রোনালদোর জোড়া গোলেও জয় পেল না জুভেন্টাস

স্পোর্টস ডেস্ক
স্পোর্টস ডেস্ক স্পোর্টস ডেস্ক
প্রকাশিত: ০৯:৫০ এএম, ২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০

নতুন মৌসুমে ঘরের মাঠে প্রথম ম্যাচটি সহজেই জিতেছিল জুভেন্টাস। লিগ শিরোপা ধরে রাখার মিশনে সাম্পদোরিয়াকে তারা হারিয়েছিল ৩-০ ব্যবধানে। তবে প্রতিপক্ষের মাঠে খেলতে গিয়েই হোঁচট খেলেন ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো, লিওনার্দো বনুচ্চিরা।

পরাজয়ের শঙ্কা জাগলেও অল্পের জন্য রক্ষা পেয়েছে জুভেন্টাস। ইতালির রাজধানী ক্লাব রোমার মাঠে খেলতে গিয়ে ২-২ গোলে ড্র করেছে জুভেন্টাস। জোড়া গোল করেও দলকে জয় এনে দিতে পারেননি রোনালদো। তবে পাইয়ে দিয়েছেন একটি পয়েন্ট।

ইতালিয়ান সিরি 'আ'র গত মৌসুমের শিরোপা জিতলেও, আসরের শেষ রাউন্ডে রোমার মাঠ থেকে জিততে পারেনি জুভেন্টাস। ছন্নছাড়া পারফরম্যান্সে সেদিন তারা হেরেছিল ১-৩ গোলের ব্যবধানে। একই ফলের পুনরাবৃত্তি ঘটতে বসেছিল নতুন মৌসুমের ম্যাচেও। তবে জয়ের আশা জাগিয়েও ফলাফল নিজেদের পক্ষে রাখতে পারেনি রোমা।

পুরো ম্যাচে বল দখলের লড়াইয়ে এগিয়ে ছিল জুভেন্টাসই। ম্যাচের ৬০ শতাংশ সময় বলের দখল নিজেদের কাছে রেখেই খেলেছে তারা। কিন্তু সে অর্থে জোরালো আক্রমণে রোমার রক্ষণে ভয় ধরাতে পারেনি। উল্টো আচমকা সব আক্রমণে জুভেন্টাসকে তটস্থ করে রেখেছিল স্বাগতিকরাই।

তবে ম্যাচের ৩১ মিনিটে করা প্রথম গোলটিতে জুভেন্টাসেরও দায় ছিল অনেকটা। রোমার মিডফিল্ডার জর্ডান ভেরেতু গোল বরাবর শট নিলে সেটি ডি-বক্সের মধ্যে হাতে লাগে জুভেন্টাস মিডফিল্ডার আদ্রিয়ান র‍্যাবিয়টের। ফলে পেনাল্টির বাঁশি বাজান রেফারি। সেখান থেকেই প্রথম গোল করেন ভেরেতু।

প্রথমার্ধের বিরতির বাঁশি বাজার আগে গোল হয় আরও দুইটি। ম্যাচের ৪৪ মিনিটের মাথায় ডি-বক্সে হ্যান্ডবলের কারণে পেনাল্টি পায় জুভেন্টাস। সফল স্পটকিকে ম্যাচে সমতা ফেরান দলের সবচেয়ে বড় তারকা ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদো। তার শটই ডি-বক্সের মধ্যে হাতে লেগেছিল রোমা মিডফিল্ডার পেলেগ্রিনির।

সমতায় থেকে বিরতিতে যেতে আপত্তি ছিল রোমার। প্রথমার্ধের অতিরিক্তি যোগ করা সময়ে ফের লিড নেয় তারা। রোনালদোর গোলের দুই মিনিটের মাথায় দারুণ এক কাউন্টার অ্যাটাকে নিজের ও দলের দ্বিতীয় গোল করেন ভেরেতু। ফলে এগিয়ে থেকেই বিরতিতে যায় স্বাগতিক দলটি।

দ্বিতীয়ার্ধে ফিরে ব্যবধান আরও বাড়ানোর সুযোগ পেয়েছিলেন রোমার ফরোয়ার্ড এডিন জেকো। কিন্তু তিনি লক্ষ্যভ্রষ্ট শট নিলে হাতছাড়া হয় সেই সুযোগ। এক মিনিট পর একই ভুল করেন রোনালদো। ফাঁকায় বল পেয়েও সেটি গোলরক্ষক বরাবর মেরে বসেন এ পর্তুগিজ সুপারস্টার।

ম্যাচের ৬২ মিনিটের সময় জুভেন্টাসের বিপদ বাড়ান প্রথম গোলের হ্যান্ডবল করা র‍্যাবিয়ট। মাঝমাঠে রোমার ফরোয়ার্ড হেনরিখ মিখতিরিয়ানকে অযথাই পেছন থেকে ফাউল করে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়তে বাধ্য হন র‍্যাবিয়ট। ফলে প্রায় ত্রিশ মিনিট বাকি থাকতে দশজনের দলে পরিণত হয় জুভেন্টাস।

এই সুযোগটি অবশ্য নিতে পারেনি রোমা। দশজনের জুভেন্টাসের বিপক্ষেও ম্যাচের বাকি সময়ে কোনো গোল করতে পারেনি তারা। উল্টো ম্যাচের ৬৯ মিনিটে দানিলোর ক্রসে লাফিয়ে ওঠা হেডে ম্যাচে সমতা ফেরান রোনালদো, করেন চলতি লিগে নিজের দ্বিতীয় গোল। বাকি সময়ে একের পর এক চেষ্টা করেও জয়সূচক গোল আদায় করতে পারেনি কোনো দল।

এই ড্রয়ের পর পয়েন্ট টেবিলে বেশ পিছিয়েছে চ্যাম্পিয়ন জুভেন্টাস। দুই ম্যাচে একটি করে জয় ও ড্র'তে ৪ পয়েন্ট নিয়ে তাদের অবস্থান চতুর্থ। জুভেন্টাসের ওপরে থাকা নাপোলি, ভেরোনা ও এসি মিলান নিজেদের দুই ম্যাচ থেকে পেয়েছে পূর্ণ ৬ পয়েন্ট।

এসএএস/জেআইএম

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]