্তার বাইরে ছিল।

মাত্র এক রান দূরে থাকার কারণে শিরোপা থেকে বঞ্চিত হতে হয় নিউজিল্যান্ডকে। আর এই ব্যাপারটা কোনোভাবেই মানতে পারছেন না নিউজিল্যান্ড কোচ গ্যারি স্টিড। তার মতে, যুগ্ম ভাবে চ্যাম্পিয়ন ঘোষণা করাটাই সঠিক সিদ্ধান্ত ছিল।

Super-Over

তিনি বলেন, ‘যখন সাত সপ্তাহ ধরে অনুষ্ঠিত হওয়া একটি টুর্নামেন্টে ফাইনাল ম্যাচেও দুই দলকে আলাদা করা যায়নি। তখন যুগ্মভাবে চ্যাম্পিয়ন করার বিষয়টা বিবেচনা করা যেত। পুরো টুর্নামেন্ট পর্যালোচনা করা হবে এবং এটা করার জন্য এখনই ভালো সময়।’

নিউজিল্যান্ডের এই কোচের সঙ্গে একমত দেশটির সাবেক ক্রিকেটার ক্রেইগ ম্যাকমিলানও। তিনি বলেন, ‘গতকালকের (রোববারের) ফলাফল বদলানো যাবে না। তবে এটা পরিস্কারভাবে বলতে চাই, সাত সপ্তাহ ধরে চলা একটি টুর্নামেন্টে যখন ৫০ ওভারেও দুটি দলকে আলাদা করা গেল না। তার উপর সুপার ওভারে একই ফলাফল আসল। তখন ট্রফি ভাগাভাগি করাটাই ছিল সঠিক কাজ। যেটা হয়নি গতকাল। যা হতাশ করেছে আমাদের সবাইকে; কিন্তু এটাই খেলা আর সেগুলো নিয়মের অংশ।’

এএইচএস/আইএইচএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]