কাশ্মীরের ক্রিকেট বাঁচাতে পদক্ষেপ নিচ্ছে বিসিসিআই

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ১০:৩০ এএম, ২০ আগস্ট ২০১৯

জম্মু-কাশ্মীরে চলমান অস্থিরতায় জনজীবন যেমন ব্যাহত হচ্ছে, তেমনি পুরোপুরি থেমে গেছে সেখানকার স্থানীয় ক্রিকেটও। সংবিধানের ধারা বাতিলের ঘোষণার পরপরই জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেটের মেন্টর ইরফান পাঠানকে সেখান থেকে সরে যাওয়ার নির্দেশ দেয়া হয়েছিল।

এছাড়া সে রাজ্যের সঙ্গে সবধরনের যোগাযোগ ব্যবস্থা বন্ধ করে দেয়ায় ঘরোয়া টুর্নামেন্টও বাতিল করতে বাধ্য হয় জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেট অ্যাসোসিয়েশন। তবে ক্রিকেটের এমন অচলাবস্থা দূর করতে তাদের জন্য আশার বাণী নিয়ে হাজির হয়েছে ভারতীয় ক্রিকেট বোর্ড (বিসিসিআই)।

জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেটের মেন্টর ইরফান পাঠান জানিয়েছেন, ‘আশা করছি চলতি অস্থির অবস্থা আসন্ন মৌসুমে কোনো সমস্যা তৈরি করবে না। বিসিসিআইয়ের সঙ্গে আমার যা কথা হয়েছে, তাতে এটুকু নিশ্চিত যে তারা যেকোনোভাবে সাহায্য করতে প্রস্তুত। তারা যেকোনো সিদ্ধান্ত নিতে আমাদের সাহায্য করবে। সবকিছু স্বাভাবিকভাবে শুরু হওয়াই এখন সম্ভাব্য পরিণতি। অন্য কোথাও সরিয়ে নিতে হবে না।’

এদিকে খেলোয়াড়দের সঙ্গে যোগাযোগ করতে না পারায় আসন্ন প্রাক মৌসুম টুর্নামেন্টে ভিজ্জি ট্রফিতে খেলতে পারবে না জম্মু-কাশ্মীর ক্রিকেট দল। এ বিষয়ে ইরফান বলেন, ‘আমরা এবারের ভিজ্জি ট্রফিতে খেলতে যাচ্ছি না। যেহেতু মূল মৌসুম শুরুর আগে প্রস্তুতি খুবই জরুরী, তাই আমরা চেয়েছিলাম ওদের পাঠাতে। কিন্তু বর্তমান পরিস্থিতির কারণে সম্ভব হয়নি।’

তিনি আরও বলেন, ‘আমরা গত জুনে একটি ক্যাম্প করে প্রায় এক মাসের মতো ট্রেনিং করিয়েছিলাম। আমাদের কোচ, ট্রেইনাররা অনেক পরিশ্রম করেছিল। যা দলের খেলোয়াড়দের ফিটনেস বাড়িয়েছিল। কিন্তু যখনই মাঠের খেলা শুরু হওয়ার সময় এলো, তখন কারফিউয়ের কারণে আমাদের থেমে যেতে হয়। সব খেলোয়াড়দের বাড়িতে পাঠিয়ে দেয়া হয়।’

এসএএস/এমকেএইচ

টাইমলাইন