মোবাইল চুরির অভিযোগে শিশুকে হাত বেঁধে নির্যাতন

নিজস্ব প্রতিবেদক
নিজস্ব প্রতিবেদক নিজস্ব প্রতিবেদক বরিশাল
প্রকাশিত: ০৯:৩৫ এএম, ২৬ অক্টোবর ২০১৭

বরিশালের মুলাদী উপজেলার চর শফিপুর গ্রামের সমিতির হাট এলাকায় মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে শাওন (১৩) নামে এক শিশুকে রশি দিয়ে বেঁধে অমানুষিক নির্যাতন করা হয়েছে। এ ঘটনায় বৃহস্পতিবার দুপুরে মুলাদী থানায় মামলা হয়েছে।

এর আগে এ ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে সবুজ (৩৫) ও মহসিন (৩২) নামে দুই যুবককে আটক করা হয়। তাদের বাড়ি চর শফিপুর এলাকায়।

নির্যাতনের শিকার শিশু শাওন চর শফিপুরের সমিতির হাট এলাকায় নানা মাজেদ বেপারীর বাড়িতে বেড়াতে এসেছিল।  তার বাবা নেই। মা শাহনাজ বেগম ঢাকায় গৃহপরিচারিকার কাজ করেন।

স্থানীয়রা জানান, গত ২১ অক্টোবর মোবাইল ফোন চুরির অভিযোগে শিশু শাওনকে হাত বেঁধে নির্যাতনের দৃশ্য সেখানে উপস্থিত কেউ একজন মোবাইল ফোনের ক্যামেরায় ধারণ করে। ওই ভিডিওতে দেখা যায় দেখা যায়, বিভিন্ন বয়সের ২৫/৩০ জন মানুষের উপস্থিতিতে এক যুবক শাওনকে কাঠ দিয়ে পেটাচ্ছে এবং সে চিৎকার করছে। পরে ভিডিওটি ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়ে।

bar

পুলিশের একটি সূত্র জানায়, ওই ভিডিওটি বাংলাদেশ আইন সহায়তা কেন্দ্র ফাউন্ডেশন (বাসক) বরিশালের উপ-পরিচালক সোহেল সরদারের হাতে পৌঁছালে তিনি বরিশালের পুলিশ সুপার বরাবরে এ ব্যাপারে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

অভিযোগে বলা হয়, শাওন চর শফিপুরের নানাবাড়িতে বেড়াতে এসেছিল। মোবাইল চুরির অভিযোগে তাকে স্থানীয় কিছু লোক নির্মম নির্যাতন করেছে।

এ অবস্থায় বিষয়টি আমলে নিয়ে শাওনকে খুঁজে বের করা এবং নির্যাতনকারীদের গ্রেফতার ও দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবি জানান বাসক’র উপ-পরিচালক। পুলিশ সুপার অভিযোগ পেয়ে মুলাদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তাকে (ওসি) দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণের নির্দেশ দিলে বুধবার রাতে সবুজ ও মহসিন নামে দুজনকে আটক করে পুলিশ। 
মুলাদী থানা পুলিশের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. মতিউর রহমান জানান, বিষয়টি জানার পর তাৎক্ষণিক অভিযান চালিয়ে দুইজনকে আটক করা হয়ছে। এ ঘটনায় মামলা দায়ের হয়েছে। মামলাটি সুষ্ঠুভাবে তদন্ত করে দ্রুত দোষীদের বিরুদ্ধে চার্জশিট দেয়া হবে।

সাইফ আমীন/আরএআর/জেআইএম

আপনার মতামত লিখুন :