ইবির ৫৮৬ ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁস

বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক
বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিবেদক ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়
প্রকাশিত: ০৮:৪৩ এএম, ১০ এপ্রিল ২০২১

ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের (ইবি) ফেসবুক ব্যবহারকারী ৫৮৬ জন শিক্ষক-শিক্ষার্থী, কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের তথ্য ফাঁস করেছে একটি লো লেভেল হ্যাকিং প্ল্যাটফর্ম-প্রযুক্তি।

শুক্রবার (৯ এপ্রিল) বিশ্ববিদ্যালয়ের এক আইটি শিক্ষার্থী সাংবাদিকদের এ তথ্য জানিয়েছেন।

জানা যায়, সম্প্রতি একটি হ্যাকার গ্রুপ ফেসবুক ব্যবহারকারীদের ব্যক্তিগত তথ্য ফাঁস করেছে। ১০৬টি দেশের ৫৩ কোটি ৩০ লাখ ফেসবুক আইডির তালিকা বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশ করেছে হ্যাকার প্ল্যাটফর্মটি।

এরমধ্যে বাংলাদেশের ৩৮ লাখ ফেসবুক ব্যবহারকারীর তথ্য ফাঁসের তালিকা পাওয়া যায়। যেখানে ইবির নাম প্রোফাইলে ব্যবহার করেছেন এমন ফেসবুক আইডির রয়েছে ৫৮৬টি।

এছাড়া যাদের প্রোফাইলে ইবির পরিচয় যুক্ত করা নেই তাদের সংখ্যা খুঁজে বের করা সম্ভব হয়নি। তবে মোবাইল নম্বর দিয়ে সার্চ করলে এ সংখ্যা আরো বাড়তে পারে।

আইডির ফাঁস হওয়া তথ্যের মধ্যে মোবাইল নম্বর, ই-মেইল আইডি, কর্মস্থল, নাম, ঠিকানা, জন্ম তারিখ, বিভিন্ন রাজনৈতিক ও সামাজিক সংগঠনের সংশ্লিষ্টতাসহ প্রয়োজনীয় নানা তথ্য রয়েছে।

এ তালিকায় বিশ্ববিদ্যালয়ের সাবেক প্রশাসনিক কর্মকর্তা, সিনিয়র শিক্ষক, বিভিন্ন শিক্ষক সংগঠনের নেতা, ডিন, বিভাগীয় প্রধানসহ বিভিন্ন ছাত্র সংগঠনের প্রভাবশালী নেতা, বিশ্ববিদ্যালয়ের পরিকল্পনা ও উন্নয়ন দফতরের কর্মকর্তা, প্রকৌশল দফতরের সিনিয়র কয়েকজন প্রকৌশলীসহ বিভিন্ন সামাজিক সংগঠনের নেতা-কর্মীদের তথ্য রয়েছে বলে জানা যায়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের আইসিটি সেলের ডাটাবেজ প্রোগ্রামার হাফিজুর রহমান বলেন, ‘এ ডাটাগুলো ফেসবুক কর্তৃপক্ষের কেন্দ্রীয় সার্ভার থেকে হ্যাক হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। ডাটাগুলো নিয়ে বিভিন্ন গবেষণা হতে পারে। যেমন একজন ব্যক্তি অনলাইনে কি ধরনের কাজ করতে স্বাচ্ছ্যন্দবোধ করছে, গুগলে কোন ওয়েবসাইটগুলো সার্চ করেন, কি ধরনের পাসওয়ার্ড ব্যবহার করেন ইত্যাদি। এছাড়া ফাঁস হওয়া মোবাইল নম্বর ও ই-মেইল অনলাইন মার্কেটিং-এর জন্য ব্যবহার করা হতে পারে’।

তিনি আরও বলেন, ‘ফেসবুকে ব্যাংকের বিস্তারিত তথ্য, ব্যক্তিগত ছবি, গোপন কথোপকথন, রেকর্ড-এ তথ্যগুলো থাকলে তা নিয়েও সমস্যা হতে পারে।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের ইনফরমেশন অ্যান্ড কমিউনিকেশন টেকনোলজি (আইসিটি) বিভাগের অধ্যাপক ড. তপন কুমার জোদ্দার বলেন, ‘হ্যাকাররা মোবাইল নম্বর, জন্ম তারিখ, ইমেইল আইডি, নাম ঠিকানাসহ নানা তথ্য হ্যাক করতে পারে। তবে স্মার্টকার্ডে উল্লেখিত জন্ম তারিখ হ্যাক করলে নানা সমস্যার সৃষ্টি হতে পারে’।

তিনি আরও বলেন, ‘বিশেষ করে যাদের ব্যাংক একাউন্ট রয়েছে তাদের সমস্যা বেশি হতে পারে। তাই ফেসবুকে তথ্য সংরক্ষণে সর্বোচ্চ সতর্ক থাকতে হবে। ফেসবুক পাসওয়ার্ডের পাশাপাশি টু-ফ্যাক্টর ভ্যারফিকেশন প্রক্রিয়া চালু রাখা যেতে পারে।’

রায়হান মাহবুব/এসএমএম/এমএস

করোনা ভাইরাসের কারণে বদলে গেছে আমাদের জীবন। আনন্দ-বেদনায়, সংকটে, উৎকণ্ঠায় কাটছে সময়। আপনার সময় কাটছে কিভাবে? লিখতে পারেন জাগো নিউজে। আজই পাঠিয়ে দিন - [email protected]