‘আর্জেন্টিনা একটা তৃতীয় সারির দল’

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৬:১০ পিএম, ২২ জুন ২০১৮

ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে ৩-০ গোলে হেরে আর্জেন্টিনার বিশ্বকাপ স্বপ্ন এখন সুতোয় ঝুলছে। গ্রুপ ‘ডি’-এর মহা গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে তারা রাকিতিচ-মদ্রিচদের সামনেই দাঁড়াতে পারেনি। মেসি তথা পুরো আর্জেন্টিনা দলের নিষ্প্রভ পারফরম্যান্স জন্ম দিচ্ছে অনেক সমালোচনার। ক্রোয়েশিয়ার বিপক্ষে আর্জেন্টিনার বাজে পারফরম্যান্স নিয়ে কথা বলেছেন আর্জেন্টিনার সাবেক ফুটবলাররা।

কারাসুসো লমবারদি মেসি সম্পর্কে বলেন, ‘৭ জন বিশেষজ্ঞ সবসময় তার পেছনে ছিল। তারা তাকে ছুড়ে ফেলতে চেয়েছিল কিন্তু মেসি এসবের কিছুই গ্রাহ্য করেনি। সে কোচের প্রতি প্রতিশোধপ্রবণ হয়ে খেলেছে। সে প্রযুক্তি বিশেষজ্ঞ নয়, সে একজন খেলোয়াড়। সে নিজে যা চায় তাদেরকেই দলে নিতে প্রলুব্ধ করে। আমার মনে হয়েছে, মেসি খুব বাজে খেলেছে এবং সাম্পাওলির চাকরিকে বিপদের মুখে ফেলে দিয়েছে। মেসি যদি চিকুইকে বলে সে সাম্পাওলিকে আর চাচ্ছে না, মঙ্গলবারের আগেই নাইজেরিয়ার বিপক্ষে হয়তো বুরুচাগাকে দেখা যাবে।

১৯৭৮ সালের বিশ্বকাপ জয়ী ফুটবলার মারিও কেম্পেস বলেন, ‘দলের এমন পরাজয়ে আমি খুব হতাশ। যদিও এটা আমার কাছে প্রত্যাশিতই ছিল কারণ আর্জেন্টিনার পারফরম্যান্স। ম্যাচে যা খেলেছে তার জন্য, বিশ্বকাপের বাছাইপর্ব থেকে যা খেলে আসছে তাতে অলৌকিক কিছু পারফরম্যান্স ছাড়া কোন কিছুই সম্ভব ছিল না। এটা একই দল, যাদেরকে কোন আদেশ দেওয়া হয় না, কীভাবে ভিন্ন কিছু করা যায় সেটারও ইঙ্গিত দেওয়া হয় না। তারা অনেকটা তৃতীয় সারির দলের মত হয়ে গেছে।’

মেসি সম্পর্কে কেম্পেস বলেন, ‘যদি মেসি সর্ব দিক দিয়েই বর্তমান সময়ের সেরা ফুটবলার হয়ে থাকে, তাহলেও সব শুরুরই শেষ আছে। সে হয়তো আরেকটি বিশ্বকাপ খেলতে পারে কিন্তু সেটা তার জন্য হবে বিতৃষ্ণাদায়ক, বাজে, অনেকটা সময় কাটানোর মত হবে সেটি। আমি খুব মর্মাহত যে, মেসি তার সবকিছু বার্সেলোনায় দিয়ে এসেছে এবং আর্জেন্টিনায় সে চেষ্টা করছে সবকিছু দেওয়ার। সে কতটা সেরা সেটা আর্জেন্টিনায় বিবেচ্য নয়, আর্জেন্টিনা এভাবে ভেদাভেদ করে না। আমার মনে হয়, তারা যতই এটার সঙ্গে তুলনা করুক না কেন, তাদের চক্রটা শেষ হতে চললো।’

আর্জেন্টিনার সাবেক কোচ বাউজা বলেন, ‘আর্জেন্টিনা দলে কোন একতাই দেখিনি। খুব অবাক করেছে আমাকে। সাম্পাওলির দলে এটা সবসময়েই ছিল। একতা ছাড়া দলের পরিণতি উল্টোই হবে যেটা সামলানো কঠিন। মেসি জাতীয় দলের গুরুত্বপূর্ণ খেলোয়াড়। তাদের বিশ্বকাপে অংশ নেওয়াটাই সম্ভব হয়েছে তার জন্য কিন্তু বিশ্বকাপে তার কোন সতীর্থই তাকে সাহায্য করছে না, এটা আমাকে খুব অবাক করেছে। সে যেখানে খেলে অভ্যস্ত সেখানেই যদি সঠিকভাবে তাকে খেলানো যেত তাহলে হয়তো আরো বেশি সুযোগ থাকতো।’

জর্জ ভালদানো বলেন, ‘আমরা জানি না, আর্জেন্টিনা আসলে কী খেলেছে। যদি দল রক্ষণাত্মক বা আক্রমণাত্মক কিছু থাকতো তাহলে দেখতাম। আমরা স্পেনের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে দেখেছি। বিশ্বকাপে আর্জেন্টিনা দলের প্রচুর সমস্যা রয়েছে। ম্যাচে মেসির পারফরম্যান্স খুব বাজে ছিল।’

আরআর/পিআর