দশ মাস ধরে কোহলিদের বেতন দেয় না ভারতীয় বোর্ড

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:৪৫ পিএম, ০২ আগস্ট ২০২০

সবার জানা, বিশ্বের সবচেয়ে ধনী ক্রিকেট বোর্ড হলো বোর্ড অব ক্রিকেট কন্ট্রোল ইন ইন্ডিয়া (বিসিসিআই) তথা ভারতের ক্রিকেট বোর্ড। কিন্তু এই ধনী ক্রিকেট বোর্ডই জন্ম দিয়েছে অবাক করা ঘটনার। গত ১০ মাস ধরে বোর্ডের কাছ থেকে বেতন পাচ্ছেন না বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মারা।

গত বছরের অক্টোবর থেকে এখনও পর্যন্ত বোর্ডের কাছ থেকে কোন টাকা পাননি ভারতীয় ক্রিকেটাররা। কেন্দ্রীয় চুক্তিতে থাকা ২৭ জন ক্রিকেটারকে এরই মধ্যে তাদের চুক্তির চার কিস্তির প্রথমটি পরিশোধ করে দেয়ার কথা ভারতীয় বোর্ডের। কিন্তু একটি টাকাও পাননি চুক্তিভুক্ত খেলোয়াড়রা।

শুধু চুক্তির টাকাই নয়, গত ডিসেম্বরের পর থেকে খেলা ২ টেস্ট, ৯ ওয়ানডে এবং ৮ টি-টোয়েন্টির ম্যাচের ম্যাচ ফি'র টাকাও যায়নি ক্রিকেটারদের ব্যাংক একাউন্টে। জাতীয় ক্রিকেটারদের বাইরে ঘরোয়া ক্রিকেটাররাও পারিশ্রমিক বিষয়ক সমস্যায় পড়েছেন। ভারতের শীর্ষস্থানীয় সংবাদ মাধ্যম ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের প্রতিবেদন জানাচ্ছে এসব তথ্য।

কেন্দ্রীয় চুক্তিতে এ+, এ, বি ও সি- এই চার ক্যাটাগরিতে যথাক্রমে বাৎসরিক ৭ কোটি, ৫ কোটি, ৩ কোটি ও ১ রুপি পারিশ্রমিক পান ভারতের ক্রিকেটাররা। সবচেয়ে বেশি ৭ কোটি রুপির ক্যাটাগরিতে রয়েছেন বিরাট কোহলি, রোহিত শর্মা ও জাসপ্রিত বুমরাহ। কিন্তু গত দশ মাস ধরে কোনো টাকা না পাওয়ায় তাদের মোট পাওনা দাঁড়িয়েছে ৯৯ কোটি রুপি।

বিসিসিআইয়ের সবশেষ ব্যালেন্স শিট মোতাবেক, মার্চ ২০১৮ পর্যন্ত তাদের ব্যাংক একাউন্টে রয়েছে ৫ হাজার ৫শ ২৬ কোটি রুপি। এর মধ্যে ২ হাজার ৯শ ৯২ কোটি রুপি আবার ফিক্সড ডিপোসিট। ২০১৮ সালের এপ্রিলে স্টার টিভির সঙ্গে ৬ হাজার ১ ৩৮ কোটি রুপির চুক্তি করেছে সংস্থাটি।

অথচ এত অর্থ ব্যাংকে জমা থাকার পরে চুক্তিভুক্ত ক্রিকেটারদের পারিশ্রমিক তাদের একাউন্টে জমা করেনি বিসিসিআই। এ বিষয়ে বোর্ডের কোষাধ্যক্ষ অরুন ধুমালের সঙ্গে যোগাযোগের চেষ্টা করেছিল ইন্ডিয়া এক্সপ্রেস। কিন্তু ফোন কল কিংবা টেক্সট ম্যাসেজের কোনো উত্তর দেননি তিনি।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ভারতীয় ক্রিকেট দলের এক অভিজ্ঞ ক্রিকেটার ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসকে বলেছেন, ‘প্রতি তিন মাসে আমাদের পারিশ্রমিক দেয়া হতো। কিন্তু এবার আমরা এখন পর্যন্ত কিছুই জানি না। কেন্দ্রীয় চুক্তির নতুন তালিকা প্রকাশের পর কোনো খবর নেই। আমরা জানি না কখন পারিশ্রমিক আসবে। কোনো পরিষ্কার বার্তা নেই আমাদের কাছে। গত মাসে ফেব্রুয়ারির নিউজিল্যান্ড সিরিজের পারিশ্রমিকের ব্যাপারে কথা হচ্ছিল। কিন্তু এখনও সেই টাকা আসেনি।’

শুধু জাতীয় দল নয়, ঝাড়খণ্ড, মুম্বাই, বেঙ্গল, জম্মু-কাশ্মীর, পন্ডিচেরি, বারোডা, রেলওয়েস, রাজস্থান, উত্তর প্রদেশ এবং ছত্তিশগড়ের অনেক ঘরোয়া ক্রিকেটারও তাদের গত মৌসুমের পুরো টাকা পায়নি। অথচ বিসিসিআইয়ের ওয়েবসাইট জানাচ্ছে, সবগুলো প্রাদেশিক বোর্ডকে ১০ কোটি রুপি করে দিয়ে দেয়া হয়েছে।

এসএএস/পিআর

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]