অভিজ্ঞ ও তারুণ্যের মিশেলে মোহামেডান

বিশেষ সংবাদদাতা
বিশেষ সংবাদদাতা বিশেষ সংবাদদাতা
প্রকাশিত: ০৮:০৬ পিএম, ১৫ অক্টোবর ২০১৮

মোহামেডান এসসি এখন ঘরোয়া ফুটবলে নিজেদের ছায়া। দশটি প্রিমিয়ার লিগ শেষ হয়েছে- এখনো মোহামেডানের ঘর চেনেনি ট্রফি। প্রথম ৩ আসরে রানার্সআপ হওয়াটাই সাদা-কালোদের সেরা প্রাপ্তি। প্রিমিয়ার লিগের এগারতম আসরে ঐতিহ্যবাহী ক্লাবটি মাঠ কাঁপাবে তেমন দলও তৈরি করেনি। এবারও মিডিওকার একটি দল নিয়ে মৌসুম শুরু করবে তারা।

সোমবার দলবদলের শেষ দিনে ৩৪ ফুটবলার রেজিষ্ট্রেশন করিয়েছে মতিঝিল পাড়ার ক্লাবটি। জাতীয় দলের সাবেক কয়েকজন খেলোয়াড় নিয়েই যতটুকু গর্ব ক্লাব কর্মকর্তারে। তাদের সঙ্গে মিলিয়েছেন কিছু তরুণ। এক কথায় অভিজ্ঞ ও তারুণ্যের মিশেলেই নতুন মৌসুমের দল গড়েছে সাদা-কালোরা।

খেলোয়াড় তালিকায় যাদের নামই থাক, মোহামেডান মানেই দেশের ক্রীড়াঙ্গনে আলাদা আকর্ষণ। তাইতো সোমবার খেলোয়াড় রেজিষ্ট্রেশনের শেষ বিকেলে সবার উঁকিঝুকি কখন আসবে মোহামেডান। খেলোয়াড়দের নিয়ে আসবেন তো? নাকি তালিকা জমা দিয়ে যাবেন কোনো কর্মকর্তা-মোহামেডানকে নিয়ে গণমাধ্যমের আগ্রহের যে কোনো কমতি ছিল না। সন্ধ্যার একটু আগে ম্যানেজার আমিরুল ইসলাম বাবু পুরো দল নিয়ে বাফুফে ভবনে এসে তালিকা জমা দিয়ে যান বাফুফে কর্মকর্তাদের হাতে।

মোহামেডানের খেলোয়াড় তালিকায় বেশ কয়কটি পরিচিত নাম আছে যাদের আছে জাতীয় দলে খেলার অভিজ্ঞতা। ডিফেন্ডার মো. লিঙ্কন, মিন্টু শেখ, আতিকুর রহমান মিশু, মিডফিল্ডার মেজবাউল হক মানিক, এনামুল হক শরীফ, স্ট্রাইকার জাহিদ হাসান এমিলি, মিঠুন চৌধুরী ও তকলিস আহমেদরা নিকট অতীতেই ছিলেন জাতীয় দলের অপরিহার্য খেলোয়াড়।

মোহামেডানের চার বিদেশির মধ্যে দুইজন নাইজেরিয়ার এবং একজন করে গাম্বিয়ান ও জাপানের। গত মৌসুমে আবাহনীর জার্সি গায়ে খেলা গাম্বিয়ান মিডফিল্ডার ল্যান্ডিং ডারবোয়ে, নিজেদের নাইজেরিয়ান স্ট্রাইকার এনকোচা কিংসলে চিগোজি এবং দুই নতুন নাইজেরিয়ার চিতাচি অরিয়াকু ও জাপানের ইউ. নাগাতা।

মোহামেডানের এই দলটির ডাগআউটে দাঁড়াবেন ইংলিশ কোচ ক্রিস্টোফার ইভান্স। মোহামেডান কর্মকর্তাদের প্রত্যাশা, এই দলটি নিয়ে এবার ফাইট দেবে তারা। এখন দেখার বিষয় জাতীয় দলের সাবেক কিছু খেলোয়াড় ও নতুনদের নিয়ে কতদূর যেতে পারে মোহামেডান। চার বিদেশির পারফরম্যান্সের উপরও নির্ভর করছে অনেক কিছু।

আরআই/এসএএস/পিআর

আপনার মতামত লিখুন :