অ্যাপে মিলবে সিএনজি অটোরিকশা

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক
প্রকাশিত: ০৮:৪৬ এএম, ২১ ডিসেম্বর ২০১৭

নতুন বছরের প্রথম দিন থেকেই ঢাকায় অ্যাপে মিলবে সিএনজি চালিত অটোরিকশা। এটাই হবে সিএনজি অটোরিকশার প্রথম অ্যাপ যাত্রা। অ্যাপে রিকোয়েস্ট দিয়ে যেমন সিএনজি মিলবে তেমনি অ্যাপ ছাড়া শুধু চালকের মোবাইল ব্যবহার করে চলাচল করা যাবে। এজন্য দুই হাজার স্মার্টফোন চালকের হাতে তুলে দিয়ে এ সেবা শুরু করবে 'গতি-লেটসগো' নামের অ্যাপ।

বৃহস্পতিবার রাজধানীর একটি হোটেলে এই অ্যাপের বিষয়ে বিস্তারিত জানাতে সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। আগামী ১ জানুয়ারি থেকে অ্যাপের যাত্রা শুরু হবে বলে জানান, গতি-লেটসগো অ্যাপের নির্মাতা প্রতিষ্ঠান এন. আই. বিআইজেড-এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর (এমডি) এন জামান চৌধুরী জেমস।

এন জামান চৌধুরী জেমস আরও বলেন, সিএনজি অটোরিকশায় যে মোবাইল ফোন দেয়া হবে সেগুলোকে শুধু গতি অ্যাপের জন্য নির্দিষ্ট করে দেয়ার চিন্তা করছেন তারা। যাতে সেখানে অন্য কোনো অ্যাপ না চলে। সেক্ষেত্রে প্রযুক্তিগত বিষয়গুলো এখনও বিবেচনা করা হচ্ছে। যাদের কাছে অ্যাপ নেই তারাও অ্যাপভিত্তিক সেবাটি ব্যবহার করতে পারবেন। এক্ষেত্রে যাত্রীর মোবাইলের প্রয়োজন নেই।

এক প্রশ্নের জবাবে জেমস বলেন, এই অ্যাপে মালিক, চালক ও যাত্রী রেজিস্ট্রেশন ভুক্ত থাকবে। ফলে সিএনজি অটোরিকশায় কিছু ফেলে রেখে গেলে ফেরত পাওয়া যাবে। এছাড়া ড্রাইভারদের আয় বাড়বে। যাত্রীরা আরও ভাল সেবা পাবে।

অ্যাপ বাস্তবায়নকারী প্রতিষ্ঠানের ম্যানেজিং পার্টনার চপল জানান, সিএনজি অটোরিকশার মালিককে মূলত মোবাইল ফোনটি দেয়া হবে। কারণ একজন মালিকের একাধিক সিএনজি রয়েছে। আবার একটি সিএনজি ২-৩ জন চালক চালান। যখন যে চালাবে তার আইডি লগইন করে চালাতে পারবে। আর সিএনজি মালিক অ্যাপটির ওয়েবসাইটে গিয়ে নিজস্ব আইডি পাসওয়ার্ড দিয়ে ঢুকে দেখতে পারবে কতটি ট্রিপ কোথায় কোথায় হয়েছে। ২১-৩১ ডিসেম্বর রেজিস্ট্রেশন কার্যক্রম শেষ করে ১-৩ হাজারেরও বেশি সিএনজি অটোরিকশায় অ্যাপটি ছাড়ার ইচ্ছা তাদের।

চপল আরো জানান, সিএনজি চালকদের অ্যাপে নিয়ে আসতে যেসব প্রতিবন্ধকতা তা বিবেচনায় নেয়া হয়েছে। শুরুতে সিএনজি চালক আর মালিকদের অনেক সমিতি দেখে পরে পৃথকভাবে মালিকদের সঙ্গে যোগাযোগ করেই অ্যাপ সেবার কথা আলোচনা হয়েছে। এতেই মালিকপক্ষ রাজি হয়। তবে রাইড শেয়ারিংয়ের যে নীতিমালা করছে সরকার সেখানে সবশেষ খসড়ায় সিএনজি অটোরিকশাকে অ্যাপ সেবার বাইরে রাখার বিধান যুক্ত করা হয়। যদিও সরকার নির্ধারিত মিটার কার্যত অচল।

এমএ/এআরএস/পিআর

বিনোদন, লাইফস্টাইল, তথ্যপ্রযুক্তি, ভ্রমণ, তারুণ্য, ক্যাম্পাস নিয়ে লিখতে পারেন আপনিও - jagofeature@gmail.com

আপনার মতামত লিখুন :