প্রথম সমকামী ক্রিকেটার হিসেবে মা হতে চলেছেন তিনি

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩৫ এএম, ২১ আগস্ট ২০১৯

ক্রিকেট দুনিয়ায় সমকামী সম্পর্কের উদাহরণ রয়েছে বেশ কিছু। যার বেশিরভাগই নারী ক্রিকেটে। এদের মধ্যে অন্যতম নিউজিল্যান্ড নারী ক্রিকেট দলের অধিনায়ক অ্যামি স্যাটারওয়েট এবং ডানহাতি পেসার লিয়া তাহুহু। ২০১৪ সালে বাগদান করার পর ২০১৭ সালে বিবাহ বন্ধনে আবদ্ধ হন নিউজিল্যান্ডের এ দুই নারী ক্রিকেটার।

এবার প্রথম সমকামী ক্রিকেটার হিসেবে মা হতে চলেছেন স্যাটারওয়েট। এছাড়া প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে তাকে সবেতনে মাতৃত্বকালীন ছুটি দিয়েছে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ড। সমকামী সম্পর্কের অন্যতম উদাহরণ এ দম্পতি। নিজেদের দাম্পত্য জীবনে সর্বদা সুখী তাহুহু ও স্যাটারওয়েট। এবার তাদের কোলজুড়ে আসার অপেক্ষায় রয়েছে ফুটফুটে সন্তান।

আগামী জানুয়ারিতে প্রথম সন্তানের জন্ম দেবেন স্যাটারওয়েট। সেজন্য এরই মধ্যে ক্রিকেট থেকে অনির্দিষ্টকালের জন্য বিরতি নিয়েছেন কিউই অধিনায়ক। ফেরার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন ২০২১ সালে ঘরের মাঠে হতে যাওয়া নারী বিশ্বকাপের মধ্য দিয়ে। ততদিন পর্যন্ত মাতৃত্বকালীন ছুটিতে থাকবেন তিনি। এসময় বোর্ডের বেতন-ভাতাসহ সকল সুবিধাদি ভোগ করতে পারবেন স্যাটারওয়েট।

নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট স্যাটারওয়েটকে মাতৃত্বকালীন ছুটির ঘোষণা দিয়ে বলেন, ‘যেহেতু নারীদের জন্য তৈরিকৃত নতুন আইন এরই মধ্যে পাস হয়েছে, তাই স্যাটারওয়েট আগামী মৌসুমেও আমাদের কেন্দ্রীয় চুক্তিবদ্ধ খেলোয়াড় হিসেবেই গণ্য হবে। যার ফলে সে-ই মাতৃত্বকালীন ছুটি পাওয়া প্রথম ক্রিকেটার হতে যাচ্ছে। এসময়ে সে পুরো পারিশ্রমিক পাবে। একইসঙ্গে বোর্ডের তরফ থেকে সকল সুবিধাদিও দেয়া হবে তাকে।’

এর আগে আনুষ্ঠানিক এক বার্তায় নিজের গর্ভবতী হওয়ার খবর জানিয়ে স্যাটারওয়েট বলেন, ‘লিয়া এবং আমি সবাইকে একটি খুশির সংবাদ দিতে চাই যে, আগামী বছরের শুরুতেই আমি আমাদের প্রথম সন্তান জন্ম দিতে যাচ্ছি। এটা আমাদের জীবনের জন্য বিশেষ মুহূর্ত। নতুন অধ্যায় শুরুর জন্য আমার অপেক্ষার তর সইছে না।’

এসময় বোর্ডের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করে তিনি আরও বলেন, ‘নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে যে সমর্থন ও সহায়তা আমি পেয়েছি, তাতে নিজেকে ভাগ্যবান মনে করছি। আমি মনে করি এখনও ক্রিকেটে অনেককিছু দেয়ার আছে আমার। ২০২১ সালের বিশ্বকাপের দিকে চোখ রেখে নিজের ফেরার পথে এগিয়ে যাবো আমি।’

নিউজিল্যান্ড নারী দলের হয়ে ১১৯টি ওয়ানডে এবং ও ৯৯টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন স্যাটারওয়েট। ওয়ানডে ক্যারিয়ারে ৩৮২১ রানের পাশাপাশি রয়েছে ৪৩টি উইকেট। এছাড়া কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে ১৫২৬ রানের সঙ্গে ২৪টি উইকেটও শিকার করেছেন তিনি। অন্যদিকে লিয়া তাহুহু ৬৬টি ওয়ানডে ও ৫০টি টি-টোয়েন্টি ম্যাচ খেলেছেন। একদিনের ক্রিকেটে ৭০ উইকেট রয়েছে তাহুহুর। টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে পেয়েছেন ৪৪ উইকেট।

এসএএস/জেআইএম