সাভারে অভিযান সমাপ্ত, গ্রেনেড উদ্ধার


প্রকাশিত: ১২:০০ পিএম, ২৭ মে ২০১৭

দফায় দফায় বিস্ফোরণের মধ্য দিয়ে ঢাকার সাভারে নির্মাণাধীন একটি ছয়তলা বাড়িতে সন্দেহভাজন জঙ্গি আস্তানার অভিযান শেষ হয়েছে।

শনিবার বেলা আড়াইটার দিকে অভিযান শেষ হয় বলে জানায় পুলিশ। বিকেলে সাড়ে ৩টার দিকে প্রেসব্রিফিং করে অভিযানের সমাপ্তি ঘোষণা করেন ঢাকা জেলার পুলিশ সুপার শাহ মিজান শাফিউর রহমান।

তিনি জানান, ছয়তলা বাড়ির দোতলার ফ্ল্যাটে অভিযানে সাতটি গ্রেনেড, তিনটি সুইসাইড ভেস্ট, ল্যাপটপ, বোমা তৈরির সার্কিটসহ নানা সরঞ্জাম উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় দুইজনকে জিজ্ঞাসাবাদ করে ছেড়ে দেয়া হয়েছে।

তিনি বলেন, মোট ১০টি বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। যার মধ্যে সাতটি গ্রেনেড এবং তিনটি সুইসাইড ভেস্ট নিষ্ক্রিয় করা হয়েছে।

শুক্রবার রাত ১০টা থেকে সাভার পৌর এলাকার নামা গেন্ডা মহল্লার ছয়তলা বিশিষ্ট ওই বাড়িটি ঘেরাও করে রাখে কাউন্টার টেররিজম ইউনিট।

সেখানে বিপুল পরিমাণ বিস্ফোরক রাখার বিষয়টি নিশ্চিত হয়ে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী দলকে তলব করা হয়। শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে বাড়িটির ভেতরে প্রবেশ করে বোমা নিষ্ক্রিয়কারী একটি দল। ওই দলটি দুপুর আড়াইটা পর্যন্ত বাড়িটির ভেতরেই ১০টি বিস্ফোরণ ঘটিয়ে গ্রেনেড এবং সুইসাইড ভেস্টগুলো নিষ্ক্রিয় করে।

প্রেস ব্রিফিংয়ে শাহ মিজান শাফিউর রহমান বলেন, নির্মাণাধীন ছয়তলা বাড়িটি আমাদের লক্ষ্য ছিল না। লক্ষ্য ছিল শুক্রবার সন্ধ্যায় প্রথম যে পাঁচতলা বাড়িতে অভিযান চালিয়েছি সেটি। পাঁচতলা বাড়িটিতে অভিযান চালানোর পর স্থানীয় একজন তাদের জানান যে, ওই বাড়ি থেকে এক লোককে তিনি এদিকে আসতে দেখেছেন। তখন তাকে সঙ্গে নিয়ে এদিকে এসে এই ছয়তলা বাড়ির সন্ধান পাই।

স্থানীয়রা জানায়, বাড়িওয়ালা একজন সৌদি প্রবাসী। জঙ্গিরা চলতি মাসের ৮ তারিখে মাসিক পাঁচ হাজার টাকায় এক দম্পতি পরিচয়ে নির্মাণাধীন ছয়তলা ওই বাড়ির দ্বিতীয় তলার ফ্ল্যাটটি ভাড়া নেন। মুসলিম (২৮) নামের ওই ব্যক্তির বাড়ি নোয়াখালী বলে জানা গেছে।

আল-মামুন/এএম/আরআইপি

আপনার মতামত লিখুন :