সালাহকে কীভাবে আটকাতে হয় জানেন মার্সেলো

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৩:২৭ পিএম, ২৬ মে ২০১৮ | আপডেট: ০৩:৪৮ পিএম, ২৬ মে ২০১৮

উয়েফা চ্যাম্পিয়নস লিগের ফাইনালে আজ (শনিবার) রাতে লিভারপুলের মুখোমুখি হচ্ছে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন রিয়াল মাদ্রিদ। শিরোপা ধরে রাখতে হলে বেশ কঠিন পরীক্ষার মুখেই পড়তে হবে লস ব্ল্যাঙ্কোজদের। চ্যাম্পিয়ন্সলিগে টানা তিনটি শিরোপা জয়ের মিশনে রিয়ালের সামনে এখন সর্বশেষ বাধা হচ্ছেন লিভারপুলের মিশরীয় উইঙ্গার মোহাম্মদ সালাহ।

পুরো মৌসুমেই দুর্দান্ত ছিলেন ২৫ বছর বয়সী এ লিভারপুল তারকা। জিতে নিয়েছেন প্রিমিয়ার লিগের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও। সেই ভয়ঙ্কর সালাহকে আজ কিয়েভের মাঠে আটকানোর দায়িত্ব থাকবে রিয়ালের ব্রাজিলিয়ান ফুলব্যাক মার্সেলোর ওপর। দায়িত্ব পালনে দারুণ সচেতন এই ব্রাজিলিয়ান। সালাহকে আটকানোর ব্যাপারে বেশ প্রত্যয়ীই মার্সেলোর কণ্ঠ।

এ নিয়ে তিনি বলেন, ‘আমি জানি, ঠিক কি করতে হবে আমাকে এবং দলকে সাহায্য করতে কি করা প্রয়োজন। লিভারপুল একটি অসাধারণ দল এবং দুর্দান্ত একটি মৌসুম তারা কাটিয়েছে। আমাদের পুরো দল নিয়েই ভাবতে হবে, শুধু একজন কিংবা দুজনকে নিয়ে নয়। মূলতঃ এভাবেই ম্যাচ জিততে হয়।’

নিজেদের সঙ্গে লিভারপুলকেও সমান শক্তিশালী মনে করছেন মার্সেলো। এ কারণে তিনি বলেন, ‘ফাইনালে খেলতে পারাটা দারুণ একটি সুযোগ এবং আমরা এখানে লিভারপুলের মতোই। আমাদের মতো তারাও ট্রফিটা জয়ের দাবি রাখে।’

লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপ কিছুদিন আগেই সমালোচনা করে বলেছেন, মার্সেলো রক্ষণভাগে মনযোগী নয়। এ সমালোচনার জবাবে ব্রাজিলিয়ান এ ফুলব্যাক বলেন, ‘আমি তাকে এটি বলতে শুনিনি। তবে সবারই নিজের মতামত রয়েছে। আমি আমার কাজ নিয়ে খুশি, ঠিক আমার সতীর্থ এবং কোচের মতোই। আমি আমার কাজ বিনয় এবং নিষ্ঠার সঙ্গে পালন করি। আমার কারো কাছে কিছু প্রমাণ করার প্রয়োজ নেই।’

এ নিয়ে টানা তৃতীয়বার এবং গত পাঁচ বছরে চতুর্থবারের মতো ফাইনাল খেলছে মার্সেলোর রিয়াল মাদ্রিদ। দলের সাফল্যের ক্ষুধা নিয়ে ৩০ বছর বয়সী এ রিয়াল মাদ্রিদ তারকা বলেছেন, ‘আমাদের উদ্দেশ্য হচ্ছে জেগে ওঠো, অনুশীলন করো, ভালো ফুটবল খেলো এবং প্রতিটি প্রতিযোগিতা জেতো। যাতে আমরা অংশ নিই। আমরা ইতোমধ্যেই অনেক প্রতিযোগিতা জিতেছি এবং আরো জিততে চাই।’

ফাইনালে প্রতিপক্ষ লিভারপুলের সঙ্গে নিজেদের তুলনা করতে গিয়ে মার্সেলো বলেন, ‘দুটি দলই একরকম। উভয়ই বেশি আক্রমণ করে। আমরা আমাদের কাজ নিয়ে প্রস্তুত। এ ধরনের ফাইনালে শুরুতে অপেক্ষা করতে হয়, কি ঘটে দেখার জন্য। এরপর কিভাবে শুরু করবো সেটা পরিস্থিতিই বলে দেবে। সব মিরিয়ে এটা ফুটবলপ্রেমীদের জন্য দারুণ একটি ম্যাচ হতে চলেছে।’

লিভারপুল কোচ ইয়ুর্গেন ক্লপের মতে, এই ম্যাচে জিদানের রিয়াল মাদ্রিদ এগিয়ে থাকবে। তবে মার্সেলো জানালেন লস ব্ল্যাঙ্কোজরা এসব প্রসংশা এড়িয়েই চলতে চায়। তিনি বলেন, ‘আমাদের সবসময়ই ভবিষ্যতে নজর রাখতে হবে। আমরা যা অর্জন করেছি তার সবই অতীত। আমাদের লড়াই চালিয়ে যেতে হবে। এসব মানসিকতাই আমাদের প্রতিনিয়ত আরো ভালো করতে সাহায্য করে।’

ডিকেটি/আইএইচএস/আরআইপি