সাতক্ষীরায় সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বয়কট

জেলা প্রতিনিধি
জেলা প্রতিনিধি সাতক্ষীরা
প্রকাশিত: ০৪:২২ পিএম, ১৭ ডিসেম্বর ২০১৭
সাতক্ষীরায় সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রীকে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের বয়কট

মহান বিজয় দিবসে কালিগঞ্জের সোহরাওয়ার্দী পার্কে বীর শহীদদের স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পস্তবক অর্পণ করেন সাতক্ষীরা-৩ আসনের এমপি এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি মন্ত্রণালয় সংক্রান্ত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক।

এরপর স্থানীয়ভাবে প্রণীত কর্মসূচির অংশ হিসেবে সরকারি কবরস্থানে স্বাধীনতা যুদ্ধে পাক বাহিনী ও তাদের স্থানীয় দোসরদের হাতে নিহত শহীদ ইউনুচ আলীর কবর জিয়ারত কর্মসূচিতে অংশগ্রহণের জন্য সাতক্ষীরা-৩ আসনের এমপিকে অনুরোধ জানান মুক্তিযোদ্ধা সংসদের নেতৃবৃন্দ।

কিন্তু তিনি সেই অনুরোধ প্রত্যাখ্যান করে নলতায় চলে যান। এর প্রেক্ষিতে উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি, উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও মুক্তিযোদ্ধা সংসদের কমান্ডার আলহাজ্জ শেখ ওয়াহেদুজ্জামান, ডেপুটি কমান্ডার আব্দুল হাকিম ও অন্যান্য নেতৃবৃন্দ সাতক্ষীরা-৩ আসনের এমপি অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক এমপিকে বয়কট ঘোষণা করেন। এতে একাত্মতা ঘোষণা করেন মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নেতৃবৃন্দ।

এছাড়াও গত ৬ মাস পূর্বে মুক্তিযোদ্ধার সন্তান কমান্ডের নতুন কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠানে উপস্থিত থেকে সাতক্ষীরা-৩ আসনের এমপি অধ্যাপক ডা. আ ফ ম রুহুল হক এবং সাতক্ষীরা-৪ আসনের এমপি এসএম জগলুল হায়দার মুক্তিযোদ্ধা মার্কেটে সন্তান কমান্ডের কার্যক্রম পরিচালনার জন্য একটি ঘর নির্মাণ করে দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছিলেন। কিন্তু দীর্ঘদিনেও তারা এ ব্যাপারে কোনো পদক্ষেপ গ্রহণ না করায় মুক্তিযোদ্ধা সংসদ সন্তান কমান্ডের নেতৃবৃন্দ তীব্র নিন্দা ও ক্ষোভ জানান।

এদিকে, সোহরাওয়ার্দী পার্কে স্মৃতিস্তম্ভের সন্মুখে ছিল পানি ও কাদার ছড়াছড়ি। বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান ও সংগঠন স্মৃতিস্তম্ভে পুষ্পমাল্য অর্পণ করতে গিয়ে বিড়ম্বনার মধ্যে পড়েন। কাদা পানিতে চলাফেরায় ব্যাপক ঝামেলা হয় এবং কাপড়চোপড় নষ্ট হয়।

এসময় উপস্থিত অনেকেই জানান, প্রায় এক সপ্তাহ আগে বৃষ্টি হওয়ায় পার্কের ভেততে পানি জমে যায়। বিষয়টি জানার পরও এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী অফিসার গোলাম মাঈনউদ্দিন হাসান কোনো ব্যবস্থা গ্রহণ করেননি। কয়েক ভ্যান বালু ফেললে জাতীয় দিবসে বীর শহীদদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে এসে এরকম পরিস্থিতির সম্মুখীন হতে হতো না বলে মন্তব্য করেন তারা। এসময় তারা উপজেলা নির্বাহী অফিসারের গাফিলতি ও দায়সারা কার্যক্রমে ক্ষোভ ও নিন্দা জানান।

আকরামুল/এমএএস